Logo
মঙ্গলবার, ২৩ অক্টোবর, ২০১৮ | ৮ই কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

রাজৈরে ২৪০টি মন্ডপে শেষ মুর্হুতে চলছে রং-তুলির কাজ

প্রকাশের সময়: ৬:৫০ অপরাহ্ণ - বৃহস্পতিবার | অক্টোবর ১১, ২০১৮

 

তৃতীয় মাত্রা

মো: ইব্রাহীম, রাজৈর (মাদারীপুর) প্রতিনিধি : শারদীয়া দুর্গোৎসবের বাকি মাত্র আর কয়েকটি দিন। আগামী ১৪ সেপ্টেম্বর ষষ্ঠি পূজার মধ্য দিয়ে শুরু হচ্ছে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় উৎসব শারদীয় দুর্গা পূজা। শরতের এই দিনে কাঁশবন ও আকাশের রং বলে দেয় অশুভ শক্তিকে দমন ও দেশের শান্তি কল্যাণে দেবী দূর্গা মর্তে আসছেন।

হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের ভাষ্য মতে, দুই ছেলে গনেশ ও কার্তিক এবং দুই মেয়ে লক্ষী ও সরস্বতীকে সঙ্গে নিয়ে এবার দেবী দুর্গা মর্তে আসবেন নৌকায় চড়ে এবং ফিরে যাবেন ঘোড়ায় চড়ে। তাইতো দেবীকে সাজাতে রাজৈরে ২৪০ টি পূজা মন্ডপে অক্লান্ত পরিশ্রম করছেন প্রতিমা শিল্পীরা। তাদের নিপুণ হাতে মন্ডপগুলোতে ইতোমধ্যে মাটির কাজ শেষে রং-তুলির আচর ও সাজ সজ্জার কাজ চলছে জোড়েসোরে।

মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলায় ২৪০টি মন্ডপে প্রতিমা তৈরিতে প্রতিমাশিল্পীদের দম ফেলার সময় নেই। শারদীয় দুর্গোৎসবকে পরিপূর্ণ রূপ দিতেই মন্ডপগুলোতে চলছে ব্যাপত প্রস্তুতি।এ বছর মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলায় ২৩৯ টি পূজা মন্ডপে দুর্গা পূজা অনুষ্ঠিত হবে। এর মধ্যে কদমবাড়ী ইউনিয়নে ৮৯ টি, বাজিতপুরে ১৮ টি, আমগ্রামে ৩৯টি, রাজৈরে ৮ টি, পৌরসভায় ১২টি, খালিয়ায় ৪৩ টি, বদরপাশায় ১৪টি, ইশিবপুরে ১ টি, কবিরাজপুরে ৩টি, হরিদাসদী- মহেন্দ্রদীতে ৩টি, হোসেনপুরে ৪টি ও পাইকপাড়া ইউনিয়নে ৬ টি পূজা মন্ডপে দুর্গা পূজা অনুষ্ঠিত হবে।

সরোজমিনে রাজৈরের বিভিন্ন মন্দির ঘুরে দেখা যায়, প্রতিমাশিল্পীরা ইতিমধ্যে কাঁদা মাটি দিয়ে মূল কাঠামো নির্মাণের কাজ শেষ করেছেন। এখনো বাকি রং তুলির ছোঁয়ায় প্রতিমার রূপ ফুটিয়ে তোলার মূল কাজ। দেবী দুর্গার আগমনে ভক্ত ও শিশুদের আনন্দে ভরে উঠছে প্রতিটি পূজা মন্ডপের আঙ্গিনা। বিভিন্ন মন্ডপের সামনে চলছে লাইটিং, গেইট, আলোকসর্জা কাজ।
রাজৈর কুন্ডু পাড়া পূজা মন্ডপের বাসিন্দা অলক কুন্ডু বলেন, কিছুদিন বাদেই শুরু হবে আমাদের সবচেয়ে বড় পুজো। এবার পুজোতে আমরা পরিবারের সবাই অনেক মজা করবো। ৫দিনের পুজোতে ৫ ধরণের নতুন জামা পড়বো। সবকিছু মিলিয়ে এবারের পুজোতে অনেক কিছু করার ইচ্ছে রয়েছে।

রাজৈর গনেশ পাগল সেবাশ্রমের সাধারন সম্পাদক প্রনব কুমার বিশ্বাস বলেন, ইতোমধ্যেই আমাদের কদমবাড়িতে মন্ডপের প্রতিমাগুলোতে মাটির কাজের পাশাপাশি চলছে প্যান্ডেল, গেট, তোরণ ও সাজ সজ্জার কাজ। সবকিছু মিলিয়ে খুব ভালোই হবে আমাদের দুর্গোৎসব।

মাদারীপুর জেলা পূজা উৎযাপন পরিষদের সহসভাপতি শান্তি রঞ্জন দাস মুঠোফোনে বলেন,রাজৈরে ২৪০ টি পূজা মন্ডপে উৎসব শান্তিপূর্ণ ভাবে অনুষ্ঠিত হবে । মাদারীপুরে হিন্দু-মুসলিম সম্মিলত ভাবে পুজা উদযাপন করা হয়। আমাদের জেলায় পূজায় শান্তিপূর্ন পরিবেশে হয়ে আসছে । আমাদেন রাজৈরে কোন প্রকার অশ্লীল নৃত্য চলতে দেয়া যাবে না । নিজের মার সামনে যা করতে পাড়ি না,তা দূর্গা মায়ের সামনে চলবে না।

রাজৈর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জিয়াউল মোর্শেদ জানান, দুর্গা পূজা নির্বিঘ্ন করতে সব ধরনের নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। আনসারসহ আইন শৃঙ্খলা কমিটির পর্যাপ্ত সদস্য থাকবে।সাদা পোষাকে পুলিশের পাশাপাশি সাধারন পুলিশ। প্রতিটি পূজা মন্ডবে তল্লাশির ব্যবস্থা থাকবে।

জেলা পুলিশ সুপার সুব্রত কুমার হালদার জানান, দুর্গা পূজা নির্বিঘ্ন করতে কয়েক স্তর বিশিষ্ট নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়েছে। পূজা মন্ডপগুলোতে যাতে বিশৃংখলা ঘটাতে না পারে তার জন্য জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালত থাকবে।
মাদারীপুর জেলা প্রশাসক মোঃ ওয়াহিদুল ই্সলাম বলেন, দুর্গা পূজা শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন করতে জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে সকল প্রকার প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে।কোন অপ্রীতিকর ঘটনা যাতে না ঘটে তার জন্য ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়েছে।এছাড়াও গুরুত্বপূর্ণ মন্ডপগুলোতে সিসি টিভির আওতায় আনার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

Read previous post:
ভারতের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমারকে জুতো নিক্ষেপ

তৃতীয় মাত্রা সংরক্ষণের জন্য চাকরি না পাওয়ায় ভারতের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমারকে জুতো ছুড়ে মেরেছেন এক যুবক। তাৎক্ষনিক চন্দন কুমার নামে...

Close

উপরে