নাপা সিরাপ নয়, মায়ের পরকীয়ার বলি আশুগঞ্জের দুই শিশু

1420

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে বহুল আলোচিত দুই শিশু ইয়াছিন ও মোরসালিন নাপা সিরাপ খেয়ে মারা যায়নি। বিষ মেশানো মিষ্টি খাইয়ে তাদের হত্যা করা হয়েছে। পরকীয়ার জেরে নিজের দুই সন্তানকে হত্যা করেছে চালকলের শ্রমিক লিমা বেগম। সন্তান হত্যার অভিযোগে ইতোমধ্যে নিহত ইয়াছিন ও মোরসালিনের মা লিমা বেগমকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। নিজের দুই সন্তানকে হত্যা করার কথা স্বীকারও করেছেন লিমা বেগম। এই ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে লিমার প্রেমিক সফিউল্লাকেও গ্রেপ্তারের জন্য জোর তৎপরতা চালাচ্ছে পুলিশ।

বুধবার, ১৬ মার্চ নিহত ইয়াছিন ও মোরসালিনের বাবা ইসমাঈল হোসেন বাদী হয়ে লিমা বেগম ও তার পরকীয়া প্রেমিক সফিউল্লার বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলার হওয়ার পর লিমাকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়।

বৃহস্পতিবার, ১৭ মার্চ দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোল্লা মোহাম্মদ শাহীন জানান, ঘাতক লিমা বেগম আশুগঞ্জের একটি চালকলের শ্রমিক। তার স্বামী ইসমাঈল হোসেন ইটভাটার শ্রমিক। আশুগঞ্জের ওই চালকলে কাজ করতে গিয়ে সেখানকারই শ্রমিক সফিউল্লার সঙ্গে লিমা বেগমের পরিচয় হয়। ধীরে ধীরে তারা প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন। এক পর্যায়ে তারা দুজন একে অপরকে বিয়ে করারও পরিকল্পনা করেন।

পরকীয়া প্রেমিককে বিয়ের পথ সুগম করতে তার সঙ্গে মিলে নিজের দুই শিশু সন্তানকে হত্যার পরিকল্পনা করেন লিমা বেগম। পরিকল্পনা অনুযায়ী মিষ্টির সঙ্গে বিষ মিশিয়ে খাইয়ে ঠান্ডা মাথায় নিজের দুই সন্তানকে হত্যা করেন লিমা বেগম। হত্যাকান্ডটিকে ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার হীন উদ্দেশ্যে নাপা সিরাপ খাওয়ানোর পর দুই শিশুর মৃত্যু হয়েছে বলে খবর রটানো হয়।