• Tuesday, 31 January 2023
উগ্রবাদ-সন্ত্রাস দমন ও আন্তর্জাতিক অপরাধ প্রতিরোধে জয়পুরহাটে দিনব্যাপী সেমিনার অনুষ্ঠিত

উগ্রবাদ-সন্ত্রাস দমন ও আন্তর্জাতিক অপরাধ প্রতিরোধে জয়পুরহাটে দিনব্যাপী সেমিনার অনুষ্ঠিত

জাহাঙ্গীর আলম খান, জয়পুরহাটঃ
বাংলাদেশ পুলিশের সন্ত্রাস দমন ও আন্তর্জাতিক অপরাধ প্রতিরোধ কেন্দ্র নির্মাণ প্রকল্পের আওতায় জয়পুরহাটে ছাত্র, গণমাধ্যমকর্মী ও সুশীল সমাজের করণীয় শির্ষক দিনব্যাপী সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে। 
 
রবিবার (১৮ ডিসেম্বর) সকাল ১০ টায় জয়পুরহাট পুলিশ লাইন্স ড্রিল শেডে অনুষ্ঠিত সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন পুলিশ সুপার মোহাম্মদ নূরে আলম। 
 
এ সময় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কে,এম,এ মামুন খান চিশতী এর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন, জয়পুরহাট সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ মোঃ সাইফুল ইসলাম, বানিয়াপাড়া কামিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ সাইদুর রহমান, কমিউনিটি পুলিশিং জেলা সমন্বয় কমিটির আহবায়ক গোলাম হক্কানী, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শাম্মী আজিজ সাজ ও সাধারণ সম্পাদক সাবিনা চৌধুরী। 
 
দিনব্যাপী সেমিনারের অংশ হিসেবে দুপুর ২ টায় একইস্থানে জেলায় কর্মরত পুলিশ কর্মকর্তা/সদস্য, জেলা কারাগারের কর্মকর্তা ও কারারক্ষী এবং আনসার কর্মকর্তা/সদস্যগণের অংশগ্রহণে "উগ্রবাদ প্রতিরোধে আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর 
করণীয়’ শীর্ষক দিনব্যাপী সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়।
 
এ সময় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফারজানা হোসেন এর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন, জয়পুরহাট জজ কোর্টের বিজ্ঞ পিপি এ্যাডঃ নৃপেন্দ্রনাথ মন্ডল, জয়পুরহাট পৌরসভার প্রাক্তন মেয়র আব্দুল আজিজ মোল্লা, জেল সুপার রীতেশ চাকমা, জয়পুরহাট আনসার ভিডিপির সার্কেল এ্যাডজুডেন্ট বাবুল আক্তার।
 
সেমিনারে উগ্রবাদে জরিত হওয়ার কারণ ও এর প্রতিরোধে করণীয় বিষয়ে বিভিন্ন দিকনির্দেশনা মূলক বক্তব্য দেন কাউন্টার টেরোরিজম এন্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের কনফিডেন্সিয়া টিসি- ইন্টেলিজেন্স এ্যানালাইসিস বিভাগের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার সাইদ নাসিরুল্লাহ। 
 
প্রধান অতিথির বক্তব্যে জয়পুরহাট পুলিশ সুপার মোহাম্মদ নূরে আলম বলেন, উগ্রবাদ ও জঙ্গীবাদ নির্মূলে অভিভাবকদের উচিত তাদের সন্তানদের গতিবিধি ও ইন্টারনেট ব্যবহারের প্রতি খেয়াল রাখা,  এলাকায় নতুন কোন অপরিচিত ব্যক্তি দেখা গেলে তার পরিচয় সম্পর্কে এলাকাবাসী খোঁজ খবর নেওয়া, ধর্মের সঠিক শিক্ষা প্রদান, আলেম সমাজকে কোরআন ও হাদিসের আলোকে সকলকে সঠিক ইসলামের দিক-নির্দেশনা প্রদান ও অন্য কোন ধর্মের সাথে বিরোধ সৃষ্টি করে এমন ধরণের বক্তব্য থেকে বিরত থাকা, জুম্মার নামাজের খুৎবার সময় জঙ্গীবাদ বা সন্ত্রাস সম্পর্কে ইসলাম কী বলে তার সঠিক ব্যাখ্যা প্রদান, ছেলে-মেয়েদের খেলাধুলার প্রতি আগ্রহ সৃষ্টি করা।
 
তিনি আরও বলেন, জেলার কোথাও কোন জঙ্গীবাদ বা উগ্রবাদ জাতীয় কোন বিষয় সম্পর্কে অবগত হলে সঙ্গে সঙ্গে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী বা প্রশাসনকে অবশ্যই অবগত করবেন। 

comment / reply_from