কুষ্টিয়া নদী ভাঙ্গনের হাত থেকে নারী পুরুষ মানববন্ধন

81
কুষ্টিয়া নদী ভাঙ্গনের হাত থেকে নারী পুরুষ মানববন্ধন
কুষ্টিয়া নদী ভাঙ্গনের হাত থেকে নারী পুরুষ মানববন্ধন

হৃদয় রায়হান, ভেড়ামারা প্রতিনধি: কুষ্টিয়ায় নদী ভাঙ্গনের হাত থেকে নিজেদের বসতবাড়ি, ফসলি জমি ও মহাসড়ক রক্ষার দাবিতে কুষ্টিয়া- ঈশ্বরদী মহাসড়ক অবরোধ করে হাজারো জনতার মানববন্ধন। বৃহস্পতিবার সকাল ১০টা থেকে শুরু হওয়া এ মানববন্ধন চলে বেলা ১২ টা পর্যন্ত। মিরপুর উপজেলার সাহেবনগর এলাকা থেকে শুরু হওয়া প্রায় তিন কিলোমিটার ব্যাপী দুই ঘন্টাব্যাপী চলা এ মানববন্ধনে দাবি আদায়ের স্লোগান সংবলিত নানা ধরনের প্ল্যাকার্ড ও ব্যানার হাতে নিয়ে স্থানীয় মাদ্রাসার কোমলমতি শিক্ষার্থী, এলাকার নারী-পুরুষসহ সর্বস্তরের জনসাধারণ অংশ নেন। মানববন্ধন চলাকালে বিক্ষুব্ধ জনতা প্রায় এক ঘণ্টা কুষ্টিয়া মহাসড়ক অবরোধ করে রাখে। এ সময় মহাসড়কের দুই পাড়ে বাস ট্রাকসহ কয়েক শত যানবাহন আটকে যায়। পরে এক সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। নদী ভাঙ্গন প্রতিরোধ কমিটির আহ্বায়ক আবুল কালাম আজাদের সভাপতিত্বে সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক মাসুদ রানা, বহলবাড়িয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম সাইদুল, তালবাড়িয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল হান্নান বিশ্বাস, বারুইপাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম মন্টুসহ স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও জাসদের নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন। সমাবেশে বক্তারা বলেন, অকাল পদ্মা নদীর ভাঙ্গনে মিরপুর উপজেলার তালবাড়িয়া, বহলবাড়ীয়া বারুইপাড়া ও ভেড়ামারা উপজেলার বাহিরচর ইউনিয়নের বিস্তীর্ণ এলাকার ফসলি জমি ইতোমধ্যেই নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। অনেকের বাড়িঘর ইতিমধ্যেই নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। হুমকির মুখে পড়েছে আরো শত শত বসতবাড়ি। নদী ভাঙতে ভাঙতে কুষ্টিয়া ঈশ্বরদী আঞ্চলিক মহাসড়কের একেবারেই কাছে চলে এসেছে। একারণে আঞ্চলিক এই জনগুরুত্বপূর্ণ মহাসড়কটির হুমকির মুখে রয়েছে। বক্তারা নদীভাঙ্গনের হাত থেকে দুটি উপজেলার উপজেলার ৪ টি ইউনিয়নকে রক্ষার দাবিতে দ্রুত কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণের জোরালো দাবি জানান।