ভুট্টার চাষাবাদে সুন্দরগঞ্জে চর অঞ্চল বাসির আর্শিবাদ

148

আঃ মতিন সরকার, সুন্দরগঞ্জ (গাইবান্ধা) প্রতিনিধিঃ ভুট্টার চাষাবাদ যেন চরবাসির জন্য আর্শিবাদ হয়ে দাড়িয়েছে। যতই দিন যাচ্ছে ততই চরাঞ্চলে ভুট্টার চাষাবাদ ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে। বাহারি ভুট্টাক্ষেত বালু চরের দৃশ্যপট পরিবর্তন করে দিয়েছে।

অল্প খরচে অধিক লাভের আশায় গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার তারাপুর, বেলকা, হরিপুর, চন্ডিপুর, শ্রীপুর ও কাপাসিয়া ইউনিয়নের তিস্তার চরাঞ্চলের কৃষকরা ভুট্টা চাষাবাদে সক্রিয় হয়ে উঠেছে। ইতোমধ্যে গোটা চরাঞ্চল ভরে উঠেছে ভুট্টাসহ নানাবিধ বাহারি ফসলের সবুজের রংতুলিতে। উপজেলা কৃষি অফিসসুত্রে জানা গেছে, চলতি মৌসুমে ৫ হাজার হেক্টর জমিতে ভুট্টার চাষাবাদ হয়েছে। যা গত বছরের তুলনায় অনেক বেশি। বাদামের চরের কৃষক বাদশা মিয়া জানান, চলতি মৌসুমে তিনি ৪ বিঘা জমিতে ভুট্টা চাষ করেছে। এতে তার খরচ হয়েছে ২০ হাজার টাকা। যদি কোন প্রাকৃতিক দুযোর্গ না হয়,তাহলে দেড় লাখ টাকার ভুট্টা বিক্রি করা যাবে ইনশা আল্লাহ।

তিনি আর বলেন উপজেলায় ভুট্টা বাজারজাত করার কোন ব্যবস্থা না থাকায় তাদেরকে অত্যন্ত কমদামে ভুট্টা বিক্রি করতে হচ্ছে। সে কারনে সরকারি ভাবে ভুট্টা বাজারজাত করনের দাবি জানান ভুট্টা চাষিরা। কাপাসিয়া ইউপি চেয়ারম্যান মঞ্জু মিয়া জানান, চরবাসিরা রবি মৌসুমের ফসলের অর্থদিয়ে গোটা বছর সংসার চালায়। গোটা চরাঞ্চল এখন ভুট্টাসহ নানাবিধ ফসলে ভরে উঠেছে। সরকারি প্রনোদনার বীজ দিয়ে চরের কৃষকরা ভুট্টার চাষাবাদ করেছে। ফলনও ভাল দেখা দিয়েছে। উপজেলা কৃষি অফিসার রাশিদুল কবির জানান, চরের উর্বর মাটিতে নানাবিধ ফসলের ফলন ভাল হচ্ছে। বিশেষ করে ভুট্টার চাষাবাদ ভরে উঠেছে গোটা চরাঞ্চল। অল্প খরের অধিক লাভ ভুট্টা চাষাবাদে। তাই চরের কৃষকরা ভুট্টা চাষাবাদে ব্যাপক ঝুকে পড়েছে।