সানি লিওন নাম গোপন করেনি : ড্যানিয়েল ওয়েবার

206

সম্প্রতি গান বাংলা টিভি চ্যানেলের কর্ণধার, দেশের জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী ও সংগীত পরিচালক তাপসের মেয়ের বিয়ের অনুষ্ঠানে হাজির হয়ে তোলপাড় তোলেন ‘জিসম ২’খ্যাত বলিউড অভিনেত্রী, আইটেম গার্ল ও সাবেক পর্নো তারকা করণজিৎ কৌর বোহরা যিনি সানি লিওন নামেই বেশি পরিচিত।

কানাডায় এক পাঞ্জাবি শিখ পরিবারে জন্ম নেয়া সানি লিওন কানাডা ও যুক্তরাষ্ট্রে অভিনেত্রী, ব্যবসায়ী, মডেল হিসেবে পরিচিতি পান। নীল ছবির নায়িকাও হন তিনি। ‌২০১২ সালে ‘জিসম ২’ ছবিতে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে বলিউড যাত্রা শুরু করেন ভারতীয় বংশোদ্ভূত এই অভিনেত্রী। পরবর্তী সময়ে নীল ছবির দুনিয়া ছেড়ে দিয়ে বলিউডে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেন তিনি।

সানি লিওন ঢাকায় প্রবেশের একদিন আগেই তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ জানান, পরিচয় গোপন করে একটি চলচ্চিত্রের কাজে অংশ নিতে বাংলাদেশে আসতে চেয়েছিলেন সানি লিওন। তবে তা দৃষ্টিগোচর হওয়ায় তার ওয়ার্ক পারমিট বাতিল করে তথ্য মন্ত্রণালয়। সানি লিওনসহ ভারতীয় ১০ জন শিল্পীকে বাংলাদেশে আসার জন্য অনুমতি দেয়া হয়েছিল। কিন্তু পরে তথ্য মন্ত্রণালয় জানতে পারে, সানি লিওন তার নাম, পরিচয় গোপন করে ভিন্ন নামে ও মার্কিন নাগরিক হিসেবে অনুমতি নেন। বিষয়টি জানার পর তার বাংলাদেশে আসার অনুমতি বাতিল করা হয়। তার পরিচয় গোপনের বিষয়টি অপরাধ। যারা এমনটা করেছে তারাও অন্যায় করেছে।

তথ্যমন্ত্রী এমনটা জানানোর পরদিনই বাংলাদেশে আসেন সানি লিওন। তার সঙ্গে আরও আসেন বলিউড অভিনেত্রী নার্গিস ফাখরি, বলিউডের জনপ্রিয় প্লেব্যাক গায়ক কৈলাস খের, গায়িকা শেফালি জারিওয়ালা, টালিউড অভিনেত্রী ও সাংসদ মিমি চক্রবর্তী ও নুসরাত জাহান, টালিউড অভিনেতা যশ দাশগুপ্তসহ একঝাঁক বলিউড-টালিউড তারকা। তারা ঢাকায় তাপসের মেয়ের বিয়েতে নেচে-গেয়ে পুরো অনুষ্ঠান মাতিয়ে তোলেন।

সানি লিওনের নাম গোপনের বিষয়টি নিয়ে ব্যাপক বিতর্ক শুরু হয় সোশ্যাল মিডিয়ায়। বিভিন্ন গণমাধ্যমে ফলাও করে প্রচার হয় সানি লিওনের ঝটিকা সফরের খবর। পরে জানা যায়, তিনি টুরিস্ট ভিসায় বাংলােদেশে আসেন। তাপসের মেয়ের বিয়ের আমন্ত্রণ রক্ষা করার জন্যই তার এই আকস্মিক সফর। এই সফরের সঙ্গে পারিশ্রমিকের কোনো সম্পর্ক ছিল না। তাপসের দুটি মিউজিক ভিডিওতে কাজ করেছেন সানি লিওন। একসঙ্গে কাজ করতে গিয়ে তাদের মধ্যে দারুন বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক গড়ে উঠেছে। বন্ধুর আমন্ত্রণে সাড়া দিতেই ঢাকায় আসেন সানি লিওন।

সানি লিওনের নাম গোপনের বিষয়টি নিয়ে বিতর্ক ওঠার বিষয়টি জানার পর মনে ভীষণ কষ্ট পান সানির স্বামী ড্যানিয়েল ওয়েবার। তিনি জানান, সানি লিওন নাম গোপন করেনি। তার প্রকৃত নাম করণজিৎ কৌর। এটা সবারই জানা। আর তাই তার নাম গোপনের প্রশ্নই ওঠে না।