Logo
সোমবার, ২১ জুন, ২০২১ | ৭ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

পাবনা জেলার উল্লেখযোগ্য ঐতিহাসিক ও বিনোদন কেন্দ্র সমূহ

প্রকাশের সময়: ১২:৪১ অপরাহ্ণ - শুক্রবার | মে ২৮, ২০২১

তৃতীয় মাত্রা

পাবনা প্রতিনিধি : সারাদেশে মতো পাবনা জেলাতেও রয়েছে অসংখ্য দর্শনীয় স্থান। দেশের বিভিন্নস্থান থেকে সৌন্দর্য্য প্রিয় মানুষেরা আসেন এসব স্থান পরিদর্শনে। পাবনা জেলার উল্লেখযোগ্য দর্শনীয় স্থান গুলোর হলো :
(পাবনা মানসিক হাসপাতাল/শ্রী শ্রী ঠাকুর অনুকূল চন্দ্র আশ্রম) : পাবনার দর্শনীয় স্থান হিসেবে খ্যাতি রয়েছে পাবনা সদরের হিমায়েতপুর অবস্থিত মানসিক হাসপাতাল। সড়ক পথে যে কোন স্থান হতে বাস অথবা নিজস্ব পরিবহন যোগে পাবনা বাস টার্মিনাল আসতে হবে। বাস টার্মিনাল থেকে পাবনা মানিসিক হাসপাতালের দূরত্ব বড়জোড় ৭ কিলোমিটার। বাস টার্মিনাল থেকে রিক্সা/অটোরিক্সা/সিএনজি যোগে আনুমানিক ২০-২৫ মিনিটেই পৌঁছে যাওয়া সম্ভব। এছাড়াও পাবনা মানসিক হাসপাতালের দক্ষিণ পার্শ্বে অদূরে শ্রী শ্রী ঠাকুর অনুকূল চন্দ্র আশ্রম, মন্দির ও সৎসংঘ অবস্থিত। ঠাকুর অনুকূল চন্দ্রের বাৎসরিক অনুষ্ঠানে দেশ-বিদেশ থেকে হাজার হাজার ভক্তের সমাগম ঘটে।
(পদ্মা ঘাট) : পাবনা শহর থেকে মাত্র ৬ কিলোমিটার দূরত্বে পদ্মা ঘাট। পাবনার অংশ এই ঘাটকে শিলাইদহ ঘাটও বলা হয়ে থাকে। পাবনা শহর থেকে সিএনজি/নিজ পরিবহন যোগে পদ্মা ঘাটে মাত্র ২০ মিনিটেই পৌঁছে যাওয়া সম্ভব। প্রতিদিন বিকেলে পদ্মার ঘাটে প্রচুর মানুষের অঘোষিত মেলায় পরিণত হয়ে থাকে।
(পাবনা রেলওয়ে স্টেশন) : বিশাল এলাকাজুড়ে পাবনা রেলওয়ে স্টেশন। যেদিকে চোখ যায়, সব নতুন নতুন স্থাপনা। পাবনা শহর থেকে রিকশা বা নিজস্ব পরিবহন যোগে খুব সহজেই সেখানে পৌঁছানো সম্ভব।
(জোড় বাংলা মন্দির) : পাবনা শহর থেকে রিক্সা/অটোরিক্সা/সিএনজি/নিজস্ব পরিবহন যোগে মাত্র ১৫-২০ মিনিটেই জোড় বাংলা মন্দিরে পৌঁছে যাওয়া সম্ভব।
(ভাড়ারা শাহী মসিজদ) : পাবনা শহর থেকে মাত্র ২০ মিনিট দূরত্বে সিএনজি/নিজস্ব পরিবহন যোগে ভাড়ারা শাহী মসজিদে পৌঁছে যাওয়া সম্ভব।
(নায়িকা সুচিত্রা সেনের স্মৃতি সংগ্রহশালা) : পাবনা শহর থেকে রিক্সা/অটোরিক্সা/সিএনজি/নিজস্ব পরিবহন যোগে ১০-১৫ মিনিটে কিংবদন্তী চিত্র নায়িকা সুচিত্রা সেন স্মৃতি সংগ্রহশালায় পৌঁছে যাওয়া সম্ভব।
(তাড়াশ জমিদার ভবন) : পাবনা শহেরর প্রাণকেন্দ্রে আব্দুল হামিদ রোড সংলগ্ন গোপালপুর মৌজায় কারুকার্য খচিত ঐহিতাসিক দ্বিতল ভবনটিই তাড়াশ জমিদার ভবন নামে পরিচিত।
(এডরুক লিমিটেড) : পাবনা শহর থেকে রিক্সা/অটোরিক্সা/সিএনজি/নিজস্ব পরিবহন যোগে মাত্র ১০-১৫ মিনিটে পাবনা এডরুক লিমিটেড পৌঁছে যাওয়া যায়।
পাকশি হার্ডিঞ্জ ব্রিজ/লালন শাহ্ সেতু/রূপপুর পারমানবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র/
(ঈশ্বরদী রেল জংশন) : পাবনা জেলার দর্শনীয় স্থান হিসেবে খ্যাতি রয়েছে ঐতিহাসিক হার্ডিঞ্জ ব্রিজ, লালন শাহ্ সেতু, রূপপুর পারমানবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র ও ঈশ্বরদী রেল জংশনের, যার প্রত্যেকটি পাবনা জেলার ঈশ্বরদী উপজেলায় অবস্থিত। পাবনা জেলা সদর থেকে ঈশ্বরদী উপজেলার দূরত্ব আনুমানিক ২৫ কিলোমিটার। যাতায়াত ব্যবস্থা ভাল। ঈশ্বরদী উপজেলার ১টি ইউনিয়ন ও গ্রামের নাম পাকশী। এই পাকশীতেই একাধারে রয়েছে পাবনা জেলার তিনটি গুরুত্বপূর্ণ দর্শনীয় স্থান যেমন- হার্ডিঞ্জ ব্রিজ, লালন শাহ্ সেতু এবং রূপপুর পারমানবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র। পদ্মা নদীর উপর বিখ্যাত হার্ডিঞ্জ ব্রিজের (রেল ব্রিজ), এই ব্রিজটির অদূরে দক্ষিণ পাশে লালন শাহ্ সেতু (সড়কপথ) অবস্থিত। এছাড়াও ব্রিজ দু’টির অদূরে পূর্বপাশে বহুল আলোচিত রূপপুর পারমানবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের বিশাল কর্মযজ্ঞ। অপরদিকে বাংলাদেশের যে কোন জায়গা থেকে রেলপথে ঈশ্বরদী রেল জংশনে আসা সম্ভব। সড়ক পথে পাবনা শহর থেকে মাত্র ১ ঘন্টায় মধ্যে উল্লেখিত চারটি দর্শনীয় স্থাপনা পরিদর্শন করা সম্ভব।
(ঐতিহাসিক চলনবিল/শাহী মসজিদ/প্রমথ চৌধুরীর পৈত্রিক নিবাস) : পাবনা জেলা শহর থেকে অটোরিকশা/সিএনজি/নিজ পরিবহন যোগে প্রায় ৪৫ মিনিটে চাটমোহর উপজেলা সদরে পৌঁছে যাওয়া সম্ভব। চাটমোহর উপজেলা সদর থেকে মাত্র ৫ কিলোমিটার দূরত্বে চলনবিলের ধারে পৌঁছে গিয়ে নৌকা ভাড়া নিয়ে চলনবিলের অপরূপ সৌন্দর্য্য উপভোগ করা সম্ভব। এছাড়াও চাটমোহর শহরের প্রাণকেন্দ্রে উপজেলা পরিষদ চত্তরের পাশেই অবস্থিত ঐহিত্যবাহী চাটমোহর শাহী সমজিদ। প্রায় চার শতাধিক বছর পূর্বে মাসুম খান কাবলী নির্মিত শাহী সমজিদ প্রাচীন একটি ঐতিহাসিক স্থাপনা। অপরদিকে চাটমোহর উপজেলা থেকে মাত্র ৫-৬ কিলোমিটার দূর হরিপুর ইউনিয়নে রয়েছে বাংলা সাহিত্যের অমর সাহিত্যিক প্রমথ চৌধুরীর পৈত্রিক নিবাস। অটোরিক্সা/সিএনজি অথবা নিজস্ব পরিবহনে একই দিনে তিনটি দর্শনীয় স্থান পরিদর্শন করা সম্ভব।
(গজনার বিল) : গাজনার বিলের মাঝের সড়কে নির্মাণ করা হয়েছে দৃষ্টিনন্দন খয়রান ব্রিজ। পাবনা জেলার সুজানগর উপজেলা থেকে সড়কপথে সিএনজি যোগে প্রায় ৭ কিলোমিটার খয়রান ব্রিজের পূর্ব দিকে বিল গাজনায় পৌঁছে যাওয়া যায়।
(ক্ষেতুপাড়া জমিদার বাড়ি) : সাঁথিয়া উপজেলা সদর থেকে ৭ কিলোমিটার দূরে ক্ষেতুপাড়া ইউনিয়নটির অবস্থান। সাঁথিয়া থেকে সিএনজিতে মাত্র ১৫ টাকা ভাড়ায় সাঁথিয়া-চিনাখড়া। চিনাখড়া থেকে মাত্র ৩ কিলোমিটার দূরে এবং ক্ষেতুপাড়া ইউনিয়ন পরিষদ থেকে ৫ কিলোমিটার দূরে ক্ষেতুপাড়া জামিদার বাড়ি অবস্থিত।
(পাবনার ঐতিহ্যবাহী তাঁতশিল্প) : পাবনার অন্যতম তাঁতপ্রধান এলাকা দোগাছী, সুজানগর, বেড়া, সাঁথিয়া, আটঘরিয়া। সড়ক পথে পাবনা জেলা শহর থেকে সিএনজি/বাসযোগে অথবা নিজস্ব পরিবহনে সহজে যাওয়া যায় সমগ্র তাঁতশিল্প এলাকা পরিদর্শন করা সম্ভব।
(সুজানগর আজিম চৌধুরী জমিদার বাড়ি) : পাবনা শহর থেকে ১৯ কিলোমিটার দূরে সিএনজি/নিজ পরিবহন যোগে সুজানগর যাওয়া যায়। সুজানগর উপজেলা থেকে সিএনজি যোগে পোড়াডাঙ্গা বাজার হয়ে চিনাখড়া বাসস্ট্যান্ড হয়ে পূর্ব দিকে পাবনা-নগরবাড়ি মহাসড়কের পার্শ্বে দুলাই বাজারের ৫০০ মিটার দক্ষিণ দিকে রিক্সা/ভ্যান যোগে জমিদার বাড়ি যাওয়া যায়।
(তাঁতীবন্দ জমিদার বাড়ি) : পাবনা শহর থেকে ১৯ কিলোমিটার দূরে সিএনজি/নিজ পরিবহন যোগে সুজানগর যাওয়া যায়। সুজানগর উপজেলা থেকে সিএনজি/ভ্যান যোগে উত্তর দিকে প্রায় ৫ কিলোমিটার দূরে তাঁতীবন্দ উচ্চ বিদ্যালয় সংলগ্ন জমিদার বাড়িতে যাওয়া যায়।
(আটঘরিয়া বংশীপাড়া গ্রামের চন্দ্রাবতীর ঘাট) : পাবনা শহর থেকে ১২ কিলোমিটার দূরে সিএনজি/নিজস্ব পরিবহন যোগে আটঘরিয়া যাওয়া যায়। সেখান থেকে ১১ কিলোমিটার দূরত্বে মাঝপাড়া ইউনিয়নের ক্ষিদিরপুর গ্রামে চন্দ্রাবতীর ঘাটে যাওয়া যায়।
এছাড়াও পাবনা জেলায় দর্শনীয় স্থানের মধ্যে রয়েছে কবি বন্দে আলী মিয়ার বাড়ি (আটঘরিয়া), এডওয়ার্ড কলেজ (সদর), পাকশী রিসোর্ট (ঈশ্বরদী), ইপিজিড (ঈশ্বরদী), বিমানবন্দর (ঈশ্বরদী), পাবনা সুগার মিল (ঈশ্বরদী), ঈক্ষু গবেষণা কেন্দ্র (ঈশ্বরদী), ডাল ও তৈলবীজ গবেষণা কেন্দ্র (ঈশ্বরদী), শেখ রাসেল শিশু পার্ক (সদর), কাঞ্চন পার্ক (সুজানগর), দুবলিয়া (সাঁথিয়া), সমাজ শাহী মসজিদ (চাটমোহর), পাকপাড়া বুড়া পীরের মাজার (চাটমোহর), হান্ডিয়াল জগন্নাথ মন্দির (চাটমোহর), বড়াল ব্রিজ (ভাঙ্গুড়া), হাটগ্রাম সোনালী সৈকত (ফরিদপুর), ছয় খাম্বা রূপালী সৈকত (ভাঙ্গুড়া) পাবনার বিনোদন স্পট হিসেবে উল্লেখ্য যোগ্য।

 

Read previous post:
নাটোরে জুয়া খেলার অপরাধে ৫ জনকে আটক

তৃতীয় মাত্রা নাটোর থেকে : গত ২৮ মে ২০২১ ইং তারিখে নাটোর জেলার বাগাতিপাড়া থানাধীন হাটদোল খামারপাড়া গ্রামস্থ জনৈক মোঃ মধু...

Close

উপরে