লাশ হয়ে ফিরল চয়েস পরিবহনের হেলপার মিরসরাইয়ের শহিদুল

120

আকতার হোসেন, মিরসরাই প্রতিনিধি : সীতাকুণ্ডে মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় লাশ হয়ে ফিরল চয়েস পরিবহনের চালকের সহকারী শহিদুল ইসলাম (৩২)।শুক্রবার (৪ ফেব্রুয়ারী) দিবাগত রাত এগারোটা দিকে ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কের সীতাকুণ্ড উপজেলার ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের গেইটের সামনে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত শহিদুল ইসলাম মিরসরাইয়ের হিঙ্গুলী ইউনিয়নের ২ নং ওয়ার্ডের দক্ষিণ আজমনগর গ্রামের জোহুর আহমেদের পুত্র এবং ২ কন্যা সন্তানের জনক। ৪ বোন ১ ভাইয়ের মধ্যে শহিদুল সবার বড়।নিহতের পিতা জোহুর আহমেদ জানান শুক্রবার বিকেলে চট্টগ্রাম যাওয়ার উদ্দেশ্য বাড়ি থেকে বের হয়। রাত আনুমানিক একটার দিকে বার আউলিয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় শহিদুলের নিহত হওয়ার খবর পাই।

শহিদুল ইসলামের পার্শ্ববর্তী বাড়ির বাসিন্দা মাকসুদুর রহমান রুবেল বলেন, খুব সাদাসিধা এবং নম্র-ভদ্র প্রকৃতির লোক ছিলেন। শহিদুল ইসলামের আকস্মিক মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে গেল।চয়েস পরিবহন চালক সমিতির নেতা অলি আহমদ প্রকাশ অলি সেক্রেটারি ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।

বার আউলিয়া হাইওয়ে থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) রুহুল আমিন জানান, শুক্রবার রাত এগারোটা দিকে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের গেইটের সামনে দাঁড়িয়ে থাকা চয়েস পরিবহনের একটি বাস (চট্টমেট্রো-ব-১১-০৪২১) কে ঢাকাগামী কাভার্ড ভ্যান (ঢাকা মেট্রো-উ-১৪-১৩৭১) পিছন থেকে ধাক্কা দিলে গাড়ির নিচে থাকা হেলপার শহিদুল নিজ গাড়ির চাকায় পিষ্ট হয়ে যায়। কাভার্ড ভ্যানের চালক পালিয়ে যায় তবে দূর্ঘটনা কবলিত বাস ও কাভার্ড ভ্যান আটক করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে এবং নিহতের লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।শনিবার বাদ জোহর শেখ বাহার উল্লাহ জামে মসজিদের সামনে জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।