মেহেরপুরে আদালত চত্তরে দুই পুলিশকে আসামির কিল-ঘুষি

288
মেহেরপুরে আদালত চত্তরে পুলিশের উপর হামলা চালিয়েছে নারী ও শিশু নির্যাতন মামলার এক আসামি। এই ঘটনায় দুই পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন।
মেহেরপুরে আদালত চত্তরে পুলিশের উপর হামলা চালিয়েছে নারী ও শিশু নির্যাতন মামলার এক আসামি। এই ঘটনায় দুই পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন।

মেহেরপুর প্রতিনিধি : মেহেরপুরে আদালত চত্তরে পুলিশের উপর হামলা চালিয়েছে নারী ও শিশু নির্যাতন মামলার এক আসামি। এই ঘটনায় দুই পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন।

হামলায় আহত দুই পুলিশ সদস্য হলেন কনস্টেবল আজিমুদ্দীন এবং রেজাউল ইসলাম। হামলাকারি আসামির নাম আব্দুল মাবুদ। তিনি গাংনী উপজেলার ভাটপাড়া গ্রামের বাসিন্দা।

রোববার, ২৯ মে দুপুরে মেহেরপুর নারী ও শিশু নির্যাতন আদালত চত্তরে এই ঘটনা ঘটে। ঘটনার পরপরই হামলাকারী আব্দুল মাবুদকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তিনি নারী ও শিশু নির্যতন দমন আইনের একটি মামলায় আদালতে হাজিরা দিতে গিয়েছিলেন।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে মেহেরপুর কোর্ট ইন্সপেক্টর গোলাম মহাম্মদ আলী জানান, হামলার পর আহত দুই পুলিশ সদস্যকে মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

কোর্ট ইনসপেক্টর গোলাম মহাম্মদ আলী আরও জানান, আসামী আব্দুল মাবুদের স্ত্রী হাড়িয়াদহ গ্রামের জেসমিন খাতুন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেন। ওই মামলার আসামি হিসেবে মেহেরপুর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালতে হাজিরা দিতে আসেন। মামলায় বাদি পক্ষের কয়েকজন স্বাক্ষ্য দিলে আদালত চত্তরেই তাদেরকে উচ্চস্বরে হুমকি দেন মাবুদ।

এক পর্যায়ে মাবুদ উত্তেজিত হয়ে পড়লে আদালতে দায়িত্ব পালনকারী দুই পুলিশ সদস্য তাকে নিবৃত করার চেষ্টা করেন। এসময় আব্দুল মাবুদ তাদের উপর আক্রমণ করে বসে। উপর্যুপরি কিল-ঘুষি দিয়ে পালানোর চেষ্টা করে সে। এসময় পুলিশ তাকে আটক করতে সক্ষম হয়।

আদালতে কর্মরত কোর্ট ইনসপেক্টর গোলাম মহাম্মদ আলী জানান, সরকারি কাজে বাধা প্রদান ও আদালতে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির দায়ে মাবুদের নামে নিয়মিত মামলা দায়ের করা হয়েছে। তাকে জেলা কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।