ভিডিও কলে প্রেমিককে নগ্ন শরীর দেখাতে গিয়ে স্বামীর হাতে ধরা স্ত্রী, অতঃপর…

350
কুমিল্লার বরুড়া উপজেলার আদ্রা ইউনিয়নের রাজাপুর গ্রামে ভিডিও কলে প্রেমিককে নগ্ন শরীর দেখাতে গিয়ে স্বামীর হাতে স্ত্রী ধরা পড়ার পর হৃদয়বিদারক এক ঘটনা ঘটেছে।
কুমিল্লার বরুড়া উপজেলার আদ্রা ইউনিয়নের রাজাপুর গ্রামে ভিডিও কলে প্রেমিককে নগ্ন শরীর দেখাতে গিয়ে স্বামীর হাতে স্ত্রী ধরা পড়ার পর হৃদয়বিদারক এক ঘটনা ঘটেছে।

রবিউল ভাইয়ের সঙ্গে কথা বলি। কথা বলা শেষ হলে আমি ঘরে আসি। তখন দেখি হাসাহাসি করে লিজা কোনো এক ছেলের সঙ্গে ভিডিও কলে কথা বলছে। তাকে সবকিছু খুলে দেখাচ্ছে। কথাগুলো ডায়েরির পাতায় লিখেছেন যে হতভাগ্য স্বামী তিনি আর পৃথিবীর বুকে নেই।

স্ত্রীর বিশ্বাসঘাতকতা সহ্য করতে না পেরে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছেন কাউসার আলম নামের তরতাজা ওই যুবক। পরকীয়ার কারণে হৃদয়বিদারক এই ঘটনা ঘটেছে কুমিল্লার বরুড়া উপজেলার আদ্রা ইউনিয়নের রাজাপুর গ্রামে।

কাউসার আলম রাজাপুর গ্রামের আবুল কাশেমের ছেলে। ঘটনার পর কাউসার আলমের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

দীর্ঘ পাঁচ বছর প্রেম করার পর ১৬ মাস আগে রাজাপুর গ্রামেরই মেয়ে লিজা আক্তারকে বিয়ে করেছিলেন কাউসার আলম। সম্প্রতি আত্মহত্যা করেন কাউসার। মৃত্যুর আগে স্ত্রীর বিরুদ্ধে পরকীয়ার অভিযোগ এনে ডায়েরিতে বিস্তারিত লিখে যান তিনি।

ডায়েরিতে কাউসার আলম লেখেন, আমি এখন কি করবো! আমার মাথায় কিছু কাজ করে না। কাকে কী বোঝাবো? আমি এসব দেখার পর মরে যেতে চাচ্ছি। এরপরও নিজেকে বুঝাতে পারিনি। কারণ আমি নিজের চোখে দেখেছি (স্ত্রীর প্রতারণা)। আমি মান পাই নাই। জীবনের গল্প শেষ করে দিলাম। কারণ হলো, যাকে ভালোবেসেছি সে আমার সঙ্গে এমন করলো।

কাউসার আলমের পিতা আবুল কাশেম জানান, পাঁচ বছর প্রেমের পর ২০২১ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে একই গ্রামের লিজা আক্তারের সঙ্গে কাউসারের বিয়ে হয়। বিয়ের কিছুদিন পরই মেয়েকে নিয়ে যায় তার বাবার বাড়ির লোকজন। গত কয়েক মাস ধরেই বাবার বাড়িতে আছেন লিজা।

আবুল কাশেম আরও জানান, স্ত্রী মাসের পর মাস ধরে বাবার বাড়িতে থাকায় দুশ্চিন্তাগ্রস্ত ছিলেন কাউসার। সম্প্রতি লিজাকে দেখতে শ্বশুরবাড়ি যায় সে। সেখানে যাওয়ার পর গভীর রাতে লিজাকে ভিডিও কলে কোনো এক ছেলের সঙ্গে কথা বলতে দেখে কাউসার। একবুক কষ্ট নিয়ে শ্বশুরবাড়ি থেকে চলে আসে। এরপর আত্মহত্যা করে। আত্মহত্যার আগে নিজের ডায়েরিতে লিজার বিরুদ্ধে অভিযোগের কথা লিখে যায় সে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বরুড়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ইকবাল বাহার মজুমদার জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে কাউসার আলমের লাশ উদ্ধার করে হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়। লাশের পাশ থেকে একটি ডায়েরি উদ্ধার করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পেলে মৃত্যুর আসল কারণ জানা যাবে। এই ঘটনায় অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা।