ধামরাইয়ে বিদ্যা কলা ও শুদ্ধতার দেবী শ্রীশ্রী সরস্বতী পূজোৎসব স্বল্পপরিসয়ে উদযাপিত

60

রনজিত কুমার পাল (বাবু) ধামরাই (ঢাকা) প্রতিনিধি : সনাতনধর্মাবলম্বী হিন্দু সম্প্রদায়ের অন্যতম ধর্মীয় উৎসব শ্রীশ্রী সরস্বতী পূজা। সরস্বতী দেবী হলেন বিদ্যা,কলা ও শুদ্ধতার প্রতীক।বিশেষ করে বিদ্যার্থী শিক্ষার্থী ছাত্র-ছাত্রীদের সরস্বতী পূজা উদযাপন করে থাকে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, পাড়া মহল্লায় বিভিন্ন সংগঠন ও সনাতনধর্মাবলম্বী হিন্দু সম্প্রদায়ের বাড়িতে বাড়িতে এ’পূজার আয়োজন করা হয়।শাস্ত্র মতে- চতুর্ভুজা ব্রহ্মার মুখ থেকে অভিভূতা শুভ্রবর্ণা বাণীধারিনী চন্দ্রের শোভাযুক্ত দেবীই হলেন সরস্বতী।  

সরস্বতী পূজা প্রতিবছর মাঘ মাসের শুক্লপক্ষের পঞ্চমী তিথিতে সরস্বতী পূজার আয়োজন করা হয়ে থাকে।তারই ধারাবাহিকতায় ঢাকার ধামরাই উপজেলায় প্রায় পাঁচশতাধিক স্হানে প্রতিমা তৈরি করে শ্রীশ্রী সরস্বতী পূজোৎসব উদযাপিত হয়েছে। এরমধ্যে ধামরাই পৌরসভার মূলকেন্দ্রস্হল ধামরাই বড় বাজার ঐতিহ্যবাহী সামাজিক সাংস্কৃতিক ও ক্রীড়া সংগঠন তরঙ্গ ক্লাব এর উদ্যোগে এবারও বড় বাজার সার্বজনীন শ্রীশ্রী দুর্গা মন্দিরে শ্রীশ্রী সরস্বতী পূজা উদযাপন করা হয় এছাড়াও বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে,পাড়ার বিভিন্ন ক্লাবে ও বিভিন্ন সংগঠন ও সনাতনধর্মাবলম্বী হিন্দু সম্প্রদায়ের বাড়িতে সরস্বতী পূজা উদযাপন করা হয়েছে। 

কায়েতপাড়াস্হ যদুনাথ শরৎ চন্দ্র বিদ্যাপীঠ, রক্তজবা তরুণ সংঘ  সংগঠন সহ বিভিন্ন সংগঠন, ধামরাই হার্ডিঞ্জ সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ,ধামরাই উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়,ধামরাই সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজ সরকারি – বেসরকারি প্রতিষ্ঠান  সহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আজ ৫ই ফেব্রুয়ারি শনিবার পঞ্চমী তিথিতে সরস্বতী দেবীর পূজা, আরাধনা করে তার চরণে পুষ্পাঞ্জলি দিয়ে তার ভক্তরা  এ’পূজোৎসব উদযাপন করা হয়েছে। 

বৈশ্বিক মহামারী করোনাভাইরাস কোভিড-১৯ প্রাদুর্ভাব পর থেকে এবারও সরকারের স্বাস্থ্য বিধি মেনে এ’পূজোৎসব উদযাপন করা হচ্ছে বলে জানান শ্রীশ্রী যশোমাধব মন্দির পরিচালনা কমিটির সহ-সভাপতি ও বড় বাজার সার্বজনীন শ্রীশ্রী দুর্গা মন্দির কমিটি ও তরঙ্গ ক্লাব পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি ডাঃ অজিত কুমার বসাক সহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ। 
উল্লেখ্য- শ্রীশ্রী সরস্বতী পূজার দিনে সনাতনধর্মাবলম্বী হিন্দু সম্প্রদায়ের শিশুদের হাতেখড়ি,ব্রাহ্মণভোজন,ও পিতৃতর্পণ করা হয়ে থাকে।