ঐতিহ্য ও দর্শনীয় স্থানে পরিণত হয়েছে গোপালগঞ্জের শতবর্ষী আমগাছটি

86

মোঃ আবদুল আউয়াল সরকার, গোপালগঞ্জ থেকে ফিরে এসে। গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলার হিরণ্যকান্দি গ্রামের নাম এখন জেলাবাসীর পাশাপাশি বাইরের জেলাগুলোতেও বেশ পরিচিত।

আর এই পরিচিতির কারণ হচ্ছে শতবর্ষী একটি আম গাছ। গাছটি দেখতে প্রতিদিনই অসংখ্য লোক এখানে ভিড় করছেন। তবে দর্শনার্থীদের জন্য সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করা গেলে এ সংখ্যা আরও বাড়বে বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

গোপালগঞ্জ জেলা সদর থেকে ৪০ কিলোমিটার দূরে হিরণ্য কান্দি গ্রাম। সম্প্রতি গ্রামটি শুধু জেলার লোকজনের কাছেই নয়, বরং আশপাশের জেলাবাসীর কাছেও পরিচিত হয়ে উঠেছে। প্রতিদিনই গাছটি দেখতে শত শত লোক ভিড় করে থাকেন। 

হিরণ্য কান্দি গ্রামের বাচ্চু শেখ ও তার দুই ভাইয়ের ৫৭ শতাংশ জমির ওপর শতবর্ষী এই আম গাছটি দাঁড়িয়ে আছে কালের সাক্ষী হয়ে। চারদিকে এর বড় বড় ডালপালা, মূলগুলি গাছ থেকে নেমে মাটি স্পর্শ করে আবার ওপরের দিকে উঠে গেছে।

কুমিল্লা থেকে আম গাছটি দেখতে এসেছে সাব্বির আহমেদ, গোলাম সারওয়ার, এইচ এম আলম,তাজুল ইসলাম, আবদুল আউয়াল, মনির হোসেন প্রমুখ। তারা জানান, এখানে বিশ্রামের জায়গাসহ অন্যান্য সুযোগ-সুবিধার ব্যবস্থা করা গেলে দর্শনার্থীদের সংখ্যা আরও বাড়তো।

স্থানীয়রা জানান, কয়েক বছর আগে গোপালগঞ্জ জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে এ গ্রামে আসার আধা কিলোমিটার রাস্তা পাকা করে দেওয়া হয়। এছাড়া দুটি সাইন বোর্ড লাগিয়ে দেওয়া হয়। কিন্তু গাছটি রক্ষণাবেক্ষণের কোনও উদ্যোগ নেওয়া হয়নি।

এদিকে আম গাছটিকে ঘিরে এলাকাটি পর্যটন স্পট হিসেবে গড়ে তুলতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন দর্শনার্থী ও এলাকাবাসী।