Logo
শনিবার, ২২ জানুয়ারি, ২০২২ | ৮ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

চলার পথ যত কণ্টকাকীর্ণ হোক, এগিয়ে যাব : প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশের সময়: ১০:৫১ পূর্বাহ্ণ - সোমবার | জানুয়ারি ৩, ২০২২

তৃতীয় মাত্রা

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, চলার পথ যত কণ্টকাকীর্ণ হোক, যত রক্তক্ষরণ হোক, সব পদদলিত করে আমরা বাংলাদেশের জনগণের ভাগ্য পরিবর্তনে এগিয়ে যাব—এটিই হচ্ছে আমার প্রতিজ্ঞা।

রোববার সকালে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলনকেন্দ্রে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তিনি এই কথা বলেন। গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে অনুষ্ঠানে যুক্ত হন শেখ হাসিনা।

জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদে স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে বাংলাদেশের উত্তরণের স্বীকৃতি উপলক্ষে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

সরকার প্রধান বলেন, আমি জানি— স্বাধীন চেতা হলে অনেক বাধা আসে। আর দেশকে ভালোবেসে শুধু দেশের মানুষের কথা চিন্তা করে যারা পথ চলে, তাদের পথ চলা কখনও সহজ হয় না। অনেক বাধা অতিক্রম করতে হয়। চলার পথ যতই অন্ধকারাচ্ছন্নই হোক না কেন, যত বন্ধুর হোক না কেন, যত কণ্টকাকীর্ণ হোক, সেখানে আমরা থেমে থাকব না। অন্তত আমি এই প্রতিজ্ঞা করছি থেমে থাকব না।

প্রধানন্ত্রী বলেন, ‘যে কোনো সময় আমি জানি অনেক বুলেট, বোমা ও গ্রেনেড আমার জন্য অপেক্ষা করে থাকে। আমি কখনও সেগুলো নিয়ে পরোয়া করি না। আমি জনগণের ভাগ্য পরিবর্তনের জন্য কাজ করি।’

তিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাংলাদেশকে এগিয়ে নিতে যে লক্ষ্য স্থির করেছিলেন, সেই লক্ষ্য অর্জনে এগিয়ে যাব।

অনুষ্ঠানে রবার্ট ফ্রস্টের কবিতা থেকে উদ্ধৃত করে শেখ হাসিনা বলেন, দ্য উডস আর লাভলি, ডার্ক অ্যান্ড ডিপ, বাট আই হ্যাভ প্রমিজেস টু কিপ, অ্যান্ড মাইলস টু গো বিফোর আই স্লিপ, অ্যান্ড মাইলস টু গো বিফোর আই স্লিপ।

তিনি বলেন, আমরা বিজয়ী জাতি। মহান মুক্তিযুদ্ধে বিজয় অর্জন করেছি। বিশ্বদরবারে বিজয়ী জাতি হিসেবে সম্মান নিয়ে মাথা উঁচু করে আমরা চলব।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, অন্তত আমি তাদের এটুকু আহ্বান করব যে— দেশকে ভালোবাসবে, মানুষকে ভালোবাসবে এবং দেশের মানুষের জন্য কাজ করবে।… সেখানেই শান্তি, সেখানেই অগ্রগতি, সেখানেই উন্নতি সেখানেই স্বস্তি।

শেখ হাসিনা বলেন, চিরদিন কেউ বাঁচে না। কিন্তু যেই কাজ আমরা করে গেলাম, সেই গতি যেন হারিয়ে না যায়, চলার গতি যেন অব্যাহত থাকে, বাংলাদেশ যেন এগিয়ে যায়; সেটিই আমরা চাই।

 

 

Read previous post:
দুই ডোজ টিকা পেয়েছে ৪ লাখ ৩৯ হাজার ৯৬৪ জন শিক্ষার্থী

ফাইল ছবি তৃতীয় মাত্রা সারা দেশে এখন পর্যন্ত ৩৭ লাখ ৯৭ হাজার ৫৩৪ স্কুল শিক্ষার্থী টিকার প্রথম ডোজ পেয়েছে। আর...

Close

উপরে