• Tuesday, 07 February 2023
ইন্দুরকানীতে সড়ক ও জনপথ বিভাগের রাস্তা নির্মাণও সংস্কার কাজে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ

ইন্দুরকানীতে সড়ক ও জনপথ বিভাগের রাস্তা নির্মাণও সংস্কার কাজে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ

ইন্দুরকানী(পিরোজপুর)প্রতিনিধিঃ
 
পিরোজপুরের ইন্দুরকানী উপজেলায় সড়ক ও জনপথের রাস্তা সংস্কারকাজে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এর মধ্যে ১৯কিলোমিটার রাস্তা নির্মাণে নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহার করা হচ্ছে দেয়া হচ্ছেনা ঠিকমত রোলার ও পর্যাপ্ত বিটুমিন না দিয়েই তার উপরে র্কাপেটিং করা হচ্ছে একটু চাকার চাপ পড়লেই উঠে যাচ্ছে বেডের বালু ও পাথর। 
 
সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় রাস্তার কাজ যেন তেন ভাবে করেই চলছে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। এবিষয়ে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের দায়িত্বে থাকা ম্যানেজারে সাথে যোগ যোগ করা হলে তিনি বলেন কাজ ঠিক মত হচ্ছে ইঞ্জিনিয়ারগন দেখে গেছে তিনি আর কোন কথা বলতে রাজি হননি। 
এবিষয়ে পিরোজপুর সড়ক ও জনপথের প্রধান প্রকৌশলী তানভীর আহম্মেদকে ঘটনা জানালে তিনি তিনি সহকারি প্রকৌশলী সামিম আহমেদকে রাস্তার কাজ দেখতে পাঠান। 
 
সেখানে সাংবাদিকগন গেলে তিনি বিভিন্ন বিষয়ে প্রশ্ন করে সাংবাদিকের বিব্রত করেন। সাংবাদিকগন তার কাছে কাজের মানের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি কথা বলতে রাজি হননি। এবং তার নাম জানতে চাইলে তিন নাম বলতে অপরগতা প্রকাশ করেন। 
 
উলেখ্য ইন্দুরকানীর টগড়া-কলারণ সড়কের ১৭ কিলোমিটার সংস্কারে প্রাক্কলিত ব্যয় ধরা হয়েছে ২৫ কোটি টাকা। কাজ পেয়েছে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান এম খান লিমিটেডের ম্যানেজার শাহাজাহান তালুকদার কাজের মান নিম্ন হওয়ার কথা অস্বীকার করে তিনি আর কোন মন্তব্য করতে রাজি হয়নি। 
 
স্থানীয় বাসিন্দারা কাজের মান খারাপ হচ্ছে বলে জানান, বালুর উপরে রাস্তা পিস দেওয়া হচ্ছে। সামনে বর্ষায় সব উঠে যাবে এমন ধারনা করছে সকলে। এত খারাপ রাস্তা করার কী দরকার ঠিক মত রোলার ও দিচ্ছে না ?
 
সরেজমিনে দেখা গেছে, নিম্নমানের ইট-খোয়া ব্যবহার করা হচ্ছে। অপরদিকে পর্যাপ্ত কাদামাখা বালু উপরে বিটুমিন দিয়ে দেদারছে চলছে রাস্তা নির্মাণ। শ্রমিকেরা বলছেন, ঠিকাদার যে রকম মালামাল দিচ্ছেন, তা দিয়েই তাঁদের রাস্তা নির্মাণ করতে হচ্ছে।
 
পিরোজপুর সড়ক ও জনপদ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী তানভীর আহম্মেদ বলেন, নিম্নমানের ইট ও বিটুমিন দেওয়ায় রাস্তা নির্মাণকাজ বন্ধ করতে বলা হয়েছে। নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহার বন্ধ করার বিষয়ে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।
এইচ এম বাশার ০১৭৩২৯৭৮৩৭৬ ছবি আছে 

comment / reply_from