• Tuesday, 31 January 2023
কুমিল্লায় ছেলের হাতে মা খুন

কুমিল্লায় ছেলের হাতে মা খুন

এস.এম.মনির, ব্যুরো চীফ, কুমিল্লাঃ
 
কুমিল্লা জেলার লালমাই উপজেলার পেরুল দক্ষিণ ইউনিয়নের কনকশ্রী গ্রামের দক্ষিণ পাড়ায় প্রবাস ফেরত ছেলের শাবলের (খন্তি) আঘাতে  খুন হওয়ার মা এমন  খবর পাওয়া গেছে। ওই  ছেলের নাম নুরে আলম সবুজ (৩০)। নিহত মায়ের নাম নুরজাহান বেগম চশমা (৫০)। তিনি কনকশ্রী গ্রামের কামাল হোসেন রাজা মিয়ার স্ত্রী। শনিবার (১০ডিসেম্বর) দুপুরে  এ ঘটনা ঘটে। স্থানীয় ইউপি সদস্য সাইদুল ইসলাম তিতু এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
 
প্রত্যক্ষদর্শীরা  জানা যায়,  ৫ দিন আগে সৌদি আরব থেকে দেশে আসার পর থেকে সবুজ কারো সাথে কথাবার্তা না বলে চুপ চাপ চলাফেরা করতো। মাঝে মধ্যে কথা বললেও  অসৎলগ্ন ভাবে কথা বলতো। ২ বছর সৌদি থাকলেও দেশে টাকা-পয়সা পাঠাতে পারেনি। শনিবার দুপুরে  হঠাৎ পিতা কামাল হোসেন রাজা মিয়া, ভাই আরশাদসহ কয়েক জনকে মারধর করে। পরে পার্শ্ববর্তী নানার বাড়িতে গিয়ে মামা কামরুল ইসলামের স্ত্রী প্রীতি (২৭), মামাতো বোন মাইশাকে মারধর করে এবং তাদের বাড়ি ঘরে হামলা করে । এ সময় ঐ বাড়ির লোকজন তাদেরকে রক্ষায় এগিয়ে এলে তোফায়েল হোসেন সহ (৫৫) কয়েকজনকে মারধর করে সবুজ। খবর পেয়ে একপর্যায়ে তার মা তাদেরকে রক্ষায় এগিয়ে গেলে সবুজের হাতে থাকা শাবল (খন্তি) দিয়ে  সবুজ তার মাকে আঘাত করলে মাথা ফেটে গেলে  ঘটনাস্থলে মারা যান তার মা নুরজাহান বেগম চশমা।
 
এলাকাবাসী জানায়, হত্যাকাণ্ডের পর বাড়িতে এসে বেডিংপত্র নিয়ে সবুজ ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা দেয়। এ সময় লোকজন তাড়া করলে সে রাস্তা বদলে পালানোর চেষ্টা করে। পরে দরবেশপাড়া দিঘির পাড় থেকে তাকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করা হয়।
 
লালমাই থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি মোহাম্মদ আইয়ুব জানান, সবুজ মানষিক ভারসাম্য হারানোর কারণে তাকে সৌদি আরব থেকে দেশে পাঠানো হয়। শনিবার তাকে আত্মীয় স্বজনরা চিকিৎসার জন্য মানষিক হাসপাতালে নেয়ার কথা ছিলো। 
 
ঘটনাস্থলে আসা লালমাই থানার উপ-পরিদর্শক হারুনুর রশিদ জানান, ঘাতক সবুজকে আটক করা হয়েছে। নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

comment / reply_from