বরিশাল জেলা আইনজীবী সমিতিতে শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত

95

খোকন হাওলাদার, বরিশাল : ঐতিহ্যবাহি বরিশাল জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচন উৎসবমূখর ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

বৃহস্পতিবার (১০ জানুয়ারী) সকাল ৯ থেকে বিকেল ৪ টা পর্যন্ত চলবে এ ভোট গ্রহন। ভোট প্রদান সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ করতে ইতিমধ্যে সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে নির্বাচন কমিশন। নির্বাচন কমিশনের পাশাপাশি সুষ্ঠু ভোটের বিষয়ে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন আওয়ামী ও বিএনপি সমর্থিত দুই প্যানেলের প্রার্থীরা। এবারের নির্বাচনে ১১ পদের বিপরীতে দুই প্যানেলে ২২ জন এবং সভাপতি হিসাবে একজন স্বতন্ত্র প্রার্থী নির্বাচনে প্রতিদ্বন্ধীতা করছেন।

সকাল থেকেই আওয়ামী লীগ ও বিএনপির সমর্থিত দুই দলের আইনজীবী সমর্থকদের জন্য দলীয় অঙ্গ সংগঠনের জন্য তাদের দলীয় আইনজীবী সহ পরিচিত আইনজীবীদের কাছে দলের সমর্থকদের জন্য ভোট প্রার্থনা করছেন তারা

বরিশাল আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে ঢাকা থেকে বরিশালে ছুটে আসেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক ও সাবেক স্থানীয় সরকার প্রতিমন্ত্রী এ্যাড, জাহাঙ্গীর কবির নানক, বাংলাদেশ সুপ্রিমকোর্ট বার সদস্য এ্যাড,গোলাম আব্বাস চৌধুরী দুলাল সহ বিভিন্ন আওয়ামী পন্থি আইনজীবী।

অপরদিকে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী আইনজীবী সাবেক সংসদ সদস্য ও কেন্দ্রীয় বিএনপি সাংগঠনিক সম্পাদক বিলকিস জাহান শিরিন, বাংলাদেশ সুপ্রিমকোর্ট বার সদস্য এ্যাড, গোলাম আব্বাস চৌধুরী আলাল।

এছাড়াও নির্বাচন দেখতে ও নিজ নিজ দলীয় প্রার্থীদের উৎসাহ যোগাতে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির জেলা ও মহানগরের নেতৃবৃন্দরা আইনজীবী সমিতি প্রাঙ্গনে অবস্থান নিয়ে একে অপরের সাথে খোস গল্প ও কুশল বিনিময় করছেন।

প্রধান নির্বাচন কমিশনার এ্যাড. আফজালুর করিম বলেন, অবাধ সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্য সব ধরনের ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়েছে। সকলকে একটি শান্তিপূর্ন ভোট উপহার দিতে পারবো। ভোটে দুপুর দেড়টা থেকে ২ টা পর্যন্ত আধাঘন্টা বিরতি থাকবে। এসময়কালে ভোটারদের সুবিদ্বার্থে ৮ টি বুথে চলবে ভোট গ্রহন করা হবে।

অপর নির্বাচন কমিশনার এ্যাড. কাইয়ুম খান কায়সার বলেন, বরিশাল বার দেশের মধ্যে অন্যতম। এখানে সুষ্ঠুভাবে ভোটাধিকার প্রয়োগ করার জন্য নির্বাচন কমিশন অতীতের মতো এবারেও সবরকমের প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে। আমরা শান্তিপূর্ণ এই নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য প্রার্থী ও সকল আইনজীবীদের সহায়তা কামনা করছি।

নির্বাচন কমিশনার এ্যাড. রফিকুল ইসলাম ঝন্টু বলেন, একটি সুষ্ঠু ও গ্রহন যোগ্য নির্বাচন উপহার দিতে নির্বাচন কমিশনের ৯ সদস্য দিনরাত পরিশ্রম করেছি। আশা করছি সবার গ্রহনযোগ্য একটি নির্বাচন উপহার দিতে সক্ষম হবো। তিনি বলেন, নির্বাচনে মোট ৯৭৫ জন ভোটার রয়েছে। পূর্বের নির্বাচনে ৭০ থেকে ৭৫ ভাগ ভোট গ্রহন হয়েছে। এবারও একই পরিমান ভোট পড়বে। তবে করোনা পরিস্থিতির কারনে ঢাকায় অবস্থান করা অন্তত ২ শতাধিক ভোটারের উপস্থিতি নিয়ে শংকা রয়েছে। সে কারনে এবার একটু কম ভোট হতে পারে।

আইনজীবী সমিতির নিয়মের বেড়াজালে প্যানেল হিসেবে স্বীকৃতি দেয়া হচ্ছে না। তবে সভাপতি পদের তিন প্রার্থীদের মধ্যে বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের সভাপতি প্রার্থী এ্যাড. লস্কর নুরুল হক, জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের সভাপতি প্রার্থী এ্যাড. এসএম সাদিকুর রহমান লিংকন ও স্বতন্ত্র প্রার্থী এ্যাড. একেএম আলমগীর হোসেন। সহ-সভাপতির দুই পদে রয়েছেন অসীম কুমার বাড়ৈ, মোস্তাফিজুর রহমান নওশের, বিষ্ণুপদ মুখার্জী ও সৈয়দ মাসুম মিয়া রেজা। সাধারন সম্পাদকের ১টি পদের বিপরীতে প্রতিদ্বন্ধীতা করছেন বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের বর্তমান সাধারন সম্পাদক এ্যাড. রফিকুল ইসলাম খোকন ও জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের আবুল কালাম আজাদ ইমন। অর্থ সম্পাদকের ১টি পদের বিপরীতে প্রতিদ্বন্ধীতা করছেন সাইফুল ইসলাম মোল্লা ও আঃ মালেক। যুগ্ম সম্পাদকের ২টি পদের বিপরীতে প্রতিদ্বন্ধীতা করছেন জাহিদুল ইসলাম পান্না, বিউটি সুলতানা, কাজী আবুল কালাম আজাদ ও হুমায়ুন কবির খান-০৩। নির্বাহী সদস্যর ৪টি পদের বিপরীতে প্রতিদ্বন্ধীতা করছেন শাহিন উদ্দিন মিয়া, আনোয়ার হোসেন বাচ্চু, আর্শিব উদ্দিন শাওন, আতিকুর রহমান খান রাজু, ডায়েজ মোহাম্মদ রিয়াজ, সুমন বাড়ৈ, খন্দকার মোঃ আব্দুস সোবাহান ও মতিউর রহমান সেন্টু।