ইটনায় প্রতিমা তৈরিতে ব্যস্ততা চলছে পূজা মণ্ডপে মণ্ডপে 

দুর্গা পূজাকে ঘিরে কিশোরগঞ্জের ইটনা উপজেলায় ব্যস্ত সময় পার করছেন প্রতিমা তৈরির কারিগররা। কে কত ভালো প্রতিমা তৈরি করে ভক্তদের হৃদয় ছুঁতে পারেন তারই প্রতিযোগিতা চলছে মণ্ডপে মণ্ডপে। সামর্থ্য অনুযায়ী স্থানীয় ও অন্য জেলা থেকে কারিগর এনে প্রতিমা তৈরি করছে পূজা মণ্ডপ কমিটি।  

এবারের দুর্গাপুজোর মহাসপ্তমী পড়েছে ০২ অক্টোবর, মহাঅষ্টমী পড়েছে ০৩ অক্টোবর, মহানবমী পড়েছে ০৪ অক্টোবর, বিজয়া দশমী পড়েছে ০৫ অক্টোবর। 

উপজেলার সদর ইউনিয়নের বিভিন্ন মণ্ডপ ঘুরে দেখা যায়, শিল্পীর নিপুণ হাতে চলছে প্রতিমা তৈরির কাজ। রাতদিন পরিশ্রম করে মাটি দিয়ে দেবীর অবয়ব নির্মাণ করছেন কারিগররা। পাশাপাশি চলছে লক্ষ্মী, সরস্বতী, গণেশ ও কার্তিকের প্রতিমা তৈরির কাজ। 

সদর ইউনিয়নের নগরহাটি যুব সংঘের সার্বজনীন দুর্গা মণ্ডপে প্রতিমা তৈরি করছেন পরিমল পাল। তিনি প্রায় ৪০ বছর ধরে প্রতিমা তৈরির করে আসছেন। এই বছর উপজেলার ০৯ টা দুর্গা পুজোর প্রতিমা তৈরির কাজ পেয়েছেন, এই নিয়ে ব্যস্ততায় রাত দিন কাটাচ্ছেন। 

বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ ইটনা উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক কৌশিক দেব নাথ জয় বলেন, ‘উপজেলার সদর ইউনিয়নের ১২টা সহ ৩৬টি পূজা মণ্ডপ রয়েছে। প্রতিটি কমিটিকে ডিজে পার্টির নামে অশ্লীলতা বন্ধের কঠোর নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। মণ্ডপগুলোতে কেউ যেন বিশৃঙ্খলা ঘটাতে না পারে সে জন্য পুলিশ প্রশাসন সর্বদা দায়িত্ব পালন করবে। আমরা সতর্কতার সঙ্গে বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করবো।’ 

ইটনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো.কামরুল ইসলাম মোল্লা জানান, অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে থানা পুলিশের পাশাপাশি পূজা মণ্ডপে থাকবে আনসার, গ্রাম পুলিশ ও স্বেচ্ছাসেবী সদস্য।