বঙ্গবন্ধু রেল সেতুর প্রথম স্প্যান দৃশ্যমান

120

মারুফ সরকার,সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি: যমুনা নদীর ওপর বঙ্গবন্ধু সেতুর ৩০০ মিটার উজানে নির্মিত হচ্ছে দেশের সর্ববৃহৎ রেল সেতু বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব রেলওয়ে সেতু। মোট ৫০টি পিলারের মধ্যে শেষ হয়েছে ৮টি পিলারের পিয়ার হেড ডালাইয়ের কাজও। এরই মধ্যে নদীর ওপর দৃশ্যমান হয়েছে প্রথম স্প্যান।

উত্তাল যমুনার বুকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব রেলওয়ে সেতুর নির্মাণ ঘিরে চলছে কর্মযজ্ঞ। সিরাজগঞ্জ ও টাঙ্গাইলে নদীর দুই পাড়ে দুটি প্যাকেজে চলছে এই সেতুর নির্মাণকাজ। দেশি-বিদেশি প্রকৌশলী আর কর্মীদের তত্ত্বাবধানে রাতদিন সমান তালে চলছে পাইলিং ও সুপার স্ট্রাকচার বসানোর কাজ। সেতুর পিলারের ওপর টুংটাং শব্দে এগিয়ে চলছে স্প্যান বসানোর কাজও। এরই মধ্যে সেতুর ৪৭ ও ৪৮ নম্বর পিলারের ওপর স্থাপন সম্পন্ন হয়েছে একটি পূর্ণাঙ্গ স্প্যান।

প্রকল্পের টাঙ্গাইল অংশের (ডব্লিউ ডি-১) সুপার স্ট্রাকচারের সাইড চিফ ইঞ্জিনিয়ার আব্দুল খালেক দৈনিক তৃতীয় মাত্রাকে জানান, ভিয়েতনাম ও মিয়ানমার থেকে আমদানি করা উন্নত মানের বিশেষ ধরনের বড় বড় স্টিলের কাঠামো দিয়ে তৈরি করা হচ্ছে স্প্যানগুলো। প্রথম স্প্যান স্থাপন হয়েছে, এখন দ্বিতীয় স্প্যান স্থাপনের কাজ চলছে।

এদিকে প্রকল্প এলাকায় নিয়োজিত দেশি-বিদেশি প্রকৌশলীদের সার্বিক নিরাপত্তা বিধানে রাতদিন কঠোর নজরদারি করা হয় বলে জানান, সিকিউরিটি অফিসার লতিফুর রহমান।
এখন পর্যন্ত সেতুর কাজের অগ্রগতি ৪৫ শতাংশ বলে জানিয়েছেন প্রকল্প পরিচালক। সেই সঙ্গে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যেই এর নির্মাণকাজ শেষ হবে বলেও জানান তিনি।
বঙ্গবন্ধু সেতুর ৩০০ মিটার উজানে নির্মাণাধীন এই রেল সেতু মোট ৫০টি পিলার আর ৪৯টি স্প্যানে তৈরি হবে। যার নির্মাণ ব্যয় ধরা হয়েছে ১৬ হাজার ৭৮০ কোটি টাকা। ২০২০ সালের ২৯ নভেম্বর বঙ্গবন্ধু রেল সেতুর নির্মাণকাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।