নিয়ামতপুরে মাঘের বৃষ্টিতে সবজি ক্ষেত নষ্ট বেড়েছে দাম

90

মোঃইমরান ইসলাম, নিয়ামতপুর(নওগাঁ)প্রতিনিধিঃ গত দুই দিনে মাঘের বৃষ্টির কারণে নওগাঁর নিয়ামতপুর উপজেলার ছোট বড় হাট বাজারে বেড়েছে সবধরনের সবজির দাম। সপ্তাহের ব্যবধানে প্রকারভেদে প্রতিকেজি সবজির দাম বেড়েছে ১০ থেকে ১৫ টাকা। সবজির দাম বাড়ায় বিপাকে পড়েছে খেটে খাওয়া নিম্ন আয়ের মানুষরা।

বুধবার উপজেলার বিভিন্ন হাট বাজার ঘুরে দেখা যায়, সপ্তাহের ব্যবধানে বাড়তি দামে বিক্রি হচ্ছে সব ধরনের সবজি। বিক্রেতাদের অভিযোগ, সরবরাহ কম থাকায় দাম বেড়েছে।বিভিন্ন হাট বাজারে গত সপ্তাহে যে বেগুন কেজি প্রতি বিক্রি হয়েছে ২০- ২৫ টাকায়, এখন ১০-১৫ টাকা বেড়ে বিক্রি হচ্ছে ৩৫- ৪০ টাকায়। এছাড়াও শসা ৩০-৪৫ টাকায়, গাজর ২০-৩০ টাকায়, ফুলকপি ২৫-৩৫ টাকায়, টমেটো ৩০- ৪০ টাকায়, কাঁচা মরিচ ৪০-৫৫ টাকায়, সিম ২০-৩০ টাকায়, করলা দেশি জাতের ৮০-১০০ টাকায়, লাউ ২০-২৫ টাকায়, বাঁধাকপি ২০- ২৫ টাকায়, মটরশুঁটি ২৫-৪০ টাকা কেজি দরে বিক্রয় হচ্ছে। বাজারে সবচেয়ে কম দামের মধ্যে পাওয়া যাচ্ছে আলু। দেশি আলু প্রকারভেদে ১২-১৬ টাকায়, ডায়মন্ড জাতের আলু ৮-১২ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

এদিকে দফায় দফায় সয়াবিন তেলের দাম বাড়ায় সাধারণ ক্রেতা পড়েছেন বেকায়দায়।সবজি বিক্রেতারা জানান, বৃষ্টির কারণে ক্ষেতে সব ধরনের সবজি পঁচে নষ্ট হয়েছে। মোকামে সরবরাহ কম থাকায় সবজির দাম বেশি। তাই আমাদের বেশি দামে সবজি কিনে আনতে হচ্ছে। এ জন্য বেশি দামে বিক্রি করতে হচ্ছে।ক্রেতারা জানান, সপ্তাহ খানেক আগে হাট বাজারে সবজির দাম অনেকটা কম ছিলো।

বৃষ্টি হওয়ার পর থেকে হাট বাজারগুলোতে হঠাৎ সব ধরনের সবজির দাম বেড়েছে।এদিকে কাঁচামাল ব্যবসায়ীরা জানান, টানা দুই দিনের বৃষ্টির কারণে বিভিন্ন স্থানে শীতকালীন সবজি নষ্ট হয়েছে। ফলে বাজারে সব সবজির সরবরাহ কমেছে। চাহিদার তুলনায় সরবরাহ কমে যাওয়ায় সব ধরনের সবজির দাম বেড়েছে। আর কিছু দিন গেলে দাম আবারও কমবে বলেও জানান ব্যবসায়ীরা।