Logo
শুক্রবার, ০৫ মার্চ, ২০২১ | ২০শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

আগামী সাপ্তাহের মধ্যেই পাসপোর্ট পৌঁছে দিবে মালয়েশিয়া দূতাবাস

প্রকাশের সময়: ৫:০৩ অপরাহ্ণ - মঙ্গলবার | ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০২১

তৃতীয় মাত্রা

এম এ আবির, মালয়েশিয়া প্রতিনিধি, প্রবাসীদের পাসপোর্ট ভোগান্তি যেন নিত্যদিনের কার্যকরম।৩/৪ মাসের অপেক্ষমান সোনার হরিণ ক্ষেত এই পাসপোর্ট। মালয়েশিয়ার জহুর বারু, পেনাং রাজ্য সহ দূর প্রদেশে থাকা প্রবাসীদের হাতে পাসপোর্ট পৌছে দিতে নতুন উদ্যেগ নিয়েছে হাইকমিশন। পোষ্ট অফিসের মাধ্যমে পৌঁছে দেওয়া হবে তাদের পাসপোর্ট। চলমান করোনা সংক্রমণরোধে মালয়েশিয়া সরকারের দেওয়া বিধিনিষেধের কারণে প্রবাসীদের হয়রানি ও যাতায়াতের ঝামেলা এড়াতে এমন উদ্যোগের ঘোষণা দিয়েছেন হাইকমিশনার মো: গোলাম সারোওয়ার।

২১ শে ফেব্রুয়ারি শহীদ ও আন্তর্জাাতিক মাতৃভাষা দিবসের অনুষ্টানে এ ঘোষণা দেন তিনি। সদ্য বিদায়ী হাইকমিশনার শহীদুল ইসলাম ও করোনা ভাইরাস সংক্রামণের প্রথম ধাপেই এই ঘোষণা দিয়েছিল তবে ঘোষণা বাস্তবায়ন হয়নি। দায়িত্ব নেয়ার পর দেশটিতে নিযুক্ত বাংলাদেশের এ হাইকমিশনার আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবসের অনুষ্ঠানে দ্রুত ও সহজভাবে পাসপোর্ট সার্ভিস দেয়ার ঘোষণা দিয়েছিলেন। মহামারির কারণে চলাচল সহজ না হওয়ায় দূরদূরান্ত থেকে এসে পাসপোর্ট নেয়াও ক্রমশ কঠিন হয়ে পড়েছে।

এর আগে ডাক যোগে পাসপোর্ট আবেদন নেওয়া শুরু করে হাইকমিশন। পাসপোর্ট পৌঁছে দেওয়ার এ সুবিধা চালু হলে আর পাসপোর্টের জন্য কাউকে হাইকমিশনে আসতে হবে না।এ ধরনের সহজ ও ঝামেলামুক্ত সেবা পাওয়ার দাবী প্রবাসীদের দীর্ঘদিনের।

ইতোমধ্যেই হাইকমিশন অনলাইনে পাসপোর্ট আবেদনের অগ্রগতি জানা, এনরোলমেন্ট আইডি জানা, পাসপোর্ট ডেলিভারির জন্য প্রস্তুুত কি না এবং কত তারিখে ডেলিভারি নিবে এমন সেবা দেওয়া হচ্ছে। ফলে ঘরে বসেই মুঠোফোনে আবেদনকারী সকল সুবিধা পাচ্ছে। তবে পাসপোর্ট ফিস প্রদানের ঝামেলা রয়ে গেছে! মালয়েশিয়ায় ফিস পরিশোধ বা অর্থ প্রবাহের রয়েছে উন্নত ডিজিটাল বা ইলেকট্রনিক সিস্টেম। মালয়েশিয়ায় অবস্থিত অন্যান্য দূতাবাস সেই সিস্টেম ব্যাবহার করলেও বাংলাদেশ হাইকমিশন এখনও এই ডিজিটাল সুবিধা চালু করেনি। ভারত দূতাবাসের ম্যানুয়াল ফি দেওয়ার সিস্টেম গত বছর পরিবর্তন করে ইলেকট্রনিক ট্রান্সফার সিস্টেম চালু করেছে। এখন বাকি থাকল বাংলাদেশ হাই কমিশন। প্রবাসীদের এ দাবি দ্রুতই পূরণ করা হবে বলে হাইকমিশন সূত্রে নিশ্চিত করা হয়েছে।

দূতাবাস সূত্রে জানা গেছে, ‘গত নভেম্বর থেকে জানুয়ারি এই তিনমাসে আসা এক লাখ ১০ হাজার আবেদনের পুরো প্রক্রিয়াই সম্পন্ন করা হয়েছে।’
পাসপোর্ট আবেদন ডাকযোগে গ্রহণ ও বিতরণ করা হলে অনেক সুবিধা হবে এবং হাইকমিশনের সার্ভিসে নতুন মাত্রা যোগ হবে।

এদিকে, পাসপোর্টের ব্যাপারে দালালের প্ররোচণায় পড়ে প্রতারিত না হয়ে সকল প্রবাসী বাংলাদেশিদের হাইকমিশনের ফেসবুক পেইজের মাধ্যমে সংযুক্ত থেকে যথাসময়ে পাসপোর্ট সম্পর্কিত তথ্যাদি জেনে সেবা নেয়ার অনুরোধ করেছে হাইকমিশন।

Read previous post:
হিলিতে টিকা গ্রহণ ও উদ্বুদ্ধকরণে জনসচেতনামূলক র‌্যালী 

তৃতীয় মাত্রা কৌশিক চৌধুরি, হিলি প্রতিনিধি : “কোভিড-১৯ মোকাবেলায় আমি টিকা নিয়েছি, সুস্থ আছি, কোভিড-১৯ প্রতিরোধে আপনিও টিকা নিন,সুস্থ থাকুন”...

Close

উপরে