নিয়ামতপুরে চালের বাজার কমেছে স্বস্তি এসেছে নিম্নবিত্ত পরিবারে

53
নিয়ামতপুরে চালের বাজার কমেছে স্বস্তি এসেছে নিম্নবিত্ত পরিবারে
নিয়ামতপুরে চালের বাজার কমেছে স্বস্তি এসেছে নিম্নবিত্ত পরিবারে

মোঃ ইমরান ইসলাম,নিয়ামতপুর(নওগাঁ)প্রতিনিধিঃ নওগাঁর নিয়ামতপুরে স্বস্তি ফিরিয়ে চালের বাজারে এতে মধ্যবিত্ত ও নিন্মবিত্ত পরিবারের মাঝে কিছুটা হলেও স্বস্তি এসেছে। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, কয়েক সপ্তাহ ধরে নিয়ামতপুরের চালের বাজার ছিল অস্থির। ইরি বোরো মৌসুমে এ চালের বাজার বৃদ্ধি নিয়ে জনমনে নানা প্রশ্ন ওঠে।

অসৎ ব্যবসায়ীরা ধান চাল মজুত করায় এ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। সরকারের দ্রুত কঠোর হস্তক্ষেপে চালের বাজার এখন নিয়ন্ত্রনে। স্থানীয় চাল ব্যবসায়ীরা জানান, অসৎ ব্যবসায়ী, মজুতদার ও চাল মিলারদের কারসাজিতেই চালের বাজার অস্থির হয়ে ওঠে। খাদ্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে সংশ্লিষ্ট প্রশাসন মজুতদারীদের গুদামে অভিযান ও বাজার মনিটরিং শুরু করেছে। এ অভিযান অব্যাহত থাকায় চালের বাজার কমতে শুরু করেছে।কিছুটা নিম্নমুখী হওয়ায় সাধারন ক্রেতাদের মধ্যে ফিরেছে স্বস্তি।

সকল প্রকার চাল কেজিতে ২/৩ টাকা দাম কমেছে। বর্তমানে প্রতি বস্তা (৫০ কেজি) চাল গড়ে ১৩০ টাকা থেকে ১৫০ টাকা কমেছে। এ অভিযান অব্যাহত থাকায় অনেক অসৎ মজুতদার তাদের মজুত করা ধান চাল বাজারে ছাড়ছে। এ কারণে এ ধান চালের দাম কমতে শুরু করেছে। তবে ব্যবসায়ীদের বেশি দামে কেনা চাল এখন লোকসান গুনতে হচ্ছে। এদিকে অসৎ ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হলে চালের বাজার আরো কমে আসবে বলে অনেকেই এ অভিমত ব্যক্ত করেছেন।