কলারোয়ায় পুকুরে সাঁতার কাটতে গিয়ে এসআই রাশেদুলের মৃত্যু

75

শেখ আমিনুর হোসেন, সাতক্ষীরা ব্যুরো চীফ: পুকুরছ গোসল করতে গিয়ে সাঁতার কাটার  সময় হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে সাতক্ষীরার কলারোয়া থানা পুলিশের এসআই রাশেদুল ইসলাম (৪০) মারা গেছেন। রবিবার সকাল সাড়ে নয়টার দিকে এঘটনা ঘটে। 

এসআই রাশেদুল ইসলাম মেহেরপুর জেলার গাংনী উপজেলার গোপালনগর গ্রামের মৃত লোকমান হোসেনের ছেলে। 

কলারোয়া উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার শফিকুল ইসলাম জানান, সকাল ৯টা ৫০মিনিটের দিকে কলারোয়া থানা পুলিশ ও কলারাওা ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা অচেতন অবস্থায় এসআই রাশেদুল ইসলামকে হাসপাতালে নিয়ে আসেন। প্রাথমিক চিকিৎসা ও পরীক্ষা করে নিশ্চিত হওয়ায়, তিনি পানিতে সাঁতার কাটার সময় হৃদরোগে আক্রান্ত হন। হাসপাতালের সকল কার্যক্রম শেষে মরদেহটি কলারোয়া থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। 

কলারোয়া ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স এর স্টেশন অফিসার মোঃ ওবায়দুল্লাহ জানান, এসআই রাশেদ গোসল করার সময় পানিতে ডুবে গেলে তাকে আর খুঁজে পাওয়া যাচ্ছেনা এমন সংবাদে তার নেতৃত্ব একটি চৌকস টিম ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পুকুর থেকে দুই মিনিটের মধ্যেই অচেতন অবস্থায় তাকে উদ্ধার করা হয়। পরে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়। 

কলারাওা থানা অফিসার ইনচার্জ ওসি নাসির উদ্দীন মৃধা জানান, রাশেদুল ইসলাম গত দেড়মাস আগে কলারোয়া থানায় পুলিশের  সাবইন্সেপেক্টর পদে যোগদান করেন। সকালে থানার পুকুরে গোসল করতে গিয়ে সাঁতার কাটার সময় হার্টএ্যাটাক করে পুকুরের পানিতে ডুবে যান। তাৎক্ষণিক কলারোয়া ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সকে সংবাদ দিলে ফায়ার সার্ভিস সিভিল ডিফেন্স স্টেশনের লিডার ওবায়দুল্লাহ’র নেতৃত্ব ফায়ার ফাইটার সাখাওয়াত হোসেন,  আব্দুস সালাম ও ইমরান হোসেন  পুকুর থেকে অচেতন অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে স্থানীয় উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণাকরেন৷ তার পরিবারে স্ত্রী,  দুই মেয়ে ও এক ছেলে রয়েছে বলে জানান ওসি৷ তিনি আরও জানান, প্রথমিক সুরতহাল ও ময়নাতদন্ত শেষে বাদ যোহর সাতক্ষীরা পুলিশ লাইনে মরহুমের জানাজা শেষে মরদেহটি তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।