বিএনপি-পুলিশ সংঘর্ষে নিহতের ঘটনায় কমিউনিস্ট পার্টির নিন্দা

71
বিএনপি-পুলিশ সংঘর্ষে নিহতের ঘটনায় কমিউনিস্ট পার্টির নিন্দা
বিএনপি-পুলিশ সংঘর্ষে নিহতের ঘটনায় কমিউনিস্ট পার্টির নিন্দা

ভোলায় বিএনপি-পুলিশ সংঘর্ষে নিহতের ঘটনায় প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়েছে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (মার্কসবাদী)।

বৃহস্পতিবার, ৪ আগস্ট সংবাদপত্রে প্রেরিত যৌথ বিবৃতিতে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (মার্কসবাদী)র কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি কমরেড এম এ সামাদ ও সাধারণ সম্পাদক কমরেড সাহিদুর রহমান বলেন, গত ৩১ জুলাই ২০২২ ভোলায় অসহনীয় লোডশেডিং, জ্বালানির অব্যবস্থাপনা ও দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির প্রতিবাদে আহুত সমাবেশের পর মিছিলে গুলি চালায় পুলিশ। এতে পুলিশের গুলিতে নিহত হন স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা আব্দুর রহিম। এছাড়াও পুলিশের গুলিতে আহত হন বেশ কয়েকজন। আহতদের একজন জেলা ছাত্রদলের সভাপতি নুরে আলম গতকাল (৩ আগস্ট, ২০২২) মৃত্যুবরণ করেছেন।

পুলিশের গুলিতে নিহত স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা এবং জেলা ছাত্রদল সভাপতির নিহতের ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে নেতৃদ্বয় বলেন, একটি স্বাধীন দেশে সভা-সমাবেশ করা জনগণের নাগরিক অধিকার, যা সংবিধান দ্বারা সুরক্ষিত। অথচ আমরা দেখলাম বিএনপির মিছিলে প্রথমে পুলিশ বাধা প্রদান করে এবং বাধা উপেক্ষা করে মিছিল এগিয়ে যেতে চাইলে পুলিশ মিছিলে গুলি চালায়। এতে এখন পর্যন্ত ২ জন নিহত এবং বেশ কয়েকজন আহত অবস্থায় মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে। ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশ ছাড়া পুলিশ মিছিলে গুলি করতে পারে না। স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা আব্দুর রহিম এবং জেলা ছাত্রদল সভাপতি নুরে আলমের নিহত হওয়ার ঘটনা একটি রাজনৈতিক হত্যাকাণ্ড। আমরা এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই এবং এর বিচার বিভাগীয় তদন্ত চাই। আমরা স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা আব্দুর রহিম এবং জেলা ছাত্রদল সভাপতি নুরে আলম হত্যাকাণ্ডের বিচার বিভাগীয় তদন্ত এবং জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করছি।