শেরপুরে আশ্রয়ণ প্রকল্প পরিদর্শন করেন জেলা প্রশাসক জিয়াউল হক

115

আবু বকর সিদ্দিক, শেরপুর (বগুড়া) প্রতিনিধি : বগুড়ার শেরপুর উপজেলায় প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ণ প্রকল্পের আওতায় তৃতীয় পর্যায়ের আরো ৪৫ টি ভূমিহীন পরিবারের মাঝে ভূমিসহ ঘর বরাদ্দ দেওয়ার উদ্দেশ্যে উপজেলার ৪ টি ইউনিয়নে ৪৫টি ঘর নির্মানের কাজ এবং বিশালপুর ইউনিয়ন পরিষদ পরিদর্শন করলেন জেলা প্রশাসক জিয়াউল হক। এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ ময়নুল ইসলাম, উপজেলা ইঞ্জিনিয়ার মোঃ লিয়াকত হোসেন, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা শামসুন্নাহার শিউলি, বিশালপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ জাকির হোসেন খান।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. ময়নুল ইসলামের প্রত্যক্ষ তত্বাবধানে দ্রুত এগিয়ে চলেছে। সমানতালে তদারকি করছেন শেরপুর উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা শামসুন্নাহার শিউলীসহ সংশ্লিষ্টরা।

নির্ধারিত সময়ের মধ্যে কাজ শেষ করার জন্য যেমন রয়েছে উপজেলা প্রশাসনের তদারকি তেমনি ব্যস্ততা নির্মান কর্মীদের। এছাড়াও অতিরিক্ত আরো ১০০টি ঘর বরাদ্ধ পাওয়া গেছে যার মধ্যে থেকে ৩০টি ঘরের নির্মাণ কাজ শুরু হয়েছে।
মুজিববর্ষে “বাংলাদেশের একজন মানুষও গৃহহীন থাকবে না” প্রধানমন্ত্রীর এ নির্দেশনা বাস্তবায়নে দেশের সব ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে জমি ও গৃহ প্রদান কার্যক্রম অন্যান্য এলাকার মত শেরপুরেও চলমান। উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা শামসুন্নাহার শিউলীর দেয়া তথ্যানুযায়ী মুজিব বর্ষ উপলক্ষে সারাদেশে অর্ধলক্ষেরও বেশি পরিবারকে বিনামূল্যে দুই শতক জমি ও সেমিপাকা ঘর করে দেয়া হচ্ছে। গত বছর২০ জুন এর উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শেরপুর উপজেলায় প্রথম পর্যায়ে ৮ টি ইউনিয়নে ১৬৩ টি ঘর বরাদ্দ করা হয়েছে প্রতিটি নির্মাণ ব্যয় ধরা হয়েছিল ১ লাখ ৭০ হাজার টাকা, ২য় পর্যায়ে ৫ টি ইউনিয়নে ১৭ টি ঘর বরাদ্দ বাস্তবায়ন করা হয়েছে। প্রতিটি ঘর নির্মাণে ব্যয় ধরা হইয়েছিলো ১ লাখ ৯০ হাজার টাকা। তৃতীয় পর্যায়ে ৪৫ টি নির্মানাধীন ঘরের প্রতিটি ঘরের ব্যয় ধরা হয়েছে ২লাখ ৫৯ হাজার ৫০০ টাকা।

এ প্রসঙ্গে শেরপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো.ময়নুল ইসলামের কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান, তৃতীয় পর্যায়ের ৪৫টি ঘর এবং নতুন বরাদ্ধ পাওয়া ১০০টি ঘরের মধ্যে ৩০টি সহ মোট ৭৫টি ঘরের কাজ এগিয়ে চলেছে। মুজিববর্ষে প্রধানমন্ত্রীর প্রতিটি প্রকল্প সঠিকভাবে বাস্তবায়নের জন্য আমি এবং আমার টিম সর্বদা সচেষ্ট। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে কাজ শেষে প্রকৃত গৃহহীন সুবিধাবঞ্চিত মানুষদের ঘর বুঝিয়ে দিবো ইনশাআল্লাহ।

প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ প্রকল্পের আওতায় শেরপুর উপজেলার বিশালপুর ইউনিয়ন এলাকায় ১নং খাস খতিয়ানের জমিতে এলাকার ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারের জন্য দুর‌্যোগ সহনীয় বাসগৃহ নির্মাণ কাজ পরিচালনা করা হচ্ছে। কাজের অগ্রগতি দেখে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন বগুড়া জেলা প্রশাসক জিয়াউল হক।