সুস্থ যৌন জীবনের শত্রু যেসব খাবার

0
158
Spread the love

বর্তমান সময়ে কাজের ব্যস্ততায় মানুষের বিশ্রাম নেওয়ার ফুরসত মেলে না বললেই চলে। কাজের চাপে চ্যাপ্টা হওয়ার সঙ্গে আবার যুক্ত হয়েছে দুশ্চিন্তা আর প্রচণ্ড মানসিক চাপ। সবকিছু মিলিয়ে বিশৃঙ্খল জীবনে অভ্যস্ত হয়ে পড়ছেন অনেক মানুষ। এসবই সুস্থ যৌন জীবনকে বাধাগ্রস্ত করে। ইদানীং অনেকের ভেতরেই যৌন চাহিদা কমে যাওয়ার প্রবণতা লক্ষ্য করা যায়। মড়ার ওপর খাড়ার ঘায়ের মতো আবার জেঁকে বসেছে করোনা মহামারি। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে অনেকেরই যৌন চাহিদা হ্রাস পেয়েছে। করোনার প্রভাবে যৌন চাহিদা কমার ক্ষেত্রে পুরুষরাই বেশি ভুক্তভোগী নারীদের চেয়ে। এর বাইরেও এমন কিছু খাবার আছে যেগুলো খেলে আপনার যৌনাকাঙ্ক্ষা কমে যেতে পারে। তাই সাবধান! এসব খাবার না খেয়ে পরিহার করা উচিৎ সুস্থ যৌন জীবন পেতে চাইলে। তাহলে জেনে নেওয়া যাক কোন খাবারগুলো মানুষের যৌনাকাঙ্ক্ষা কমিয়ে দেয়।

চকলেট : অনেকেই হয়তো জানেন, চকলেট মন ফুরফুরে রাখতে দারুণ কাজে দেয়। তাই যৌন চাহিদা কমানোর খাবার তালিকায় চকলেটের নাম শূনে একটু খটকা লাগতেই পারে।কিন্তু ঘটনা সত্য। চকলেটে অক্সিটোসিন নামের এক ধরনের উপাদান থাকে। তাই নিয়মিত চকলেট খেলে পুরুষের যৌন আগ্রহ কমে যেতে পারে। চকলেট পুরুষের দেহে টেস্টোস্টেরন হরমোনের মাত্রা কমিয়ে দেয়। উল্লেখ্য, টেস্টোস্টেরন হলো পুরুষত্বের জন্য দায়ী প্রধান স্টেরয়েড হরমোন। মানুষের শুক্রাশয়ে এটি উৎপন্ন হয়।

চিজ : চিজ খুবই সুস্বাদু একটি খাবার হলেও যৌনস্বাস্থ্যের বারোটা বাজিয়ে দিতে পারে এটি। পুরুষের যৌনস্বাস্থ্যের মারাত্মক ক্ষতি করার ক্ষমতা রাখে মজাদার এই খাবারটি। কারণ এতে বিভিন্ন ধরনের সিনথেটিক হরমোন থাকে যেগুলো পুরুষের দেহে টেস্টোস্টেরনের মাত্রা কমিয়ে দেয়। তাই খাদ্য তালিকায় এই খাবারটি না রাখাই ভালো।

জাংক ফুড : সুস্থ যৌন জীবনের অন্যতম বড় শত্রু জাংক ফুড বা ভাজাপোড়া খাবার। এসব খাবারে থাকে অতিরিক্ত লবণ এবং অন্যান্য উপাদান যা মানুষের শরীরে হরমোনের মাত্রার তারতম্য ঘটাতে সক্ষম। আর হরমোনের মাত্রায় তারতম্য দেখা দিলে যৌনতার প্রতিও আগ্রহ কমে যেতে পারে। তাই আজ থেকেই জাংক ফুড খাওয়া বন্ধ করে দিলে উপকারটা আপনারই হবে।

মদ : হিন্দিতে একটি কথা প্রচলিত আছে- ‘খানে ওয়ালো কে খানে কা বাহানা চাহিয়ে’। অনেকে যৌন সম্পর্কের আগে মদ্যপান করে নেন। তাদের ধারণা, এতে করে যৌনশক্তি ও মিলনের স্থায়িত্ব বৃদ্ধি পায়। কিন্তু কথাটি যতই রোমাঞ্চকর শোনাক না কেন, আদতে মদ্যপান যৌনস্বাস্থ্যের জন্য মোটেও উপকারী নয়। বরং কেউ যদি দীর্ঘদিন ধরে মাত্রাতিরিক্ত মদ খায় তবে তার যৌনাকাঙ্ক্ষা কমে যেতে পারে। তাই মিছেমিছি বাহানা না বানিয়ে মদ খাওয়ার বদভ্যাস থাকলে তাকে ঝেঁটিয়ে বিদায় করে দিন যত দ্রুত সম্ভব।

পুদিনা পাতা: পুদিনা পাতার ওষুধি গুণের গুণগান সবাই করেন। কিন্তু এই পাতায় এমন কিছু উপাদান থাকে যা কমিয়ে দিতে পারে যৌনাকাঙ্ক্ষা। তাই সুস্থ যৌন জীবন পেতে চাইলে ওষুধি গুণে ভরপুর হলেও পুদিনা পাতা এড়িয়ে চলাই ভালো।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে