চাকরি পেলেন ‘ভাতের বিনিময়ে পড়াতে চাওয়া’ সেই যুবক

9809

‘শুধুমাত্র দু-বেলা ভাতের বিনিময়ে পড়াতে চাই’ এমন শিরোনামে বিজ্ঞাপন দেওয়া আলমগীর কবিরকে বুধবার চাকরি দেওয়ার আশ্বাস দিয়েছিলেন বগুড়ার পুলিশ সুপার সুদীপ কুমার চক্রবর্ত্তী। পরে পুলিশ সুপারের উপস্থিতিতে আলমগীরের হাতে রিটেইল চেইন শপ ‘স্বপ্ন’ এর ‘রিসার্চ অ্যাসোসিয়েট’ পদের নিয়োগপত্র তুলে দেওয়া হয়।

আজ বুধবার সন্ধ্যায় বগুড়ার পুলিশ সুপার (এসপি) সুদীপ কুমার চক্রবর্ত্তী বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান,
আমি উদ্যোগ নিয়ে আলমগীর কবিরের চাকরির ব্যবস্থা করেছি। রিটেইল চেইন শপ ‘স্বপ্ন’-এর পুলিশ প্লাজা বগুড়া ব্রাঞ্চে তাকে ‘রিসার্চ অ্যাসোসিয়েট’ পদে চাকরি দেন স্বপ্নের নির্বাহী পরিচালক সাব্বির হাসান নাসির। পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে সুদীপ কুমার চক্রবর্ত্তীর উপস্থিতিতে আলমগীর কবিরের হাতে নিয়োগপত্র হস্তান্তর করেন স্বপ্নের পরিচালক সামসুদ্দোহা শিমুল।বগুড়ার সরকারি আজিজুল হক কলেজ থেকে রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগে অনার্স ও মাস্টার্স পাস করেছেন আলমগীর। ২০২০ সালে মাস্টার্স পাসের পর থেকে চাকরি খুঁজছেন তিনি। কিন্তু প্রত্যাশা অনুযায়ী চাকরি তিনি পাননি।

চাকরি পাচ্ছেন 'দু-বেলা ভাতের বিনিময়ে পড়াতে চাওয়া' সেই আলমগীর -  Beanibazar View24

এ জন্য পেশায় ‘বেকার’ উল্লেখ করে বগুড়া শহরের জহুরুল নগরের আশেপাশের এলাকায় প্রথম থেকে দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের গণিত ছাড়া সব বিষয় পড়ানোর জন্য তিনি বিজ্ঞাপনটি দেন। 

বিজ্ঞাপনের ওই বিষয়টি ভাইরাল হওয়ার পর জেলা পুলিশ তার খোঁজ করে। পুলিশ জানায়, মূলত মানবিক দিক বিবেচনায় আলমগীরের খোঁজ করা হয়।