ক্রয়ডন বারার মেয়র শেরওয়ানকে ওসমানী বিমানবন্দরে সংবর্ধনা

87
ক্রয়ডন বারার মেয়র শেরওয়ানকে ওসমানী বিমানবন্দরে সংবর্ধনা
ক্রয়ডন বারার মেয়র শেরওয়ানকে ওসমানী বিমানবন্দরে সংবর্ধনা

লন্ডনের ক্রয়ডন বারার মেয়র সিলেটের জকিগঞ্জের কৃতিসন্তান ও জকিগঞ্জ ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশন ইউকের সভাপতি শেরওয়ান চৌধুরী বাংলাদেশ সফরে এসেছেন।
শুক্রবার রাত ৮টার দিকে ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমান বন্দর সিলেটের ভিআইপি লাউঞ্ছে এসে পৌঁছলে এসময় তাঁকে ও জকিগঞ্জ ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক আবুল হোসেন ও সাংবাদিক রহমত আলীকে স্বাগত জানান সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী, জকিগঞ্জ পৌরসভার মেয়র আব্দুল আহাদ, রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব মাহবুবুল হক চৌধুরী ও জকিগঞ্জ সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আফতাব উদ্দিন।

এসময় মেয়র শেরওয়ান চৌধুরীকে তাঁর নিজ জন্মভূমি জকিগঞ্জের মানুষ উষ্ণ সংবর্ধনা প্রদান করে। প্রথমেই জকিগঞ্জ পৌরসভার মেয়র ও কাউন্সিলররা ফুল দিয়ে বরণ করে নেন। এরপর জকিগঞ্জ সদর ইউনিয়নসহ বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের পক্ষ থেকে ফুল দিয়ে বরণ করা হয়।

সংবর্ধনার সময় এক সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী। তিনি বলেন, বিদেশের মাঠি থেকে শুধু আমরা রেমিটেন্স পাচ্ছি না। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে বাংলাদেশ তথা সিলেটীরা আজ নেতৃত্ব দিচ্ছেন। এটা আমাদের জন্য অত্যন্ত গৌরবের। তেমনি শেরওয়ান চৌধুরী হলেন তাঁদেরই একজন।

সংবর্ধনার জবাবে লন্ডনের ক্রয়ডন বারার মেয়র শেরওয়ান চৌধুরী বলেন, আমি আবেহ আপ্লুত। নিজ জন্মভূমিতে এসে আমাকে যেভাবে সম্মান দেখিয়েছেন আপনাদের কাছে আমি ঋণী হয়ে গেলাম। বিশেষ করে তিনি জকিগঞ্জের মানুষের কথা বারবার উল্লেখ করেন।

বিমান বন্দরে এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, জকিগঞ্জ পৌরসভার কাউন্সিলরবৃন্দ, জকিগঞ্জ ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশন ইউকের সহসভাপতি আব্দুল হালিম, লন্ডনের সাংবাদিক আব্বাসুজ্জামান, সংগঠনের বাংলাদেশ প্রতিনিধি জুনেদ আহমদ চৌধুরী, ছাত্রনেতা ইজ্জাদুর রহমান মুন্না, জয়নাল আবেদিন প্রমুখ।

উল্লেখ্য, মেয়র শেরুওয়ান চৌধুরী তিনি ৪ বারের কাউন্সলির ও এর আগে ডেপুটি মেয়রের দায়িত্ব পালন করেছেন। তাঁর সফরসুচীর মধ্যে উল্লেখযোগ্য রয়েছে ঢাকায় চ্যারিটি ডিনারের মাধ্যমে বিয়ানীবাজার ক্যান্সার হসপিটালের জন্য ফান্ড সংগ্রহ করা।