বিআরটিসি বাসের ধাক্কায় ক্ষতিগ্রস্ত পদ্মা সেতুর টোল প্লাজা

258
বিআরটিসি বাসের ধাক্কায় পদ্মা সেতুর টোল প্লাজা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এই দুর্ঘটনায় টোল প্লাজার দুটি ব্যারিয়ার ভেঙে গেছে বলে জানা গেছে। বহল আকাঙিক্ষত পদ্মা সেতু যান চলাচলের জন্য খুলে দেওয়ার প্রথম দিনেই এই দুর্ঘটনা ঘটেছে।
বিআরটিসি বাসের ধাক্কায় পদ্মা সেতুর টোল প্লাজা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এই দুর্ঘটনায় টোল প্লাজার দুটি ব্যারিয়ার ভেঙে গেছে বলে জানা গেছে। বহল আকাঙিক্ষত পদ্মা সেতু যান চলাচলের জন্য খুলে দেওয়ার প্রথম দিনেই এই দুর্ঘটনা ঘটেছে।

বিআরটিসি বাসের ধাক্কায় পদ্মা সেতুর টোল প্লাজা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এই দুর্ঘটনায় টোল প্লাজার দুটি ব্যারিয়ার ভেঙে গেছে বলে জানা গেছে। বহল আকাঙিক্ষত পদ্মা সেতু যান চলাচলের জন্য খুলে দেওয়ার প্রথম দিনেই এই দুর্ঘটনা ঘটেছে।

উদ্বোধনের একদিন পর রোববার, ২৬ জুন ভোরে খুলে দেওয়া হয় পদ্মা সেতু। এদিন ভোর ৫টা ৫০ মিনিট থেকে পদ্মা সেতুর মাওয়া ও জাজিরা প্রান্তের টোল প্লাজাগুলোতে টোল নেওয়া শুরু হয়।

একই দিন দুপুর ২:৩০ মিনিটের দিকে পদ্মা সেতুর মাওয়া প্রান্তের টোল প্লাজায় দুর্ঘটনা ঘটে। বিআরটিসি বাসের ধাক্কায় টোল প্লাজার দুটি ব্যারিয়ার ভেঙে যায়।

পদ্মা সেতুর মাওয়া পয়েন্টে মোট সাতটি টোল বুথ বসানো হয়েছে। মাওয়া টোল পয়েন্টে যানবাহনগুলো থেকে টোল আদায় করতে গড়ে এক মিনিটের কম সময় লাগছে।

অন্যদিকে জাজিরা টোল পয়েন্টে বসানো হয়েছে ছয়টি টোল বুথ। জাজিরা টোল পয়েন্টে প্রতি ৩০ সেকেন্ডে একটি করে যানবাহনের কাছ থেকে টোল আদায় করা সম্ভব হচ্ছে।

এছাড়া একই দিন রাত ৮টার দিকে পদ্মা সেতুর ২৬ ও ২৭ নম্বর পিলারের মাঝামাঝি স্থানে মর্মান্তিক মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় দুই যুবক নিহত হন। নিহত দুজনের একজন মো. আলমগীর হোসেন। তার বয়স মাত্র ২২ বছর। আরেকজনের নাম মো. ফজলু। তার বয়স ২১ বছর।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, চলন্ত মোটরসাইকেলে ভিডিও করার সময় দুর্ঘটনাটি ঘটে। দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত দুজনকে সেখানে উপস্থিত লোকজন একটি মিনি ট্রাকে উঠিয়ে দেন। মিনি ট্রাকটি তাদের ঢাকায় নিয়ে যায়। ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালে নেওয়া হলে রাত সাড়ে ১০টার দিকে তাদের দুজনকেই মৃত ঘোষণা করেন কর্তব্যরত চিকিৎসক।

উল্লেখ্য, পদ্মা সেতুতে সংঘটিত প্রথম বাইক দুর্ঘটনার ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়লে রোববার রাত থেকেই তা ভাইরাল হয়ে যায় নেট দুনিয়ায়।

এদিকে রোববার রাতেই পদ্মা সেতুতে মোটরসাইকেল চলাচলের উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়। রোববার রাতে তথ্য অধিদপ্তরের এক তথ্য বিবরণীতে এই তথ্য জানানো হয়।

তথ্য বিবরণীতে বলা হয়, পদ্মা সেতুতে সোমবার, ২৭ জুন ভোর ৬টা থেকে মোটরসাইকেল চলাচল নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে সেতু বিভাগ। তথ্য বিবরণীতে আরো বলা হয়, পরবর্তী নিদের্শ না দেওয়া পর্যন্ত পদ্মা সেতুতে মোটরসাইকেল চলাচল বন্ধ থাকবে।

সেতু বিভাগ সূত্রে জানা যায়, পদ্মা সেতু খুলে দেওয়ার পর থেকেই সেখানে মোটরসাইকেল চলাচল মাত্রাতিরিক্ত হারে বৃদ্ধি পায়। ঝুঁকিপূর্ণ ও বেপরোয়া হয়ে ওঠেন মোটরসাইকেল চালকরা। এ কারণে যে কোনো সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনার আশঙ্কা করা হচ্ছে। তাই সোমবার থেকে পদ্মা সেতুর ওপর দিয়ে মোটরসাইকেল চলাচল বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।