নওগাঁয় সরকারি ঔষধ বিক্রির সময় আটক ২

80

নওগাঁ প্রতিনিধি : নওগাঁর মান্দায় কমিউনিটি ক্লিনিকের বরাদ্দকৃত ওষুধ কালোবাজারে বিক্রির সময় দুইজনকে আটক করেছে থানা পুলিশ। সোমবার ( ২৭জুন) সন্ধ্যায় দিকে উপজেলার ফেরিঘাট ব্রিজের পূর্বপাশে সিমেন্টের একটি গোডাউন থেকে ৩ কার্টুন সরকারি ওষুধসহ তাঁদের আটক করা হয়।

আটকরা হলেন, সোহেল রানা (৩২) ও মাহাবুর হোসেন (৪৮)। এদের মধ্যে সোহেল রানা উপজেলার তুড়ুকগ্রাম কমিউনিটি ক্লিনিকে হেলথ কেয়ার প্রোভাইডার (সিএইচসিপি) পদে কর্মরত আছেন। তিনি তুড়ুক গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা সালাউদ্দিনের ছেলে।

অন্যদিকে আটক মাহাবুর রহমান দক্ষিণ পারইল গ্রামের মৃত সাখাওয়াত হোসেন মণ্ডল ছেলে। তাঁর সিমেন্টের গোডাউন থেকে কমিউনিটি ক্লিনিকের বরাদ্দকৃত ৩ কার্টুন ওষুধ উদ্ধার করে পুলিশ।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, আটক সোহেল রানা তুড়ুকগ্রাম কমিউনিটি ক্লিনিকে সিএইচসিপি ( কমিউনিটি হেলথ প্রাভাইডার)  পদে কর্মরত আছে। শনিবার ( ২৫জুন) ওই ক্লিনিকের অনুকুলে বরাদ্দকৃত ওষুধ হাসপাতালের ষ্টোররুম থেকে উত্তোলন করেন সিএইচসিপি সোহেল রানা।

মান্দা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহিনুর রহমান বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সন্ধ্যার দিকে ফেরিঘাটের পূর্বপাশে সিমেন্টের একটি গোডাউনে ইউএনওর উপস্থিতিতে অভিযান চালিয়ে কমিউনিটি ক্লিনিকের ওষুধগুলো উদ্ধার করা হয়। এসময় ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে সিএইচসিপি সোহেল রানা ও গোডাউন মালিক মাহাবুর রহমানকে আটক করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

মান্দা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিকল্পনা কর্মকর্তা বিজয় কুমার রায় বলেন, কমিউনিটি ক্লিনিকের ওষুধগুলো সিমেন্টের ওই গোডাউনে কীভাবে গেল তা যাচাই-বাছাই করে দেখা হচ্ছে। এ বিষয়ে সিএইচসিপি সোহেল রানার বিরুদ্ধে সাময়িক বরখাস্তের সুপারিশ করে পত্র দেওয়া হবে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে।