৫ কোটি টাকা চেয়ে প্রাণনাশের হুমকি অরিজিৎ সিংকে

72
৫ কোটি টাকা চেয়ে প্রাণনাশের হুমকি অরিজিৎ সিংকে
৫ কোটি টাকা চেয়ে প্রাণনাশের হুমকি অরিজিৎ সিংকে

পঞ্জাবী গায়ক-রাজনীতিক সিধু মুসেওয়ালা হত্যাকাণ্ডের পর আবারও প্রাসঙ্গিক অন্ধকার জগতের গ্যাংস্টারদের খপ্পড়ে পড়া বিনোদন জগতের তারকাদের কাহিনি। খোদ সলমন খানের মতো বড় সুপারস্টারও প্রাণনাশের হুমকি খেয়েছিলেন বিষ্ণোই গ্যাংস্টারের কাছ থেকে। বাদ যাননি খ্যাতনামা গায়ক অরিজিৎ সিংও। ৫ কোটি টাকা চেয়ে এসেছিল হুমকি ফোন।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম মুম্বাই মিররকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে অরিজিৎ জানান, ২০১৫ সালে তাঁর ম্যানেজার তারসেন ফোন পান আন্ডারওয়ার্ল্ডের ডন রবি পূজারির কাছ থেকে। প্রথমে পাঁচ কোটি টাকা চাওয়া হয়। তখন পাঁচ কোটি টাকা না থাকায় এর পরিবর্তে নিজের প্রাণ বাঁচাতে বিনা মূল্যে কয়েকটি অনুষ্ঠান করার চুক্তিতে যেতে বাধ্য হন। অরিজিৎ সিং বলেন, ‘সে সময় এক প্রোমোটারের সঙ্গে প্রোগ্রামের টাকা নিয়ে দরদাম চলছিল। অনেক কম টাকায় সে শো করতে চাইছিল। সেই প্রোমোটারের যোগাযোগ ছিল আন্ডারওয়ার্ল্ড ডন রবি পূজারির সঙ্গে। কম টাকায় শো করতে রাজি না হওয়ায় রবি পূজারি আমার ম্যানেজার তারসেনকে ফোন করে হুমকি দেয় এবং টাকাও চায়।

গায়ক জানান, তিনি যখন স্টুডিও থাকেন, তখন কোনও ফোন রিসিভ করেন না। তো অরিজিৎকে ফোনে না পেয়ে তারসেনের কাছে ক্রমাগত হুমকি ফোন আসতে থাকে। ভয় পেয়ে ম্যানেজার গোটা বিষয়টি অরিজিৎকে জানান। অরিজিৎ জানিয়েছিলেন, তিনি ব্যক্তিগতভাবে রবি পূজারীকে চেনেন না। আর সরাসরি কোনও হুমকি ফোন তিনি পাননি। উত্যক্ত করা হত তাঁর ম্যানেজারকে। তাঁর কথায়, “আমি অত টাকা তো কামাই না, কীভাবে দেব ৫ কোটি?” এরপর সেই কুখ্যাত গ্যাংস্টারের খপ্পড় থেকে বাঁচার জন্য অরিজিতের ম্যানেজার তারসেন গোটা বিষয়টি জানান পুলিশকে। সেইসময়ে ডিসিপি এম দাহিকর জানান, অরিজিতের তরফে কোনও অভিযোগ দায়ের করা হয়নি। শুধুমাত্র স্টেশন ডায়েরি এন্টি করে ছেড়ে দেওয়া হয় বিষয়টি।

বছর খানেক আগে সেই সংবাদমাধ্যমকে অরিজিৎ সিং এও জানিয়েছিলেন যে, প্রথমবার তাঁর সঙ্গে এমন অনভিপ্রেত ঘটনা ঘটে। তবে তিনি এটাকে খুব একটা পাত্তা দেননি। কারণ, সব অর্গানাইজার্সরাই ব্যবসা করতে চায়। কিন্তু সেবার রবি পূজারীর নাম যুক্ত হওয়ায় বিষয়টা হাতের বাইরে চলে গিয়েছিল। বিনোদনজগতের শিল্পীরা যে অপরাধচক্রের হাত থেকে সুরক্ষিত নয়, এই ঘটনা আগেও দেখা গিয়েছে বহুবার।

বর্তমানে মুম্বইয়ের বিলাসবহুল অ্যাপার্টমেন্ট ছেড়ে মুর্শিদাবাদেই স্ত্রী, সন্তান নিয়ে থাকছেন অরিজিৎ সিং। অতিমারীর সময়েও বহু দুঃস্থ মানুষের পাশে থেকেছেন। ছেলেকেও ভর্তি করিয়েছেন সেখানকারই এক স্কুলে।