• Friday, 27 January 2023
খন্ড খন্ড মিছিল নিয়ে  সম্মেলনস্থলে আসছেন কাউন্সিলর

খন্ড খন্ড মিছিল নিয়ে সম্মেলনস্থলে আসছেন কাউন্সিলর

সম্মেলন উপলক্ষে ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আসছেন কাউন্সিলর ও ডেলিগেটরা।আজ শনিবার (২৪ ডিসেম্বর) সকাল থেকেই সম্মেলনস্থলে আসতে শুরু করেন নেতা-কর্মীরা। ৭টার দিকে গেট খুলে দেওয়া হয়। ৮টার পর থেকে সম্মেলনে প্রবেশের প্রতিটি গেটে দীর্ঘ সারি তৈরি হয়েছে।সকাল সাড়ে ১০টায় ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে শান্তির প্রতীক পায়রা উড়িয়ে সম্মেলনের উদ্বোধন করবেন আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। জাতীয় পতাকা ও দলীয় পতাকা উত্তোলনের পর কেন্দ্রীয় নেতারা মঞ্চে আসার পর আধঘণ্টা সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন করা হবে। এতে তুলে ধরা হবে আওয়ামী লীগের ইতিহাস-ঐতিহ্য এবং সরকারের উন্নয়ন ও সাফল্য।

বিভিন্ন ধর্মগ্রন্থ থেকে পাঠ শেষে শোক প্রস্তাব উত্থাপন করবেন দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া। সাধারণ সম্পাদকের প্রতিবেদন উপস্থাপন করবেন ওবায়দুল কাদের। স্বাগত বক্তব্য দেবেন অভ্যর্থনা উপকমিটির আহ্বায়ক শেখ ফজলুল করিম সেলিম। শেখ হাসিনার বক্তব্যের মধ্য দিয়ে সম্মেলনের প্রথম অধিবেশন শেষ হবে।সম্মেলনকে কেন্দ্র করে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানকে বর্ণিল সাজে সাজানো হয়েছে। পদ্মা সেতুর ওপরে নৌকার আদলে তৈরি করা হয়েছে ৮২ ফুট দৈর্ঘ্য ও ৪৪ ফুট প্রশস্তের মঞ্চ। মূল মঞ্চের উচ্চতা সাত ফুট। সাংস্কৃতিক পর্বের জন্য তৈরি হয়েছে আলাদা মঞ্চ।

সম্মেলনে সারাদেশ থেকে ৭ হাজার কাউন্সিলর এবং লক্ষাধিক ডেলিকেটসহ আমন্ত্রিত অতিথিরা অংশ নেবেন। প্রথম অধিবেশন শেষে নামাজ ও দুপুরের খাবারের বিরতির পর বিকাল ৩টায় কাউন্সিলরদের নিয়ে দ্বিতীয় অধিবেশন অনুষ্ঠিত হবে ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন চত্বরে। এই অধিবেশনে দলের আগামী তিন বছরের জন্য সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক নির্বাচন করা হবে।

নেতৃত্ব নির্বাচনের জন্য তিন সদস্যের নির্বাচন কমিশন গঠন করা হয়েছে। নির্বাচন কমিশন প্রথমে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে প্রার্থী আহ্বান করবে। কোনো পদে একাধিক প্রার্থী থাকলে ভোট হবে। ভোটের জন্য স্বচ্ছ ব্যালট বাক্স এবং ব্যালট পেপারও সংগ্রহ করা হয়েছে। তবে একাধিক প্রার্থী না থাকলে প্রস্তাব ও সমর্থনের মাধ্যমে শীর্ষ দুই নেতৃত্ব নির্বাচন করা হবে। এরপর কাউন্সিলরদের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী পরে দলের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করবে নবনির্বাচিত সভাপতি।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সভাপতি নির্বাচিত হচ্ছেন—সেটা নিশ্চিত। তার রানিংমেট সাধারণ সম্পাদকসহ ৮১ সদস্যবিশিষ্ট কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের পুরো টিম সাজানোর দায়িত্বও কাউন্সিলররা শেখ হাসিনার ওপর অর্পণ করবেন। কারণ তিনি দলটির সবচেয়ে জনপ্রিয় ব্যক্তি।

comment / reply_from