বিচারকদের আরও সততার সঙ্গে দায়িত্ব পালনের আহ্বান রাষ্ট্রপতির

58

বিচারকদের আরও সততা, নিষ্ঠা ও আন্তরিকতার সঙ্গে দায়িত্ব পালনের আহ্বান জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। দেশের মানুষ যাতে দ্রুত ন্যায়বিচার পায় সে উদ্দেশ্যেই বিচারকদের প্রতি এমন আহ্বান জানান রাষ্ট্রপতি।

মঙ্গলবার, ২ আগস্ট সন্ধ্যায় বাংলাদেশ জুডিসিয়াল সার্ভিস কমিশনের (বিজেএসসি) চেয়ারম্যান ও প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর নেতৃত্বে পাঁচ সদস্যের প্রতিনিধিদল বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতির কাছে কমিশনের বার্ষিক প্রতিবেদন-২০২১ জমা দিতে গেলে তাদের প্রতি এই আহবান জানান তিনি রাষ্ট্রপতি।

জুডিসিয়াল সার্ভিস কমিশন হলো একটি সরকারি কমিশন যা বাংলাদেশে বিচারক নিয়োগ এবং পরীক্ষার জন্য দায়িত্ব পালন করে থাকে। এই কমিশন সিংহভাগ সুষ্ঠু নিয়োগ বজায় রাখার জন্য সুপরিচিত। এর মাধ্যমে বাংলাদেশের বিচার বিভাগে সবচেয়ে মেধাবী শিক্ষার্থীরা নিয়োগ পেয়ে থাকেন। এর অধীনে নিয়োাগ পাওয়া বিচারকরা বাংলাদেশের ন্যায়বিচার প্রদান ব্যবস্থায় একটি যুগোপযোগী ভূমিকা পালন করে থাকেন।

প্রতিনিধিদলের অন্য সদস্যদের মধ্যে প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী ছাড়াও ছিলেন বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার, জেলা ও দায়রা জজ এএইচএম হাবিবুর রহমান ভূঁইয়া, আইন ও বিচার বিভাগের সচিব মো. গোলাম সারওয়ার এবং অ্যাটর্নি জেনারেল আবু মোহাম্মদ আমিন উদ্দিন।

বৈঠকে বিচারকদের পেশাগত দক্ষতা বৃদ্ধিতে তথ্য প্রযুক্তিসহ বিভিন্ন বিষয়ে সময়োপযোগী প্রশিক্ষণের ওপরও গুরুত্বারোপ করেন রাষ্ট্রপতি।

বৈঠকে পাঁচ সদস্যের প্রতিনিধিদল কমিশনের সার্বিক কার্যক্রমের পাশাপাশি দাখিল করা প্রতিবেদনের সারমর্ম রাষ্ট্রপতিকে অবহিত করে। এসময় জুডিসিয়াল সার্ভিস কমিশনের কার্যক্রমে সন্তোষ প্রকাশ করেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। তিনি কমিশনের কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে পরিচালনায় প্রয়োজনীয় সহায়তা প্রদানেরও আশ্বাস দেন।

বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন রাষ্ট্রপতির প্রেস সচিব মো. জয়নাল আবেদীন, সামরিক সচিব মেজর জেনারেল এসএম সালাহ উদ্দিন ইসলাম, রাষ্ট্রপতির কার্যালয়ের সচিব সম্পদ বড়ুয়া ও সচিব (সংযুক্ত) মো. ওয়াহিদুল ইসলাম খান।