Logo
বৃহস্পতিবার, ২৩ মে, ২০১৯ | ৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

রোববার টুঙ্গিপাড়া যাচ্ছেন রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশের সময়: ৩:২৯ অপরাহ্ণ - শুক্রবার | মার্চ ১৫, ২০১৯

তৃতীয় মাত্রা :

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯ তম জন্মবার্ষিকী এবং জাতীয় শিশু দিবস উদযাপন উপলক্ষে আগামী রোববার (১৭ মার্চ) গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় যাচ্ছেন রাষ্ট্রপতি এ্যাভোকেট মোঃ আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এদিন রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুর সমাধি সৌধে পুস্পস্তবক অর্পণ করে জা‌তির পিতার প্রতি শ্রদ্ধা জানাবেন। এছাড়া প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধুর সমাধি সৌধ কমপ্লেক্সে মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় আয়োজিত জাতীয় শিশু দিবসের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে ভাষণ দিবেন। পরে জাতীয় গ্রন্থ কেন্দ্র ও জেলা প্রশাসনের বিভিন্ন কর্মসূচিতে অংশ নিবেন প্রধানমন্ত্রী।

এ উপলক্ষে টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধি সৌধ কমপ্লেক্সে শেষ হয়েছে পরিস্কার পরিচ্ছন্নতার কাজ। শিশু সমাবেশের মঞ্চ তৈরিসহ সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। টুঙ্গিপাড়াসহ জেলায় নেওয়া হয়েছে তিন স্তরবিশিষ্ট নিরাপত্তা ব্যবস্থা।

রাষ্ট্রপতির প্রটোকল অফিসার মোহাম্মদ নাসির উদ্দিন সরোয়ার স্বাক্ষরিত গোপালগঞ্জের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মোখলেসুর রহমান সরকারের কাছে পাঠানো এক বার্তায় জানা গেছে, আগামী রোববার সকাল ৯টা ১০ মিনিটে রাষ্ট্রপাতি মোঃ আবদুল হামিদ তেজগাঁও হেলিপ্যাড থেকে হেলিকপ্টার যোগে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ার উদ্দেশ্যে যাত্রা করবেন। সকাল ৯টা ৫০ মিনিটে টুঙ্গিপাড়া হেলিপ্যাডে অবতরণ করবেন।

সকাল ১০টায় রাষ্ট্রপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মাজারে পুস্পস্তবক অর্পণ করবেন। এ সময় তিন বাহিনী কর্তৃক গার্ড অব অনার প্রদান করা হবে। পরে রাষ্ট্রপতি ফাতেহা পাঠ ও মোনাজাতে অংশ নিবেন। সকাল ১০টা ৩৫ মিনিটে রাষ্ট্রপতি টুঙ্গিপাড়া হেলিপ্যাড থেকে হেলিকপ্টার যোগে ঢাকার উদ্দেশ্যে যাত্রা করবেন।

অপরদিকে, প্রধানমন্ত্রীর প্রটোকল অফিসার-২ এস এম খুরশিদ-উল-আলম স্বাক্ষরিত গোপালগঞ্জের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মোখলেসুর রহমান সরকারের কাছে পাঠানো এক বার্তায় জানা গেছে, একই দিন সকাল ৯টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তেজগাঁও বিমান বন্দর থেকে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ার উদ্দেশ্যে যাত্রা করবেন। সকাল ৯টা ৪০ মিনিটে টুঙ্গিপাড়া হেলিপ্যাডে অবতরণ করবেন প্রধানমন্ত্রী। সকাল ৯টা ৫০ মিনিটে তিনি টুঙ্গিপাড়া হেলিপ্যাড থেকে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধি সৌধের উদ্দেশ্যে যাত্রা করবেন।

সকাল ১০ টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মাজারে পুস্পস্তবক অর্পণ করবেন। এ সময় তিন বাহিনী কর্তৃক গার্ড অব অনার প্রদান করা হবে। পরে তি‌নি ফাতেহা পাঠ ও বিশেষ মোনাজাতে অংশ নিবেন।

সকাল সাড়ে ১০টা থেকে ১২ টা ১০ মিনিট পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধি সৌধ কমপ্লেক্সে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্ম বার্ষিকী এবং জাতীয় শিশু দিবস-২০১৯ উদযাপন উপলক্ষে গোপালগঞ্জ জেলা ব্রান্ডিং এর লোগোর রেপ্লিকা উপহার হিসেবে গ্রহণ, ‘বঙ্গবন্ধুকে লেখা চিঠি’ গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন, বঙ্গবন্ধুকে লেখা শ্রেষ্ঠ চিঠি পাঠ, সেলাই মেশিন বিতরণ, “আমার কথা শোন” শীর্ষক ভিডিও প্রদর্শন, জাতীয় শিশু দিবসের আলোচনা সভায় যোগদান ও প্রধান অতিথির ভাষণ প্রদান, কাব্যনৃত্যগীতি আলেখ্যানুষ্ঠান উপভোগ, শিশুদের ফটোসেশনে অংশগ্রহণ এবং বই মেলা উদ্বোধন ও বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশুদের আঁকা বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ শীর্ষক চিত্র প্রদর্শনী পরিদর্শন করবেন।

দুপুর সাড়ে ১২টা থেকে দুপুর ২টা ১৫ মিনিট পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রী নিজ বাস ভবনে অবস্থান করবেন। দুপুর ২টা ৪৫ মিনিটে প্রধানমন্ত্রী টুঙ্গিপাড়া হেলিপ্যাডের উদ্দেশ্যে যাত্রা করবেন। বেলা ৩টায় তিনি হেলিকপ্টার যোগে ঢাকার উদ্দেশ্যে যাত্রা করবেন।

রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর আগমনকে কেন্দ্র করে বঙ্গবন্ধুর সমাধি সৌধ কমপ্লেক্সের মূল স্তম্ভ, বঙ্গবন্ধু ভবন, মুক্তমঞ্চ, লাইব্রেরী, সংগ্রহশালা, ক্যাফেটরিয়া, মসজিদ, বকুলতলা চত্ত্বর এলাকায় শেষ হয়েছে পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা ও উন্নয়নমূলক কাজ। বিভিন্ন অবকাঠামোতে রঙের কাজ ও ফুল গাছের চারা লাগানো হয়েছে। যা শনিবারের মধ্যে (১৬ মার্চ) শেষ হবে।

জন্মদিবস এবং জাতীয় শিশু দিবসের বকুলতলা চত্তরে অনুষ্ঠিত হবে সমাবেশ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এ অনুষ্ঠানের জন্য তৈরী করা হয়েছে মঞ্চ। নাচ ও গান পরিবেশনের জন্য সকল প্রস্তুতি শেষ করেছে শিশু-কিশোরেরা।

এদিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও নেতৃবৃন্দের আগমনে আওয়ামী লীগের স্থানীয় নেতাকর্মীদের মধ্যে সৃষ্টি হয়েছে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা। রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীসহ সরকারের উচ্চ পর্যায়ের কর্তাব্যক্তিদের স্বাগত জানাতে ফরিদপুরের ভাঙ্গা থেকে টুঙ্গিপাড়া পর্যন্ত মহাসড়কে শতাধিক তোরণ নির্মাণ করা হয়েছে। বঙ্গবন্ধু, রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি সংবলিত ব্যানার ও ফেস্টুন দিয়ে গোপালগঞ্জকে সাজানো হয়েছে। জেলায় চলছে সাজ-সাজ রব।

গোপালগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব আলী খান জানান, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম বার্ষিকী উপলক্ষে টুঙ্গিপাড়ায় রাষ্ট্রীয়ভাবে জাতীয় শিশু দিবসের বিভিন্ন কর্মসূচি পালিত হবে। রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর আগমনকে কেন্দ্র নেতা-কর্মীরা উজ্জ্বীবিত। তাদের স্বাগত জানাতে গোপালগঞ্জের বিভিন্ন সড়ক ও গুরুত্বপূর্ণস্থানে তোরণ ও ব্যানার দিয়ে সাজানো হয়েছে।

গোপালগঞ্জের পুলিশ সুপার মুহাম্মদ সাইদুর রহমান খান বলেন, আগামী রোববার রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীসহ মন্ত্রীবর্গ ও সরকারের উচ্চ পর্যায়ের ব্যক্তিবর্গ টুঙ্গিপাড়া আসবেন। তাদের আগমনকে নির্বিঘ্ন করতে টুঙ্গিপাড়ায় তিনস্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। এছাড়া গোপালগঞ্জেও নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে।

Read previous post:
‘সম্পূর্ণ নিরাপত্তা দিতে পারলেই খেলতে যাবে বাংলাদেশ’

তৃতীয় মাত্রা : মসজিদের সামনে প্রধান সড়কে টিম বাস রেখে হেটে আল নূর মসজিদের দিকে যাচ্ছিলেন বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটাররা। শুক্রবারের...

Close

উপরে