• Friday, 27 January 2023
ইসলামপুরে কাজলা-কাঠমা যমুনা নদী ভাঙ্গন অব্যাহত ভাঙ্গন রোধে স্থায়ী বাঁধ ও পাইলিং দাবী এলাকাবাসীর

ইসলামপুরে কাজলা-কাঠমা যমুনা নদী ভাঙ্গন অব্যাহত ভাঙ্গন রোধে স্থায়ী বাঁধ ও পাইলিং দাবী এলাকাবাসীর

ওসমান হারুনী,বিশেষ প্রতিনিধি.

জামালপুরের ইসলামপুরে নোয়ারপাড়া ইউনিয়নের কাজলা-কাঠমা গ্রামে যমুনা নদীর ভাঙ্গনের তান্ডবলীলা চলছে। ভাঙ্গন আতংকের হুমকীর মধ্যে রয়েছে যমুনা নদী পাড়ের কয়েকটি গ্রামের শত শত পরিবার ও বিস্তীর্ণ এলাকার ফসলী জমি।


জামালপুরে জেলার সবচেয়ে বেশী নদী ভাঙ্গন ও বন্যা কবলিত এলাকা ইসলামপুর উপজেলা। প্রতিবছর সময় অসময়ে অব্যাহত নদ-নদী ভাঙ্গণের ফলে অনেকেই গৃহহীন হয়ে পড়ে। গৃহহীন এসব মানুষ বিভিন্ন উচু রাস্তা, আশ্রয় কেন্দ্রসহ জীবিকার তাগিদে রাজধানী ঢাকায় পারি জমায়। গত কয়েক সপ্তাহ ধরে যমুনার পানি হ্রাস-বৃদ্ধির সাথে সাথে উপজেলার নোয়ারপাড়া ইউনিয়নে কাজলা- কাঠমা গ্রামে যমুনা নদীর ভাঙ্গনের তান্ডবলীলা চলছে।

অন্যদিকে ভাঙ্গন কবলিত এলাকায় যমুনা নদী অবৈধ খনন করে কাঠমা এলাকার রফিকুল ও রাসেল, মো: ফজু বলগেট দিয়ে বালু তুলে নদীর তীরে জমা করছে। এতে ওই এলাকায় ভাঙ্গন আরো বৃদ্ধি পেয়েছে বলে স্থানীয়দের অভিযোগ। যার ফলে গত ১৫/২০দিন যাবৎ কাজলা- কাঠমা এলাকায় যমুনা নদীর ভাঙন তীব্র আকার ধারণ করেছে।

এভাবে ভাঙন অব্যাহত থাকলে কাঠমা এলাকা একেবারে নিশ্চিহ্ন হয়ে যাবে। ভাঙন কবলিত লোকজন তাদের বাড়িঘর অন্যত্র সরিয়ে নিচ্ছে। ইতো মধ্যে অব্যাহত ভাঙ্গনে ৫০টির মতো ঘরবাড়ি ও বসতভিটা যমুনা গর্ভে চলে গেছে। ভাঙ্গন আতংক ও হুমকীর মধ্যে রয়েছে যমুনা নদী তীরবর্তী কাজলা-কাঠামা এলাকার শত শত পরিবার ও ফসলী জমি, সরকারি বেসরকারি প্রতিষ্ঠান,মসজিদ, মাদ্ধসঢ়;রাসা, রাস্তা, ব্রীজ কালভার্টসহ মানুষের ঘরবাড়ী। ভাঙ্গনে দিশেহারা এলাকাবাসী নদী ভাঙন রোধকল্পে স্থায়ীভাবে পাইলিং ও বাঁধ নির্মাণের দাবী জানিয়েছেন।


অবৈধ ভাবে নদী থেকে বালু উত্তোলন বন্ধসহ কাজলা-কাঠমা যমুনা নদী ভাঙন রোধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানিয়েছেন ইসলামপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মু.তানভীর হাসান রুমান।কালক্ষেপন না করে পানি উন্নয়ন বোর্ডসহ প্রশাসন জরুরী ভিত্তিতে যমুনা নদী ভাঙ্গন রোধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিবেন এটাই প্রত্যাশা এলাকাবাসীর।

comment / reply_from