সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধায় সিক্ত আবদুল গাফ্ফার চৌধুরী

46

‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি’গানের রচয়িতা বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুল গাফ্ফার চৌধুরীকে শেষ শ্রদ্ধা জানাচ্ছেন সর্বস্তরের মানুষ।
শনিবার দুপুর একটার পর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের আয়োজনে গাফফার চৌধুরীর মরদেহে শ্রদ্ধা নিবেদন শুরু হয়। এর আগে দুপুর ১টার দিকে তার মরদেহ আনা হয় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে। পরে তাকে ঢাকা জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে গার্ড অব অনার দেওয়া হয়।

এর আগে রাষ্ট্রীয় ব্যবস্থাপনায় শনিবার সকাল ১১টায় বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের একটি ফ্লাইটে লন্ডন থেকে গাফফার চৌধুরীর মরদেহ ঢাকার হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে পৌঁছায়। বিমানবন্দরে সরকারের পক্ষে গাফফার চৌধুরীর মরদেহ গ্রহণ করেন মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক। একই ফ্লাইটে আসেন আবদুল গাফফার চৌধুরীর পরিবারের সদস্যরা।

কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে সর্বসাধারণের শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে বিকাল সাড়ে তিনটায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মসজিদে নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। এরপর মরদেহ নেওয়া হবে জাতীয় প্রেসক্লাব প্রাঙ্গণে। সেখানে শ্রদ্ধা নিবেদনের পর বিকাল সাড়ে ৪টায় মিরপুর শহীদ বুদ্ধিজীবী কবরস্থানের উদ্দেশে মরদেহ নিয়ে যাওয়া হবে। বিকাল সাড়ে ৫ টায় আব্দুল গাফফার চৌধুরীর মরদেহ সমাহিত করা হবে।

গত ১৯ মে যুক্তরাজ্যের স্থানীয় সময় সকাল ৭টায় লন্ডনের একটি হাসপাতালে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন বরেণ্য এই সাংবাদিক। ১৯৩৪ সালের ১২ ডিসেম্বর বরিশালে জন্মগ্রহণ করা আবদুল গাফফার চৌধুরীর মৃত্যুকালে বয়স হয়েছিল ৮৮ বছর।