Logo
শনিবার, ২৮ নভেম্বর, ২০২০ | ১৩ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

নতুন ঘর পেয়ে বগুড়ায় দরিদ্রদের মাঝে হাসি

প্রকাশের সময়: ৩:৩৭ অপরাহ্ণ - শনিবার | আগস্ট ২২, ২০২০

তৃতীয় মাত্রা

বগুড়া সদর উপজেলায় দুর্যোগ সহনীয় বাসগৃহে মাথা গোঁজার ঠাঁই পেয়ে হাসি ফুটে উঠেছে অস্বচ্ছল পরিবারের সদস্যদের মুখে। বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার দেওয়া বাড়ি পেয়ে তারা এখন বেজায় খুশি। ২০১৯-২০ অর্থবছরে প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ বরাদ্দ গ্রামীণ অবকাঠামো রক্ষনাবেক্ষণ (টিআর) কর্মসূচির আওতায় দুর্যোগ সহনীয় আধুনিক বাসগৃহ নির্মাণ করা হয়।

এ প্রকল্পের আওতায় বগুড়া সদর উপজেলায় ১৯টি পরিবারকে গৃহ বরাদ্দ দেওয়া হয়। প্রতিটি বাসগৃহের প্রাক্কলিত মূল্য ২ লাখ ৯৯ হাজার টাকা। কৃষক, শ্রমিক, দিনমজুর, গৃহপরিচায়িকা, গৃহকর্মী, রিক্সা-ভ্যানচালক, কৃষক ও বাউলসহ বিভিন্ন অস্বচ্ছল পেয়েছে দুর্যোগ সহনীয় বাসগৃহ।
বগুড়া সদর উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, সদর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে ১৯টি বাসগৃহ নির্মাণ হয়েছে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আজিজুর রহমান ও উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার সার্বিক তত্বাবধানে প্রকল্প কমিটির মাধ্যমে এই বাসগৃহ নির্মাণ শেষে সুবিধাভোগীরা ঘরে উঠেছে। প্রতিটি গৃহে দু’টি কক্ষ, দু’টি বারান্দা, একটি রান্নাঘর, একটি করিডরসহ রয়েছে পায়খানার ব্যবস্থা। এছাড়াও পর্যায়ক্রমে থাকছে টিউবয়েল ও সৌর বিদ্যুতের সুবিধাও।
বগুড়া সদর উপজেলার নুনগোলার দারিয়াল গ্রামের বাসিন্দা নাছিমা খাতুন জানান, ২০ বছর পূর্বে তার স্বামী মারা যাওয়ার পর থেকে অন্যের বাড়িতে কাজ করে, সরকারিভাবে প্রাপ্ত সেলাই মেশিনে কাজ করে ২ শতক জায়গা কিনেছেন নাছিমা। তার সেই জায়গার উপর নির্মাণ হয়েছে সরকারের দেয়া বাসগৃহ। তিনি এখন নতুন বাসভবনে বসবাস করছেন। তিনি মাথা গোঁজার ঠাঁই পেয়ে প্রধানমন্ত্রীর জন্য প্রাণভরে দোয়া করেন। নামুজার মরিয়ম আক্তার, লাহিড়ীপাড়ার আজিজার রহমান জানান, আগে তাদের থাকার জায়গা ছিল না এখন সরকারিভাবে প্রাপ্ত বাসভবনে বসবাস করছেন।

নুনগোলা ইউপি চেয়ারম্যান আলীম উদ্দিন জানান, অসহায় মানুষরা ঘর পেয়ে আনন্দিত। সবাই এখন সরকারি বাসগৃহে অবস্থান করছে। ইউএনওসহ কর্মকর্তাগণ ঘর নির্মান কাজে দেখভাল করেছেন। সঠিকভাবেই নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হয়েছে।

এদিকে এসব বাসগৃহ নির্দিষ্ট মেয়াদের আগেই নির্মাণ কাজ শেষ হওয়ায় সুবিধাভোগীরা ঘরে উঠেছেন। জুলাই মাসে সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আবু সুফিয়ান সফিক, জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা আজাহার আলী, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আজিজুর রহমান, সংশ্লিষ্ট ইউপি চেয়ারম্যানবৃন্দ নির্মিত বাসগৃহ পরিদর্শন করে সুবিধাভোগীদের সাথে কথা বলেন। তারা পরিদর্শন করে নির্মাণ কাজ দেখে সন্তোষ প্রকাশ করেন।

বগুড়া সদর উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা আজিজুর রহমান জানান, ২০১৯-২০ অর্থবছরে বিভিন্ন প্রকল্প কমিটির মাধ্যমে সদর উপজেলায় ১৯টি বাসগৃহ নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হয়েছে। উপকারভোগীরা এসব বাসগৃহে বসবাস করছেন।

 

Read previous post:
ফুলবাড়ীতে বিদ্যুৎ স্পৃষ্টে যুবকের মৃত্যু

তৃতীয় মাত্রা মাহফুজার রহমান মাহফুজ, ফুলবাড়ী (কুড়িগ্রাম) : কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে বিদ্যুৎ স্পৃষ্টে সফিকুল ইসলাম (৩৩) নামের এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। নিহত...

Close

উপরে