• Friday, 27 January 2023
চারাগাও শুল্ক ষ্টেশন দিয়ে কয়লা আমদানি শুরু

চারাগাও শুল্ক ষ্টেশন দিয়ে কয়লা আমদানি শুরু

জাহাঙ্গীর আলম ভুঁইয়া,সুনামগঞ্জ:
২০দিন পর দ্বিতীয় দফায় আবারও সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলা সীমান্তের শুল্ক ষ্টেশন দিয়ে কয়লা আমদানি শুরু হয়েছে।সোমবার(০৯জানুয়ারী)দুপুরে উপজেলার চারাগাও শুল্ক ষ্টেশন দিয়ে কয়লা আমদানি শুরু হয়।এসময় কাস্টমস কর্মকর্তাসহ ব্যবসায়ীগন উপস্থিত ছিলেন। এসময় উৎসব মুখর পরিবেশের সৃষ্টি হয়।এর পূর্ব দীর্ঘ দশ মাস বন্ধ থাকার পর গত সোমবার (১৯ ডিসেম্বর) দুপুরে প্রথম দফায় চারাগাও শুল্ক ষ্টেশন দিয়ে আমদানি শুরু করে একদিন কয়লা আমদানি করে বন্ধ হয়ে যায়।

সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলা সীমান্তে বন্ধ থাকা তিনটি(বড়ছড়া,বাগলী ও চারাগাঁও)শুল্ক স্টেশন বন্ধ থাকায় সরকার কোটি কোটি টাকা রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হয় সেই সাথে চরম দুর্ভোগের শিকার হয় ২০ হাজার শ্রমিক ও ৫ শতাধিক ব্যবসায়ীগন।

তাহিরপুর কয়লা আমদানিকারক গ্রুপ সূত্রে জানা যায়,বড়ছড়া,বাগলী ও চারাগাঁও শুল্ক স্টেশন দিয়ে নব্বইয়ের দশকের শুরু থেকে ভারত থেকে কয়লা আমদানি শুরু হয়।২০১৪ সালে ভারতের মেঘালয়ের একটি পরিবেশবাদী সংগঠনের মামলার পরিপ্রেক্ষিতে পরিবেশগত ক্ষতির কথা বিবেচনা করে কয়লা রপ্তানিতে নিষেধাজ্ঞা জারি করে দেশটির ন্যাশনাল গ্রিন ট্রাইব্যুনাল। পরে টানা প্রায় সাত মাস বন্ধ থাকে কয়লা আমদানি।

এরপর পুনরায় আমদানি শুরু হলেও তা আর নিয়মিত হয়নি। চলতি বছরের মার্চ থেকে কয়লা আমদানি বন্ধ রয়েছে। গত প্রায় ১০মাস ধরে আমদানি বন্ধ থাকায় তারা অনেক ক্ষতির মুখে পড়েছেন শ্রমিক ও ব্যবসায়ীরা। সরকার ও কোটি কোটি টাকার রাজস্ব বঞ্চিত হয়েছে।

কয়লা আমদানি শুরুর সত্যতা নিশ্চিত করে তাহিরপুর কয়লা আমদানিকারক গ্রুপ আন্তজাতিক বিষয়ক সম্পাদক আবুল খায়ের জানান,কয়লা আমদানি বন্ধ থাকলে প্রায় ২০হাজারের অধিক শ্রমিক বেকার হয়ে মানবেতর জীবনযাপন করে। অনেকে এলাকা ছেড়ে কাজের সন্ধানে অন্যত্র চলে গেছেন। সারা বছর চালু থাকে তার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হলে ব্যবসায়ীরা ভাল থাকে শ্রমিকরাও জীবন জীবিকার অবলম্বন করতে পারে তার জন্য শুল্ক ষ্টেশন গুলো চালু রাখার দাবী জানাই।

তাহিরপুর কয়লা আমদানি কারক গ্রুপের সভাপতি আলখাছ উদ্দিন খন্দকার বলেন, সরকারের কোটি কোটি টাকা রাজস্ব আদায়ের স্বার্থে এবং শুল্ক ষ্টেশনের সাথে জড়িত শ্রমিক ও ব্যবসায়ীদের জীবন জীবিকার কথা বিবেচনা করে বড়ছড়া,বাগলী ও চারাগাঁও শুল্ক স্টেশন সারা বছর চালু রাখা খুবেই প্রয়োজন। এবিষয়ে সরকার যেন গুরুত্ব সহকারে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করার দাবী জানাই।রাজস্ব কর্মকর্তা বড়ছড়া আবুল হাসেম ভূঁইয়া জানান,এলসির মাধ্যমে কয়লা আমদানি শুরু হয়েছে।

comment / reply_from