অনুমতি ছাড়াই বাংলাদেশে ইলন মাস্কের স্যাটেলাইট ইন্টারনেট!

79
ইতোমধ্যে বাংলাদেশ থেকে প্রি-অর্ডারও নেওয়া শুরু করেছে স্টারলিংক। কিন্তু এজন্য বাংলাদেশের কাছ থেকে কোনো রকম অনুমতি নেয়নি প্রতিষ্ঠানটি। এর পরিপ্রেক্ষিতে ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, সরকারের অনুমতি ছাড়া ইলন মাস্ক বাংলাদেশে ইন্টারনেট সেবা চালু করতে পারে না।
ইতোমধ্যে বাংলাদেশ থেকে প্রি-অর্ডারও নেওয়া শুরু করেছে স্টারলিংক। কিন্তু এজন্য বাংলাদেশের কাছ থেকে কোনো রকম অনুমতি নেয়নি প্রতিষ্ঠানটি। এর পরিপ্রেক্ষিতে ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, সরকারের অনুমতি ছাড়া ইলন মাস্ক বাংলাদেশে ইন্টারনেট সেবা চালু করতে পারে না।

পশ্চিমা ধনাঢ্য ব্যবসায়ী ইলন মাস্ক। রকেট নির্মাণ প্রতিষ্ঠান স্পেসএক্স, ইলেকট্রিক কার নির্মাণ প্রতিষ্ঠান টেসলাসহ বহু ব্যবসার পাশাপাশি ইন্টারনেট ব্যবসাও রয়েছে মার্কিন এই ধনকুবেরের। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সঙ্গে এবার বাংলাদেশেও স্যাটেলাইট ইন্টারনেট সেবা দিতে চায় ইলন মাস্কের মালিকানাধীন স্টারলিংক।

ইতোমধ্যে বাংলাদেশ থেকে প্রি-অর্ডারও নেওয়া শুরু করেছে স্টারলিংক। কিন্তু এজন্য বাংলাদেশের কাছ থেকে কোনো রকম অনুমতি নেয়নি প্রতিষ্ঠানটি। এর পরিপ্রেক্ষিতে ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, সরকারের অনুমতি ছাড়া ইলন মাস্ক বাংলাদেশে ইন্টারনেট সেবা চালু করতে পারে না।

আগামী বছর থেকেই বাংলাদেশে ইন্টারনেট সেবা দিতে চায় স্টারলিংক। ইতোমধ্যে বাংলাদেশ থেকে প্রি-অর্ডার নেওয়া শুরু করে দিয়েছে স্টারলিংক। প্রতিষ্ঠানটির ওয়েবসাইটে এই প্রি-অর্ডার নেওয়া হচ্ছে।

স্টারলিংকের এমন কান্ডে রীতিমতো বিস্মিত ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। তিনি জানান, বাংলাদেশ সরকার ও বিটিআরসির অনুমোদন ছাড়া স্টারলিংক কোনোভাইবেই এদেশে ইন্টারনেট সেবা দেওয়ার ঘোষণা দিতে পারে না। তার কথায়, সরকারের অনুমতি ছাড়া ইলন মাস্ক বাংলাদেশে ইন্টারনেট সেবা চালু করতে পারেন না। বাংলাদেশে স্যাটেলাইট ইন্টারনেট সেবা দিতে পারবে কিনা তা জানতে চেয়ে আগে আবেদন করতে হবে। তারপর বাংলাদেশের সম্মতির ওপর নির্ভর করবে প্রি-বুকিং।

এদিকে স্টারলিংক যে পন্থায় বাংলাদেশে ইন্টারনেট সেবা দিতে চাচ্ছে তাকে শুধু আইনবিরোধীই নয়, নৈতিকতা বিরোধী বলেও মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি) এর ভাইস চেয়ারম্যান সুব্রত রায় মৈত্র। বিটিআরসির অফিসিয়াল ফেসবুকে পেজে এ সংক্রান্ত একটি ভিডিও বার্তাও দিয়েছেন তিনি।

ভিডিও বার্তাও বিটিআরসি এর ভাইস চেয়ারম্যান সুব্রত রায় মৈত্র বলেন, ইলন মাস্কের স্টারলিংক এখনো পর্যন্ত কোনো আবেদন করেনি এই সেবার জন্য, তবে তাদের ওয়েবসাইট পর্যালোচনা করে দেখা যাচ্ছে তারা কার্যক্রম শুরু করেছে এবং বাংলাদেশ থেকে প্রি-অর্ডার নিচ্ছে যা নৈতিকতা ও আইনবিরোধী।

সম্প্রতি স্টারলিংকের পক্ষ থেকে টুইটারে একটি ম্যাপ শেয়ার করা হয়েছে যেখানে দেখা যাচ্ছে ইউরোপ ও উত্তর আমেরিকার ৩২টি দেশে স্যাটেলাইট ইন্টারনেট চালু হতে যাচ্ছে । ম্যাপে আফ্রিকা ও এশিয়া মহাদেশসহ বিশ্বের বাকি দেশগুলোকে চিহ্নিত করা হয়েছে ওয়েটলিস্ট ও শিগগির আসছে চিহ্ন দিয়ে। শিগগির আসছে চিহ্নিত দেশগুলোর মধ্যে রয়েছে ব্রাজিল, সৌদি আরব, পাকিস্তান, ভারত ও বাংলাদেশ।

ম্যাপে চিহ্নিত দেশগুলো অবিলম্বে ইনস্টলেশন প্যাকেজ পাবে। বাংলাদেশ থেকে প্রি-অর্ডার সেবা পেতে স্টারলিংকের ওয়েবসাইটে প্রবেশ করলে ৯৯ ডলার ফি প্রদানের একটি নির্দেশনা আসে। সেখানে বলা হয়েছে, স্টারলিংক ২০২৩ সালে এই এলাকায় তাদের সেবা প্রসারিত করার আশা করছে।