উত্তরায় এনা পরিবহনের বাস চাপায় মৃত্যু পথযাত্রী নবম শ্রেণির  শিক্ষার্থী সাআ’দ

104
উত্তরায় এনা পরিবহনের বাস চাপায় মৃত্যু পথযাত্রী নবম শ্রেণির  শিক্ষার্থী সাআ'দ
উত্তরায় এনা পরিবহনের বাস চাপায় মৃত্যু পথযাত্রী নবম শ্রেণির  শিক্ষার্থী সাআ'দ

সাইফুল ইসলাম একা, উত্তরা(ঢাকা): ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে বেপরোয়া এনা পরিবহনের চাপায় মারাত্মকভাবে আহত হয়েছে দেশের অন্যতম প্রতিষ্ঠান মাইলস্টোন স্কুল এন্ড কলেজ শিক্ষার্থী সাআ’দ। 

রাজধানীর উত্তরার আব্দুল্লাহপুর ট্রাফিক পুলিশ বক্সের সামনে গত রবিবার বিকেল আনুমানিক ৪:৩০ মিনিটের সময় মাইলস্টোন স্কুল ছুটির পর  মোঃ সাআ’দ (১৫) সহ সাথে থাকা ৮ থেকে ১০ জন স্কুল ছাত্র সিগন্যাল পার হয়ে টঙ্গী কলেজগেট যাওয়ার উদ্দেশ্যে আব্দুল্লাহপুর ট্রাফিক পুলিশ বক্সের সামনে দাড়ায়। হঠাৎ এনা পরিবহনের একটি  বাস খুব দ্রুতগতিতে এসে মোঃ সাআ’দ (১৫)সহ সাথে থাকা অন্য ছাত্রদের ধাক্কা দিলে অন্য সকল ছাত্রসহ রাস্তার লোকজন সরে গেলেও সাআ’দ পড়ে যায় চাকার নিচে। স্থানীয় পুলিশ বক্সের  ডিউটিরত এস আই বদরুল দ্রুত একটা রিকশা ডেকে সাআ’দ (১৫) কে বাংলাদেশ মেডিকেল পাঠায়।

অন্যদিকে রাস্তায় থাকা লোকজন এনা পরিবহনকে অটকের চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়। একপর্যায়ে ঘটনাস্থলে থাকা স্থানীয় একজন সংবাদকর্মী মোটরসাইকেল দিয়ে ধাওয়া করে এনা পরিবহনটিকে আটক করে পরে টঙ্গী পশ্চিম থানা পুলিশের সহযোগিতায়। আটককৃত  পরিবহনসহ গাড়ি চালক মোঃ আবুল হোসাইন (৪৫)কে থানায় নিয়ে যায়। পরে উত্তরা পশ্চিম থানা পুলিশের এস আই মনির ঘটনাস্থলে গিয়ে টঙ্গী পশ্চিম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি শাহালমের সাথে কথা বলে একটি জিডি নোট দিয়ে উত্তরা পশ্চিম থানায় নিয়ে আসে। 

ঘটনার পর পরই এনা পরিবহনের ম্যানেজার মোঃ হান্নান ঘটনাটিকে ধামাচাপা দেওয়ার জন্য উঠে পড়ে লাগে। একপর্যায়ে আয়শা মেমোরিয়াল হাসপাতাল ভর্তি থাকা সাআ’দের পরিবারে লোকজনের সাথে কথা বলে বিষয়টি ১ লক্ষ টাকার বিনিময়ে মীমাংসার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়। ঘাতক গাড়ী চালক মোঃ আবুল হোসাইন (৪৫) গাজীপুর শ্রীপুরে  জালাল উদ্দীনের ছেলে বলে জানা গেছে। 

অন্যদিকে এই ঘটনার বিষয়ে সাংবাদিকরা জানতে চাইলে উত্তরা পশ্চিম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি আক্তারুজ্জামান ইলিয়াস বলেন বিষয়টির তথ্য ডিউটি অফিসারের কাছ থেকে সংগ্রহ করেন তথ্যের জন্য গেলে ডিউটিরত অফিসার এস আই শুভ সাংবাদিকদের কাছে তথ্য গোপনসহ  অসদাচরণ করেন পরে  তথ্য নেই বলে জানিয়ে দেয়। 

এবিষয়ে সাআ’দের পরিবারের সাথে যোগাযোগ করে জানা জায় তারা এখনও গাড়ি বা চালক তাদের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি। তবে উত্তরা পশ্চিম থানার তথ্য অনুযায়ী সড়ক পরিবহন আইনে একটি মামলা করা হয়েছে যার নাম্বার( ৪২)। সাআ’দ বর্তমানে মহাখালি আয়েশা মেমোরিয়াল হাসপাতাল ভর্তি আছে। 

সাআ’দ  টংগী পূর্ব গাজীপুর  কলেজ গেটের মোঃ শরিফের ছেলে বলে জানা গেছে। এসকল বিষয়ে জানার জন্য উত্তরা পশ্চিম থানার ওসি আক্তারুজ্জামান ইলিয়াছের সাথে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।