ধূমপানের প্রতি চাহিদার ব্যাপ্তি মাত্র ৫ মিনিট, নেশা কাটায় ব্যায়াম

0
223
Spread the love

ধূমপান স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর, ধূমপান ক্যান্সারের কারণ, ধূমপান মৃত্যু ঘটায়- সিগারেটের প্যাকেটে এমন সব সংবিধিবদ্ধ সতর্কীকরণ বিজ্ঞপ্তি দেখেও মানুষ ধূমপান করে। এ যেন রবি ঠাকুরের সেই গানের কথার মতো- ‘আমি জেনে শুনে বিষ করেছি পান’। অথচ গবেষণায় দেখা গেছে, ধূমপানে আসক্ত একজন ব্যক্তির ধূমপানের প্রতি চাহিদা মাত্র পাঁচ মিনিট ধরে থাকে। অর্থাৎ ধূমপান করার নেশা জাগার মাত্র পাঁচ মিনিটের পরই তা গায়েব হয়ে যায়। এই পাঁচ মিনিট যদি কেউ কষ্ট করে ধৈর্য্য ধারণ করতে পারেন কিংবা মনটাকে অন্যদিকে ঘুরিয়ে দিতে পারেন তাহলেই ধূমপানের মরণনেশাকে বিদায় জানানো সম্ভব। আর এক্ষেত্রে দারুণ কার্যকর ভূমিকা রাখতে পারে খুবই সহজ কিছু ব্যায়াম।

ধূমপান এমন এক নেশা বা বদভ্যাস যা থেকে বের হয়ে আসাটা মোটেও সহজ নয়। তবে মন থেকে চাইলে এই বদভ্যাসের দাসত্ব থেকে মুক্তি পেতে পারেন যে কেউই। আর এক্ষেত্রে সহজ কিছু ব্যায়াম দারুণ কাজে দিতে পারে। তাহলে জেনে নেওয়া যাক এরকম সহজ কয়েকটি ব্যায়াম সম্পর্কে।

বিশেষজ্ঞদের মতে, ধূমপানের নেশা কাটাতে ভীষণ কার্যকর অ্যারোবিক ব্যায়াম যা খুব সহজেই ধূমপানের নেশা কাটিয়ে দিতে পারে। সাধারণত ৫ মিনিট ধরে ধূমপানের তীব্র নেশা অনুভব করেন একজন ধূমপায়ী। ওই সময়টাতে অ্যারোবিক ব্যায়াম করলে নেশা কেটে যায়। তাই যখনই ধূমপান করতে তীব্র ইচ্ছে হবে তখনই অ্যারোবিক ব্যায়ামে ডুব দিয়ে ভুলে যান সেই ইচ্ছের কথা।

ধূমপান ছাড়তে চাইলে শুরুর দিকে সপ্তাহে অন্তত তিনদিন নিয়ম করে ব্যায়াম করতে হবে।
এই তিনদিন ফুল বডি ওয়ার্কআউটের পাশাপাশি কার্ডিও সেশনও করতে হবে। ধূমপানের বদভ্যাস থেকে বেরিয়ে আসতে চাইলে সাঁতার, দৌড়, লাফালাফি ও দড়িলাফ খুব কাজে দেবে। এভাবে নিয়ম করে ব্যায়াম চালিয়ে গেলে একদিন নিশ্চয়ই আপনি ধূমপানের আসক্তি থেকে মুক্ত হতে পারবেন।

হাঁটাহাঁটিকে সর্বোত্তম ব্যায়াম হিসেবে বিবেচনা করা হয়। কেউ নিয়মিত হাঁটাহাঁটি করলে শরীর ফিট থাকবেই। বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, ধূমপানের মরণনেশা থেকে দূরে থাকতে চাইলে প্রতিদিন অন্তত ৭ থেকে ৮ হাজার কদম হাঁটা উচিৎ একজন ধূমপায়ীর। ধূমপানের নেশা কাটানোর অন্যতম সহজ উপায় এটা।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে