Logo
বৃহস্পতিবার, ২৪ মে, ২০১৮ | ১০ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

ভিন্নধর্মী গল্পের অপেক্ষায় পূর্ণিমা

প্রকাশের সময়: ৯:৫৫ পূর্বাহ্ণ - রবিবার | অক্টোবর ৮, ২০১৭

তৃতীয়মাত্রা :

জাকির হোসেন রাজু পরিচালিত ‘এ জীবন তোমার আমার’ ছবিতে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে ১৯৯৭ সালে দিলারা হানিফ রীতা ওরফে পূর্ণিমার চলচ্চিত্রে অভিষেক ঘটে। বিশ বছরের ক্যারিয়ারে এখন পর্যন্ত তার অভিনীত একশ’র মতো ছবি মুক্তি পেয়েছে। অনেক জনপ্রিয় তারকার বিপরীতে সফলভাবে কাজ করেছেন তিনি। কাজী হায়াৎ পরিচালিত ‘ওরা আমাকে ভালো হতে দিল না’ ছবির জন্য ২০১০ সালে সেরা অভিনেত্রী হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করেন এই অভিনেত্রী। সবশেষ গত মাসের শেষদিকে ইফতেখার আহমেদ ফাহমীর ‘টু বি কন্টিনিউড’ ছবিটি মুক্তি পায় তার। বর্তমান সময়ে টিভি বিজ্ঞাপন ও ছোট পর্দার নাটকে নিয়মিত কাজ করছেন পূর্ণিমা। অভিনয়ের বাইরে এ বছর একটি বড় মাপের পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে সফলভাবে উপস্থাপনা করেন তিনি। কথার ফাঁকে ফাঁকে রসময় আলাপ ও দুষ্টুমিতে মিলনায়তন ভরা দর্শকদের মাতিয়ে রাখেন এই অভিনেত্রী। তার এই উপস্থাপনার প্রশংসা করে বিশিষ্ট অভিনেতা-নির্মাতা নরেশ ভূঁইয়া বলেছিলেন উপস্থাপিকা হিসেবে অসাধারণ এক পূর্ণিমাকে দেখেছি। সবকিছুতেই তার প্রতিভা, মেধার প্রতিফলন দারুণভাবে ফুটে উঠেছে। বাংলাদেশের সিনেমার একজন নায়িকার কাছে যা কল্পনাও করতে পারি না। এদিকে অনেকদিন ধরেই নতুন চলচ্চিত্রে তাকে দেখা যাচ্ছে না। কেন? এ বিষয়ে জানতে চাইলে পূর্ণিমা বলেন, এখন তো নতুন ছবির গল্প প্রায়ই শুনছি। প্রস্তাবও আসছে। কিন্তু গল্পে ভিন্নতা খুবই কম থাকে। তা কেমন জানতে চাইলে পূর্ণিমা বলেন, সব ছবির গল্প প্রায় একই রকম লাগে। ভিন্ন কাহিনীর ছবিতে কাজ করতে চাই। অপেক্ষা করছি এর জন্য। দর্শকদেরও রুচির পরিবর্তন হয়েছে। কোনো নাটক বা অনুষ্ঠান মিস করলেও তাদের প্রবলেম নেই। ইউটিউবে তা দেখে ফেলছে। বিনোদনের কোনো কমতি থাকছে না। পূর্ণিমা আরো বলেন, আগে তো বিনোদনের জন্য একমাত্র জায়গা ছিল বড় পর্দা। চার থেকে পাঁচটি শো সিনেমাহলে কয়েক সপ্তাহ ধরে হাউজফুল চলত। এখন বাসায় হোম থিয়েটারে ডিভিডি বা ইউটিউব অন করে ছবি দেখছেন দর্শক। তাই সিনেমা হলে দিন দিন লোক কমে যাচ্ছে। লোক কমে যাওয়ার আর অন্য কোনো কারণ আছে কি? পূর্ণিমা বলেন, আমি তো সবশেষ কয়েক বছর আগে সিনেমা হলে গিয়ে ছবি দেখেছি। এখন শুনছি দেশের বেশিরভাগ সিনেমা হলেরই পরিবেশ খুব খারাপ। তাই দর্শককে আবার ফিরিয়ে আনতে সিনেমা হলের পরিবেশ ঠিক করা জরুরি। যারা নিয়মিত সিনেমা হলে ছবি দেখেন তারা অনেক কষ্ট করে ছবি দেখেন। তাই পাইরেসি রোধের পাশাপাশি সিনেমা হলের পরিবেশ ঠিক করতে হবে। বড় পর্দায় না কাজ করলেও পূর্ণিমাকে মাঝে মধ্যে ছোট পর্দায় দেখা যায়। সামনে নতুন নাটকে দেখা যাবে কি? এ নায়িকা বলেন, হয়তো দেখা যাবে। বেশকিছু কাজ নিয়ে কথা হচ্ছে। আর সামনে রিয়েলিটি শোর বিচারক হিসেবে কাজের প্রস্তাব পেয়েছি। তবে এখনও চূড়ান্ত হয়নি। এ মাসের শেষে চূড়ান্ত হওয়ার কথা আছে। তখন সবাইকে জানিয়ে দিব। আর কয়েকটি ছবিতে কাজের বিষয় নিয়েও কথা হচ্ছে। পছন্দমতো না হলে ছবিতে কাজ করার ইচ্ছে করে না। প্রসঙ্গত, গত বছরের শেষদিকে চিত্রনায়ক ফেরদৌসের সঙ্গে একটি বিজ্ঞাপনচিত্রে মডেল হিসেবে কাজ করেন পূর্ণিমা। এছাড়া মাত্র ৫ মিনিটের জন্য সচেতনতামূলক একটি নাটিকায় অভিনেতা রওনক হাসানের বিপরীতে কাজ
করেন তিনি।

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com
Read previous post:
ভালো কাজের পেছনে ছুটছেন পরীমনি

      তৃতীয়মাত্রা : ক্যারিয়ারের বয়স বেশি সময়ের নয়। তবুও অল্প সময়ে ‘ধূমকেতু’, ‘মহুয়া সুন্দরী’, ‘কত স্বপ্ন কত আশা’,...

Close

উপরে