গাইবান্ধায় ঘোড়া দিয়ে জমি চাষ করা হচ্ছে

104

এস,এম শাহাদৎ হোসাইন, গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি : আধুনিক যুগেও নানাভাবে হালচাষ করা হচ্ছে। গরু দিয়ে হালচাষ অনেকটাই বিলুপ্তির পথে। গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলার মোখলেছুর রহমান নামে এক কৃষক ঘোড়া দিয়ে জমি চাষ করে ভিন্নমাত্রা যোগ করেছে।

জানা যায়,পলাশবাড়ী উপজেলার মহদীপুর ইউনিয়নের উত্তর দুর্গাপুর গ্রামের মোখলেছুর রহমান ঘোড়ার গাড়ি দিয়ে মালামাল পরিবহন করতেন। জমি চাষের চাহিদা বেশী হওয়ায় সংসারে আয়ের একমাত্র উৎস ঘোড়া দিয়ে হালচাষ শুরু করেন। নিজের কোনো জমি না থাকায় টাকার বিনিময়ে অন্য মানুষের জমি চাষ করেন তিনি। মোখলেছুর রহমান বলেন, ঘোড়াকে আমি বেশ ভালোবাসতাম। প্রথমে শখ করে একটি ঘোড়া ক্রয় করি। পরে ঘোড়ার গাড়ি তৈরি করে মালামাল পরিবহন শুরু করি। চিন্তা করলাম ঘোড়া দিয়ে যদি গাড়ি চালানো যায়, তবে হালচাষও করা যাবে।

পরে আরও একটি ঘোড়া ক্রয় করে প্রশিক্ষণ দিয়ে জমি চাষ শুরু করি। প্রতিদিন ৩ থেকে সাড়ে ৩ বিঘা জমি চাষ করতে পারি। এতে আমার এক হাজার থেকে দেড় হাজার টাকা আয় হয়। জমিতে হালচাষ বা মই দিয়ে প্রতিদিন যা পাই তা দিয়ে সংসার ভালোই চলে। ঘোড়া দুটির খাবার খরচ হয় দৈনিক ৫০০ টাকা। কৃষক হযরত আলী বলেন, এলাকায় গরুর হাল নেই। পাওয়ার টিলার সময়মতো পাওয়া যায় না। পাওয়ার টিলারের চেয়ে ঘোড়া দিয়ে চাষ ভালো হয়।