পদ্মায় পানি বৃদ্ধিতে ফেরি চলাচল ব্যাহত, ঘাটে যানজট

49

মইনুল হক মৃধা, গোয়ালন্দ প্রতিনিধি : পদ্মায় পানি বৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে। পানি বৃদ্ধির কারণে নদীতে তীব্র স্রোতে ফেরি চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। এতে দৌলতদিয়া ঘাট প্রান্তে ৫ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে যানবাহনের সারি তৈরি হয়েছে।

গোয়ালন্দ উপজেলা পানি উন্নয়ন বোর্ড অফিসের গেজ রিডার (পানি পরিমাপক) সালমা খাতুন জানান, গত কয়েকদিন ধরে পদ্মার পানি বাড়তে শুরু করেছে। আজ সকাল ৬টা পর্যন্ত ২৪ ঘন্টায় ৮ সেন্টিমিটার পদ্মার পানি বৃদ্ধি পেয়েছে। এতে করে পদ্মার পানি ১৫ সেন্টিমিটার বিপদসীমার নিচে রয়েছে।

সরজমিনে বৃহস্পতিবার (২৩ জুন) দুপুর ১২ টায় ঘাটে অবস্থান করে দেখা যায়, ঘাটের জিরো পয়েন্ট থেকে ঢাকা-খুলনা মহাসড়েকর পদ্মার মোড় পর্যন্ত ৫ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে অপনশীল পণ্যবাহী ট্রাকের সারি তৈরি হয়েছে। এরমধ্যে ১ কিলোমিটারে যাত্রীবাহী বাসের সিরিয়াল রয়েছে। তবে যাত্রীবাহী বাস, পণ্যবাহী কাঁচামাল গাড়ি ও ব্যক্তিগত যানবাহনকে অগ্রাধিকারভাবে পার করা হলেও অপনশীল পণ্যবাহী ট্রাকগুলোকে ১৫-১৮ ঘন্টা অপেক্ষা করে ফেরির নাগাল পেতে হচ্ছে।

মংলা বন্দর থেকে খেলনা বোঝাই করে আসা কভার্ডভ্যান চালক বাপ্পি বলেন, রাত ১২ দিকে ঘাটে এসেছি। ১২ ঘন্টা পার হয়ে গেছে এখনো পার হতে পারলাম না। মনে হয় বিকালের আগে পার হতে পারবো না। তিনি আরো বলেন, ঘাট থেকে প্রায় ২ কিলোমিটার দূরে ট্রাকের সিরিয়ালে আটকে আছি। খোলা জায়গায় কোন খাবার হোটেল, টয়লেট না থাকায় প্রচুর কষ্ট হচ্ছে।

হানিফ পরিবহনের যাত্রী সরোয়ার হোসেন বলেন, শুধু আগামীকাল ২৫ জুন পর্যন্ত অপেক্ষা করছি, পদ্মা সেতু চালু হয়ে গেলে তখন আর এ ঘাট দিয়ে যাবো না,তখন ব্রিজ দিয়ে অল্প সময়ের মধ্যে ঢাকা যেতে পারবো। ঘাটে ২ ঘন্টা যাবত বাসের মধ্যে আছি। খুবই খারাপ লাগছে।

(বিআইডব্লিউটিসি) দৌলতদিয়া কার্যালয়ের ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) শিহাব উদ্দিন বলেন, পদ্মার পানি বৃদ্ধি অব্যহত রয়েছে। আজ ৮ সেন্টিমিটার পানি বেড়েছে। প্রতিদিনই পানি বাড়তে শুরু করেছে তারপর আবার তীব্র স্রোতে ফেরি চলাচলে হিমশিম খাচ্ছে চালকেরা। প্রতিটি ফেরি ঘাট থেকে যানবাহন লোড করে পাটুরিয়া ঘাটে পৌছানো পর্যন্ত ১ ঘন্টার বেশী সময় লাগছে। মুলত স্রোতের কারণে ফেরি চলাচলে ধীরগতি হয়েছে। আজ দৌলতদিয়া- পাটুরিয়া নৌপথে ছোট বড় ১৯ টি ফেরি যানবাহন পারাপারে চলাচল করছে। তবে দুর্ভোগ কমাতে যাত্রীবাহী যানবাহন ও কাঁচামালের ট্রাকগুলো অগ্রাধিকার ভিত্তিতে পারাপার করা হচ্ছে।