Logo
বুধবার, ১২ মে, ২০২১ | ২৯শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

সুস্থ থাকতে মহৌষধ কালোজিরার ১২ গুণ

প্রকাশের সময়: ১:৩৭ অপরাহ্ণ - রবিবার | এপ্রিল ২৫, ২০২১

তৃতীয় মাত্রা

খুব পরিচিত একটি নাম হলো কালোজিরা। সব রোগের মহৌষধ বলা হয় কালোজিরাকে। আমাদের মহানবী হজরত মোহাম্মদ (সা.) বলেছেন, মৃত্যু ব্যতীত সকল রোগেরই মহৌষধ কালোজিরা। খুব ছোট ছোট কালো দানাগুলোর মধ্যে সৃষ্টিকর্তা যে কী নিয়ামত রখেছেন তা সত্যি আশ্চর্যের। মানবদেহের নানা রোগের প্রতিষেধক এবং প্রতিরোধক হিসেবে কাজ করছে সেই প্রাচীনকাল থেকেই। ঠিক এই কারণে সব রোগের মহৌষধ বলা হয় কালোজিরাকে।

কালোজিরের মধ্যে আছে নাইজেলোন, থাইমোকিনোন, লিনোলিক অ্যাসিড, ওলিক অ্যাসিড, ক্যালসিয়াম, আয়রন, জিংক, ম্যাগনেশিয়াম,ফসফেট, সেলেনিয়াম, ভিটামিন-এ, ভিটামিন-বি, ভিটামিন-বি ২, নায়াসিন, ভিটামিন-সি, ফসফরাস, কার্বোহাইড্রেট। তাই সুস্থ থাকতে আমাদের প্রতিদিন কালোজিরা খাওয়া উচিৎ।

শুধু কী তাই, যে কোন ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া নিধন থেকে শুরু করে শরীরের কোষ ও কলার বৃদ্ধিতে সহায়তা করে কালোজিরা। শুধুমাত্র স্বাস্থ্যের জন্যই না কালোজিরা চুল ও ত্বকের জন্যও অনেক উপকারি। প্রত্যেকের রান্নাঘরেই কালোজিরা থাকে যা খাবারকে সুবাসিত করে। চলুন জেনে নেই মহৌষধ কালোজিরার কিছু গুণ।

স্মৃতিশক্তি বৃদ্ধি করে

প্রতিদিন রান্নায় একটু করে কালোজিরা দেন তাহলে স্মৃতিশক্তি বাড়বে। কারণ দেহে রক্ত সঞ্চালন বাড়ায় এটি। আবার মস্তিষ্কে রক্ত সঞ্চালনও বাড়ায়। যার ফলে স্মৃতিশক্তি বাড়ে। লোজিরা নিজেই একটি অ্যান্টিবায়োটিক বা অ্যান্টিসেপটিক। কালোজিরা মেধার বিকাশের জন্য কাজ করে দ্বিগুণ হারে।

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ করে

ডায়াবেটিসের সমস্যাকে নিয়ন্ত্রণ করতে সাহায্য করে কালোজিরা। অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে রাখে রক্তে গ্লুকোজ লেবেলকে। তার ফলে ডায়াবেটিস অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে থাকে। এক চিমটি পরিমাণ কালিজিরা এক গ্লাস পানির সঙ্গে প্রতিদিন সকালে খালি পেটে খেয়ে দেখুন, রক্তে গ্লুকোজের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে থাকবে।

সাইনাসের সমস্যা নিয়ন্ত্রণ করে

কালোজিরা সাইনাসের সমস্যাকেও নিয়ন্ত্রণ করতে সাহায্য করে । এক্ষেত্রে খুবই কার্যকরী কালোজিরার দানা। একচামচ মধু ও দেড়চামচ কালোজিরা যথেষ্ট সাইনাসের সমস্যা কমাতে এবং যদি নাক বন্ধ হয়ে যায় সেক্ষেত্রে কালোজিরার তেল নাকে দিলে এই সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়

দেহে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা গড়ে তোলে কালোজিরা। এটি রক্তকে পরিষ্কার রাখে। এছাড়াও রক্ত সঞ্চালন বাড়ায়। তার ফলে সতেজ থাকে দেহ। বাইরের ক্ষতিকর ভাইরাস, ব্যাকটেরিয়ার হাত থেকে দেহকে রক্ষা করে এবং স্বাস্থ্যের উন্নতি ঘটায়।

হাঁপানির থেকে আরাম পেতে

অনেকেই এখন হাঁপানির সমস্যায় ভোগেন। এক্ষেত্রে বেশ সাহায্য করে কালোজিরা। যদি প্রতিদিন কালোজিরা খাওয়া যায়, তাহলে হাঁপানি বা শ্বাসকষ্ট জনিত সমস্যা থেকে অনেকটাই মুক্তি পাওয়া যায়।

হজমের সমস্যায় দূর করে

যারা হজমের সমস্যায় ভুগেন তারা এক-দুই চা-চামচ কালিজিরা বেটে পানির সঙ্গে খেতে থাকুন। এভাবে প্রতিদিন দু-তিনবার খেলে এক মাসের মধ্যে হজমশক্তি বেড়ে যাবে। পাশাপাশি পেট ফাঁপাভাবও দূর হবে।

মাথা ব্যথা দূর করে

মাথা ব্যথায় কপালে উভয় চিবুকে ও কানের পার্শ্ববর্তি স্থানে দৈনিক ৩/৪ বার কালোজিরা তেল মালিশ করলে উপকার পাওয়া যায়।

রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করে

যারা উচ্চ রক্তচাপে ভুগছেন তারা এক কাপ উষ্ণ পানিতে আধা চা চামচ কালোজিরার তেল মিশিয়ে খান। এতে নিয়ন্ত্রণে থাকবে হাইপারটেনশ।

বাতের ব্যাথা দূর করে

বাতের ব্যাথায় দূর করতে, ব্যথার জায়গা ভাল করে ধুয়ে পরিষ্কার করে কালোজিরার তেল মালিশ করুন। এক চা-চামচ কাঁচা হলুদের রসের সাথে সমপরিমাণ কালোজিরার তেল সমপরিমান মধু বা এক কাপ রং চায়ের সাথে প্রতিদিন ৩বার করে খান। ২-৩ সপ্তাহ টানা খেলে উপকার মিলবে।

অতিরিক্ত ক্যালোরি নিয়ন্ত্রণ করে

খুব সহজেই শরীরের অতিরিক্ত ক্যালোরি নিয়ন্ত্রণে আনতে পারে কালোজিরা। কালোজিরাকে ওজন কমাবার একটা অন্যতম উপায় ভাবা হয়। কালোজিরা খুব সহজেই অতিরিক্ত মেদ নিয়ন্ত্রণে আনতে সাহায্য করে জিমে না গিয়েও। যদি কালোজিরা বেটে গরমজলে মধুর সঙ্গে মিশিয়ে দিনে দুবার খাওয়া হয়, তাহলে ওবেসিটির মত সমস্যা কমে যাবে।

জন্ডিস বা লিভারের বিভিন্ন সমস্যার দূর করে

একগ্লাস ত্রিপলার শরবতের সাথে এক চা-চামচ কালোজিরার তেল দিনে ৩বার করে ৪/৫ সপ্তাহ খেতে হবে।

শিশুর সার্বিক বিকাশে

এছাড়াও কালোজিরা সাহায্য করে শিশুর সার্বিক বিকাশের ক্ষেত্রে । শিশুর সঠিক শারীরিক ও মানসিক বিকাশ ঘটাতে কালোজিরা অনেক উপকারি। মস্তিষ্কের সুস্থতা বজায় রাখতে, এবং শিশুদের স্মৃতিশক্তি বাড়াতেও কালোজিরা সাহায্য করে।

Read previous post:
ইতালিতে সোমবার থেকে ১৫ অঞ্চলকে হলুদ জোন ঘোষণা, খুলছে সব প্রতিষ্ঠান

তৃতীয় মাত্রা ইতালিতে আগামীকাল সোমবার থেকে ১৫ অঞ্চলকে হলুদ জোন ঘোষণা করা হয়েছে। ফলে দেশটিতে চলাফেরা শিথিল হয়ে গেল। বার,...

Close

উপরে