Logo
মঙ্গলবার, ১১ মে, ২০২১ | ২৮শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

চুল রাঙাবেন না, কিন্তু কেন ?

প্রকাশের সময়: ৪:৩০ পূর্বাহ্ণ - বৃহস্পতিবার | সেপ্টেম্বর ২৯, ২০১৬

রূপচর্চাবিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে জানানো হয়, চুলে রং করলে প্রথমে কিছুটা উজ্জ্বলতা যুক্ত হলেও কিছুদিন পরেই তা রুক্ষ হয়ে যেতে পারে। কারণ রংয়ে থাকা কেমিকল চুলের জন্য কিছুটা হলেও ক্ষতিকর। তাই চুলে রং ব্যবহারের পর সঠিক যত্ন নেওয়া না হলে চুল নষ্ট হয়ে যেতে পারে।

মাথার ত্বকে চুলকানির সমস্যা থাকলে: মাথার ত্বকে অনেকেরই নানা রকম অ্যালার্জির সমস্যা থাকতে পারে। যেমন মাথার ত্বকে চুলকানি, ছোট দানা বা ফুসকুড়ি হওয়া ইত্যাদি। এ ধরনের সমস্যায় অবশ্ই রং ব্যবহার থেকে বিরত থাকতে হবে। কারণ রংয়ের কারণে অ্যালার্জি বা অন্যান্য সমস্যা বৃদ্ধি পেতে পারে। আগে যদি রং করে থাকেন তাহলে ওই কারণেও এমন অ্যালার্জি বৃদ্ধি পেতে পারে। চুলের রংয়ে কিছু উপাদান থাকে যা মাথার ত্বকে অ্যালার্জি বেড়ে যেতে পারে। তাই এমন কোনো লক্ষণ দেখা দিলে অবশ্যই রংয়ের মায়া ত্যাগ করতে হবে।

ভঙ্গুর চুলের ক্ষেত্রে: চুলে রং করার আগে রং যেন ভালোভাবে বসে তার জন্য ব্লিচ করা হয়। যা চুল পাতলা ও ভঙ্গুর করে ফেলে। তাই যারা নিয়মিত রং করেন তাদের চুল ভঙ্গুর ও দুর্বল হয়ে যায়। এমন পরিস্থিতিতে চুল রং করা বাদ দিতে হবে।

ক্ষতিগ্রস্ত ও রুক্ষ চুলের ক্ষেত্রে: চুল রুক্ষ, এলোমেলো এবং আগা ফাঁটার সমস্যা থাকলে তাতে আবারও রং করা হলে চুল আরও ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। তাই এ ধরনের চুলে কোনোভাবেই রং ব্যবহার করা যাবে না। বরং চুলে পুষ্টি যোগায় এমন মাস্ক ব্যবহার করতে হবে এবং নিয়মিত চুলে তেল দিতে হবে। সপ্তাহে একদিন ডিপ কন্ডিশনার ব্যবহার করতে হবে।

চুলে রং করা হলে চুলের বেশি যত্ন নিতে হয়। আর চুলের যে কোনো ধরনের সমস্যায় রং করা বাদ দিয়ে বাড়তি যত্ন নেওয়া উচিত।

Read previous post:
ফেসবুকের যে সেবা মিলবে টাকায়

প্রতিষ্ঠানের কর্মীদের মধ্যে পারস্পরিক যোগাযোগ ও বিশেষ কাজের সুবিধার জন্য ফেসবুক উন্মুক্ত করছে যাচ্ছে ‘ফেসবুক অ্যাট ওয়ার্ক’ নামের একটি বিশেষ...

Close

উপরে