কিয়েভ সরকারের পতন না হলে থামবেন না পুতিন!

119

কিয়েভ সরকারের পতন না হওয়া পর্যন্ত ইউক্রেনে রাশিয়ার আক্রমণ থামবে না। রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন মস্কোবিরোধী জেলেনস্কি সরকারকে হটাতে সবধরনের চেষ্টা করবেন। বৃহস্পতিবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) মার্কিন টিভি চ্যানেল এবিসি’কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এসব কথা বলেছেন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন। খবর বিবিসির।

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, তার বিশ্বাস, রাজধানী কিয়েভসহ ইউক্রেনের বড় শহরগুলোতে আক্রমণের পেছনে এটি রাশিয়ার পরিকল্পনার একটি অংশ।
তিনি বলেন, ইউক্রেনের বাইরেও রুশ আক্রমণের আশঙ্কা রয়েছে। তবে ন্যাটো মিত্রদের রক্ষায় যুক্তরাষ্ট্র অঙ্গীকারাবদ্ধ।

ব্লিঙ্কেন হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, ন্যাটোর একটি সদস্যকে আক্রমণ করার অর্থ এর সব সদস্যের ওপর আক্রমণ। প্রেসিডেন্ট বাইডেনের অবস্থান পরিষ্কার, আমরা ন্যাটো অঞ্চলের প্রতি ইঞ্চি জায়গা রক্ষা করবো। আমি মনে করি, ইউক্রেনের বাইরে আক্রমণের ক্ষেত্রে পুতিনের বিরুদ্ধে এটাই সবচেয়ে শক্তিশালী প্রতিবন্ধক।

এদিকে, ইউক্রেনীয় প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি দাবি করেছেন, তাকে সরিয়ে দেওয়ার মাধ্যমে ইউক্রেনকে রাজনৈতিকভাবে ধ্বংস করতে চায় রাশিয়া। এক ভিডিওবার্তায় তিনি বলেছেন, শত্রুরা আমাকে এক নম্বর ও আমার পরিবারকে দুই নম্বর টার্গেট হিসেবে চিহ্নিত করেছে।

জেলেনস্কি জানিয়েছেন, তিনি এখনো কিয়েভের সরকারি কোয়ার্টারে রয়েছেন এবং তার পরিবারও ইউক্রেনে। তবে এ বিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানাননি তিনি।

ইউক্রেনীয় প্রেসিডেন্ট সতর্ক করে বলেছেন, তাদের কাছে তথ্য রয়েছে, শত্রু পক্ষের নাশকতাকারীরা কিয়েভে প্রবেশ করেছে। এদের প্রতিহত করতে দেশবাসীকে সজাগ থাকার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

এর আগে, পুতিনের নির্দেশে বৃহস্পতিবার ভোরে ইউক্রেনে আক্রমণ শুরু করে রুশ বাহিনী। তবে কঠিন প্রতিরোধ গড়ার চেষ্টা করছেন ইউক্রেনের সেনারা। প্রথমদিনের লড়াইয়েই দুই পক্ষের সামরিক-বেসামরিক মিলিয়ে শতাধিক মানুষ নিহত হয়েছেন। হামলার দ্বিতীয় দিনেও কিয়েভে বিস্ফোরণের খবর শোনা গেছে।