Logo
মঙ্গলবার, ১১ মে, ২০২১ | ২৮শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার পদে পদোন্নতি পেলেন এএসপি গৌতম দেব

প্রকাশের সময়: ১০:৫৪ পূর্বাহ্ণ - বুধবার | মে ৫, ২০২১

তৃতীয় মাত্রা

রূপক দত্ত চৌধুরী, শ্রীমঙ্গল থেকে : মৌলভীবাজারের জেলার শ্রীমংগল উপজেলাধীন কালাপুর ইউনিয়নের কৃতি সন্তান সিলেট রেঞ্জ ডিআইজি কার্যালয়ে কর্মরত সহকারী পুলিশ সুপার গৌতম দেব অতিরিক্ত পুলিশ সুপার পদে পদোন্নতি পেয়েছেন।

গত ২রা মে (রবিবার) স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক প্রজ্ঞাপনে এ তথ্য জানানো হয়।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব ধনঞ্জয় স্বাক্ষরিত প্রজ্ঞাপনে সারাদেশের মোট ১০৫ জন পুলিশ কর্মকর্তাকে পদোন্নতি দেওয়া হয়েছে।

মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গল উপজেলার কালাপুর ইউনিয়নের ব্যবসায়ী নিখিল চন্দ্র দেব ও মাতা দীপালী রাণী দেবের ছোট ছেলে গৌতম দেব কালাপুর সরকারি প্রথমিক বিদ্যালয়ে লেখাপড়া শুরু করেন। তিনি ২০০২ সালে ভৈরবগঞ্জ দ্বি-পাক্ষিক উচ্চ বিদ্যালয় হতে এসএসসি পাশ করেন । ২০০৪ সালে শ্রীমঙ্গল সরকারি কলেজ থেকে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষায় পাশ করেন। তারপর তিনি শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ২০০৮ সালে পদার্থ বিদ্যা বিভাগে বিএসসি(অনার্স) এবং ২০০৯ সালে মাস্টার্স ডিগ্রী অর্জন করেন।
পরবর্তীতে গৌতম দেব ২০১৫ সালে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় হতে মাস্টার্স ইন পুলিশ সায়েন্স ডিগ্রী অর্জন করেন ।
তিনি ২০১৪ সালে ৩৩ ম বিসিএস এর মাধ্যমে এএসপি হিসেবে বাংলাদেশ পুলিশে যোগদান করেন।

এএসপি গৌতম দেব ২০১৪ হতে ২০১৫ সাল পর্যন্ত বৃটিশ পিরিয়ড হতে চলমান ঐতিহাসিক প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমী, সারদা, রাজশাহীতে এক বছর মৌলিক প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেন এবং তারপর তিনি কিশোরগঞ্জ জেলায় ছয় মাসের বাস্তব প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেন।
তিনি র‍্যাব-১৪, ময়মনসিংহে ২০১৬ হতে ১৮ সালের জুন মাস পর্যন্ত কর্মরত ছিলেন । তারপর ২০১৮ সালের ২২ জুলাই সিলেট রেঞ্জ ডিআইজি অফিসে সহকারী পুলিশ সুপার হিসেবে যোগদান করেন। যোগদানের পর হতে স্টাফ অফিসার টু ডিআইজি হিসেবে মূল দায়িত্ব পালন করেছেন। তার পাশাপাশি অতিরিক্ত দায়িত্ব হিসেবে বিভিন্ন সময় এএসপি(ক্রাইম), এএসপি(অপারেশন্স) হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসেছেন।

সদ্য পদোন্নতিপ্রাপ্ত গৌতম দেব বলেন, আমি আমার ক্যারিয়ারে এ পর্যন্ত আসার অবদান হিসেবে আমার পরিবার, আমার গ্রাম, বন্ধু-বান্ধব, আত্মীয়-স্বজন বিশেষ করে আমার পরম শ্রদ্ধেয় শিক্ষাগুরুদের কাছে চিরঋণী।
আমি আমার পরিবার এবং শিক্ষকদের কাছ থেকে ন্যায়পরায়ণতা, সততা ও কর্তব্যনিষ্ঠার যে শিক্ষা পেয়েছি তাই আমি আমার পেশাগত কাজে লাগিয়েছি বলেই সৃষ্টিকর্তার কৃপায় আজ পদোন্নতি পেয়েছি বলে মনে হয়।

আমার এই পদোন্নতি আমার ভবিষ্যৎ কর্মকান্ডে আমাকে অনুপ্রাণিত করবে।
সকলের আশীর্বাদ নিয়ে আমি আইনের পথে থেকে একজন সরকারি কর্মচারী হিসেবে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মানে জনগণের সেবক হিসেবে কাজ করে যেতে চাই।

Read previous post:
হরিরামপুরে ৩৩৩ কল করে খাদ্য সহায়তা পেল ৪ দুঃস্থ পরিবার

তৃতীয় মাত্রা জ. ই. আকাশ, হরিরামপুর থেকে : মহামারি কোভিড-১৯ মোকাবেলায় কর্মহীন অসহায় ও দুঃস্থ পরিবারের জন্য জরুরি সেবা ৩৩৩...

Close

উপরে