Logo
রবিবার, ২৫ জুলাই, ২০২১ | ১০ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

চীনে ভয়াবহ বর্ষণে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২৫

প্রকাশের সময়: ১২:১৩ অপরাহ্ণ - বৃহস্পতিবার | জুলাই ২২, ২০২১

তৃতীয় মাত্রা

চীনের হেনান প্রদেশে হাজার বছরের সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত এবং এর ফলে ‍সৃষ্ট বন্যা, বাড়িঘর ও দেয়াল ধসে  নিহতের সংখ্যা বেড়ে পৌঁছেছে ২৫ জনে; এবং এখন পর্যন্ত সেখানে নিখোঁজ আছেন ৭ জন।

দেশটির কেন্দ্রীয় সরকারের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা বুধবার এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানিয়েছেন।

চীনের রাষ্ট্রীয় বার্তাসংস্থা সিনহুয়া নিউজের বরাত দিয়ে করা এক প্রতিবেদনে বার্তাসংস্থা রয়টার্স ও এএফপি জানিয়েছে, প্রবল বর্ষণে আটকে পড়া লোকজনকে উদ্ধারে প্রদেশটিতে সেনাবাহিনী পাঠিয়েছে চীনের সরকার।

৫ হাজার ৭০০ সেনা সদস্য হেনান প্রদেশে উদ্ধার তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছেন এবং ইতোমধ্যে ঝেংঝৌ থেকে ১ লাখ মানুষকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে রয়টার্স।

স্থানীয় সময় শনিবার সন্ধ্যা থেকে মঙ্গলবার রাত পর্যন্ত হেনানে ৬১৭ দশমিক ১ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। চীনের আবহাওয়া দফতর সর্বশেষ বুলেটিনে জানিয়েছে, দ্রুত এই বৃষ্টিপাত থামা বা কমার কোনো লক্ষণ আপাতত নেই।

বুলেটিনে আরও বলা হয়েছে, আগামী ৩ দিন আরও বেশি বৃষ্টিপাত হতে পারে হেনানে।

বৃষ্টিতে তছনছ হয়ে গেছে ইয়োলো নদীর তীরবর্তী ১ কোটি ২০ লাখের বেশি মানুষের শহর ঝেংঝৌয়ের রেল ও সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা। শহরটির পাতাল রেলের লাইন তলিয়ে গেছে এবং এতে মৃত্যু হয়েছে অন্তত ১২ জনের।

তবে সরকারি বাহিনীর সদস্যরা ডুবে যাওয়া সেই সুড়ঙ্গ স্টেশন থেকে ৫০০ জনের বেশি মানুষকে নিরাপদে উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছেন বলে জানিয়েছে সিনহুয়া নিউজ।

বন্যায় বেঁচে যাওয়া এক যাত্রী সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে লিখেছেন, আমার বুক পর্যন্ত পানি পৌঁছেছিল। তখন সত্যিই ভয় পেয়েছিলাম। তবে গাড়িতে পানি ঢুকে বায়ু সরবরাহ ক্রমান্বয়ে কমিয়ে যাওয়াটাই আমার কাছে সবচেয়ে আতঙ্কের ছিল।

দেশটির প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং বলেছেন, বন্যা প্রতিরোধ ব্যবস্থা অত্যন্ত নাজুক হয়ে পড়েছে এবং বর্তমানে আশঙ্কাজনক অবস্থায় রয়েছে। এই বন্যায় ইতোমধ্যে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক প্রাণহানি ও সম্পত্তির ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। মানুষের জীবন এবং সম্পত্তির সুরক্ষা নিশ্চিত করতে সংশ্লিষ্ট সব বিভাগকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

প্রবল বৃষ্টিপাতের কারণে কর্তৃপক্ষ ঝেংঝৌ শহরে বাস ও অন্যান্য যান চলাচল বন্ধ ঘোষণা করেছে। আবহাওয়াবিদদের বরাত দিয়ে স্থানীয় গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, ঝেংঝৌ শহরে গত তিনদিন ধরে যে পরিমাণ বৃষ্টিপাত হয়েছে তা গত এক হাজার বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ।

সূত্র : রয়টার্স, এএফপি

Read previous post:
করোনায় দৈনিক সংক্রমণে শীর্ষে যুক্তরাষ্ট্র

তৃতীয় মাত্রা বুধবার করোনোয় দৈনিক আক্রান্তের হিসেবে বিশ্বের দেশসমূহের মধ্যে শীর্ষে ছিল যুক্তরাষ্ট্র। অন্যদিকে প্রাণঘাতী এ রোগে এই দিন মৃত্যুর...

Close

উপরে