সেশনজটের হতাশায় বশেমুরবিপ্রবি ছাত্রীর আত্মহত্যা

200
সেশনজটের হতাশায় বশেমুরবিপ্রবি ছাত্রীর আত্মহত্যা
সেশনজটের হতাশায় বশেমুরবিপ্রবি ছাত্রীর আত্মহত্যা

বশেমুরবিপ্রবি প্রতিনিধিঃ করোনায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধে দীর্ঘ সেশনজট সৃষ্টি হয়েছে। ফলে নির্ধারিত সময়ে গ্রাজুয়েশন শেষ করতে না পেরে ডিপ্রেশনে আত্মহত্যা করেছে গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) এক ছাত্রী। আত্মহত্যার ঘটনাটি নিশ্চিত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের চেয়ারম্যান জুবাইদুর রহমান।

আত্মহত্যাকারী ছাত্রীর নাম পল্লবী মন্ডল। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী। বাড়ি খুলনা জেলার ডুমুরিয়া উপজেলাতে। জানা গেছে, গ্রাজুয়েশন শেষ করে বিসিএস পরীক্ষা দিতে চেয়েছিলো পল্লবী। কিন্তু, করোনার প্রকোপ বেড়ে যাওয়া ও সরকারি বিধিনিষেধে দীর্ঘ সেশনজটে হতাশায় ভুগছিলো সে। তাই আত্মহত্যার পথ বেছে নেয়।

আজ শুক্রবার (৪ ফেব্রুয়ারী) গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে পল্লবী।

এ বিষয়ে অর্থনীতি বিভাগের চেয়ারম্যান জুবায়দুর রহমান বলেন, আত্মহত্যার বিষয়টা মোটামুটি নিশ্চিত। তার মা আমার কাছে কিছুদিন আগে এসেছিলো। জানিয়েছিলো, মেয়ে অনেক ডিপ্রেশনে আছে, বিসিএস পরীক্ষা সহ পড়াশুনা বিষয়ে। এ জন্য এ ধরনের ঘটনা ঘটে থাকতে পারে।

পল্লবীর বন্ধু রনি বলেন, ডিপ্রেশন থেকেই পল্লবী আত্মহত্যা করেছে বলে আমরা জানতে পেরেছি। ঘটনাস্থলে আমরা গিয়ে বিস্তারিত জানতে পারবো। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত পল্লবীকে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে।