পীরগঞ্জে রেকর্ড পরিমাণ জমিতে গম চাষ

102

আসাদুজ্জামান, পীরগঞ্জ ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধিঃ বাংলাদেশের মানুষের প্রধান খাদ্য ফসল হিসেবে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে গম। এবার আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় গত বছরের চেয়ে চলতি মৌসুমে ঠাকুরগাঁয়ের পীরগঞ্জে রেকর্ড পরিমাণ জমিতে গমের বাম্পার ফলনের সম্ভাবনার কথা জানিয়েছে কৃষি সংশ্লিষ্টরা। উপজেলা কৃষি অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, চলতি মৌসুমে একটি পৌরসভা ও দশটি ইউনিয়নে মোট ১০ হাজার ৬শ হেক্টর জমিতে ‘বারি গম—৩০, ৩২ ও ৩৩ (জিংক সমৃদ্ধ) এবং রোগ প্রতিরোধী উচ্চ ফলনশীল জাতের গমের চাষ হচ্ছে।

জানা যায়, গমের চাষ সহজ, সেচ পানির চাহিদা কম, ধানের চেয়ে গম চাষে খরচ কম এবং উৎপাদন কাজে কৃষকের শ্রমও কম লাগে। রোগ ও পোকার আক্রমনের তেমন সমস্যা না থাকার কারণে স্বল্প খরচ আর অল্প সময়ে এ ফসল আস্তে আস্তে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে কৃষকের মাঝে। কৃষকরা জানান, প্রতিবিঘা জমিতে গম চাষে খরচ হয় চার থেকে পাঁচ হাজার টাকা। আর প্রতিবিঘা জমিতে গম পাওয়া যায় ১৪—১৫ মণ। বাজারে গমের চাহিদা থাকায় এবং অধিক লাভজনক ফসল হওয়ায় তারা বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের উদ্ভাবিত উচ্চ ফলনশীল (উফশী) জাতের গম এমনকি বিনিয়োগ কমের কারণে লাভ বেশি হওয়ায় ক্রমান্বয়ে গম চাষে ঝুঁকছেন তারা।

কয়েকজন কৃষক জানান, কৃষি অফিস আমাদের সাথে নিয়মিত যোগাযোগ করছে এবং বিভিন্ন ব্লকে দায়িত্বে থাকা উপ—সহকারী কৃষি কর্মকর্তারা ফসলের যত্নসহ পোকা—মাকড় যেন না লাগে সে বিষয়ে নানা পরামর্শ দিয়ে সহযোগিতা করে আসছেন।

উপজেলা কৃষি সম্পসারণ কর্মকর্তা তানিয়া তাবাসুম বলেন, পীরগঞ্জ উপজেলায় পাচঁটি গম উৎপাদনকারী ব্লক করা হয়েছে। কৃষকের অর্জন মানেই আমাদের অর্জন।এখানে বীজ,শোধন,বীজ সংরক্ষন ফসল সংগ্রহ সহ বিভিন্ন বিষয়ে কৃষকদের প্রশিক্ষন দিয়ে আসছেন তিনি নিজেই । শীষ বের হওয়ার সময় আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে গমের বাম্পার ফলনের সম্ভাবনার কথা জানিয়েছেন তিনি।